scorecardresearch

কলকাতায় গ্রেফতার রাজীব কুমার, ১০ কোটি চেয়ে ব্ল্যাকমেলের অভিযোগ

তিনি আলাদা একটি আবেদনপত্রে নিজের নিরাপত্তা চেয়ে আবেদনও করেছিলেন।

Kolkata Police
কলকাতা পুলিশ। ফাইল ছবি

শেষ পর্যন্ত গ্রেফতার করা হল রাজীব কুমারকে। তবে ইডি বা সিবিআই নয়। গ্রেফতার করলেন কলকাতা পুলিশের গুন্ডাদমন শাখার আধিকারিকরা। হেয়ার স্ট্রিট এলাকা থেকে তাঁকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাঁর কাছ থেকে বেশ কিছু টাকা উদ্ধার হয়েছে বলেই পুলিশ সূত্রে খবর। রাজীব কুমারের কয়েকজন সঙ্গী তাঁকে সাহায্য করছিলেন। ওই সঙ্গীদের খোঁজেও তল্লাশি শুরু করেছে পুলিশ।

ঝাড়খণ্ডের মুখ্যমন্ত্রী হেমন্ত সোরেনের বিরুদ্ধে খনির ইজারা কেলেঙ্কারি, আর্থিক নয়ছয়-সহ একাধিক অভিযোগ দায়ের হয়েছে। সেই সব অভিযোগের মামলাকারীর আইনজীবী রাজীব কুমার। তাঁর বিরুদ্ধে ৫০ লক্ষ টাকা আর্থিক প্রতারণারও অভিযোগ রয়েছে। পুলিশ সূত্রে খবর, মধ্য কলকাতার এক শপিংমল থেকে ওই আইনজীবীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ঝাড়খণ্ড পুলিশের থেকে পাওয়া খবরের ভিত্তিতেই গ্রেফতার করা হয়েছে ওই আইজীবীকে। ধৃতের বিরুদ্ধে বেশ কয়েকটি মামলা চলছে বলে অভিযোগ।

‘জনস্বার্থ মামলা দায়ের’-এর জন্য ঝাড়খণ্ডে রাজীব কুমার বেশ পরিচিত নাম। সম্প্রতি শিবকুমার শর্মা নামে এক ব্যক্তির হয়ে তিনি তিনটি জনস্বার্থ মামলা দায়ের করেছেন। তার মধ্যে দুটি মামলায় মুখ্যমন্ত্রী হেমন্ত সোরেনকে তিনি জড়িয়েছেন। খনি দফতরের দায়িত্বে ছিলেন হেমন্ত সোরেন। তাঁকে খনির ইজারা কেলেঙ্কারিতে অভিযুক্ত করা হয়েছে। পাশাপাশি, হেমন্ত সোরেনের বিরুদ্ধে কোম্পানি খুলে আর্থিক নয়ছয়ের অভিযোগও দায়ের করেছেন রাজীব কুমার। বর্তমানে এই মামলাগুলোর তদন্ত করছে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট।

আরও পড়ুন- বঙ্গের মানচিত্রে জুড়ল আরও ৭ জেলা, নাম ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর

শুধু এই কয়েকটি মামলাই নয়। হেমন্ত সোরেন সরকারের বিরুদ্ধে মহাত্মা গান্ধী জাতীয় কর্মনিশ্চয়তা প্রকল্পেও নয়ছয়ের অভিযোগ উঠেছে। আর, সেই অভিযোগেও মামলা করেছেন রাজীব কুমার। সেই মামলার তদন্তও করছে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট। ইতিমধ্যে ওই মামলায় এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট খনিসচিব পূজা সিংঘল ও হেমন্ত সোরেনের সহযোগী পঙ্কজ মিশ্রকে গ্রেফতারও করেছে।

এরপর চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে হেমন্ত সোরেনের বিরুদ্ধে খনি কেলেঙ্কারির অভিযোগ তুলে জনস্বার্থ মামলা দায়ের করেন রাজীব কুমার। সেই সময় তিনি আলাদা একটি আবেদনপত্রে নিজের নিরাপত্তা চেয়ে আবেদনও করেছিলেন। রাজীব কুমারের দাবি ছিল, খনি কেলেঙ্কারিতে মামলা করার পর তাঁর নিরাপত্তা বিঘ্নিত। তাঁকে হুমকি দেওয়া হচ্ছে। যদিও সেই আবেদনের বিপরীতে ঝাড়খণ্ডের অ্যাডভোকেট জেনারেল রাজীব রঞ্জন জানিয়েছিলেন, আবেদনটি অর্থহীন। স্রেফ মুখ্যমন্ত্রীকে কলঙ্কিত করার জন্য অভিযোগটি দায়ের করা হয়েছে।

Read full story in English

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Westbengal news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Lawyer against cm soren arrested in kolkata