বড় খবর

শিল্প শহর হলদিয়ায় বড় মাপের অস্ত্র কারখানার হদিশ, চাঞ্চল্য জেলা জুড়ে

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, লেদ কারখানাটি একটি ভাড়া বাড়িতে চলত। এদিন কারখানার মধ্যে থেকে প্রায় ১০০টি অর্ধসমাপ্ত বন্দুক উদ্ধার হয়েছে।

এই বাড়িতেই রমরমিয়ে চলছিল অস্ত্র কারখানা
লোকসভা ভোটের আগে শিল্প শহর হলদিয়ায় লেদ কারখানার আড়ালে অস্ত্র তৈরির কারখানার হদিস পাওয়ায় জেলা জুড়ে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। কলকাতা, হাওড়ার পর এবার বড় মাপের অস্ত্র কারখানার হদিশ পাওয়া গেলো পূর্ব মেদিনীপুরেও। শুক্রবার এসটিএফ এবং পূর্ব মেদিনীপুর জেলা পুলিশের যৌথ অভিযানে দুর্গাচক থানার ভাগ্যবন্তপুরের একটি লেদ কারখানার মধ্যে এই অস্ত্র কারখানার হদিশ মেলে।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, লেদ কারখানাটি একটি ভাড়া বাড়িতে চলত। এদিন কারখানার মধ্যে থেকে প্রায় ১০০টি অর্ধসমাপ্ত বন্দুক উদ্ধার হয়েছে। এই ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে। পরে পুলিশ ও এসটিএফ-এর দল অস্ত্র সহ লেদ মেশিনও বাজেয়াপ্ত করেছে।

বাজেয়াপ্ত অস্ত্রের একাংশ

এসটিএফ সূত্রে খবর, গত ১৩ জানুয়ারি বিহারের মুঙ্গের জেলায় একটি অভিযান চালায় অ্যান্টি এফআইসিএন (ফেক ইন্ডিয়ান কারেন্সি নোট) ইউনিট। এই বিশেষ অভিযান চালিয়ে ছ’জনকে বেশ কিছু অর্ধসমাপ্ত অস্ত্র সমেত গ্রেফতার করা হয়। এদের মধ্যে তিনজন বিহারের মুঙ্গের জেলার বাসিন্দা। ধৃতদের পুলিশ হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ চালানো হচ্ছে। তাদের কাছ থেকেই হলদিয়ার এই অস্ত্র কারখানার হদিশ জানতে পারে এসটিএফ। এরপরেই আজ পূর্ব মেদিনীপুর জেলা পুলিশকে সঙ্গে নিয়ে ভাগ্যবন্তপুরের ওই বাড়িটিতে অভিযান চালানো হয়। বাড়িটি স্থানীয় এক সাইকেল ব্যবসায়ীর হলেও তিনি এই বিষয়ে কিছুই জানতেন না বলে দাবী করেছেন।


পূর্ব মেদিনীপুরের পুলিশ সুপার ভি. সলোমন নেসাকুমার জানিয়েছেন, এসটিএফ-এর সঙ্গে যৌথভাবে অভিযানে নেমেছিল পূর্ব মেদিনীপুর জেলা পুলিশ। ওই কারখানা থেকে প্রায় ১০০ টি অসম্পূর্ণ বন্দুক উদ্ধার হয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি। এই কারখানাটিকেও সিল করে দেওয়া হয়েছে। তবে এদিন নতুন করে কেউ গ্রেফতার হয়নি বলে পুলিশ সুপার জানিয়েছেন।

Get the latest Bengali news and Westbengal news here. You can also read all the Westbengal news by following us on Twitter, Facebook and Telegram.

Web Title: Large illegal arms factory busted haldia west bengal first time ever

Next Story
শ্রীকান্ত মোহতাকে হেফাজতে না চেয়ে জেলে পাঠানোর আবেদন সিবিআই-এর
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com