scorecardresearch

বড় খবর

পথ দেখিয়েছে আনিস-আন্দোলন, তুহিনার মৃত্যু নিয়েও পথে নামার হুঁশিয়ারি বাম-কংগ্রেসের

ছাত্রী আত্মহত্যায় প্ররোচনা ছিল তৃণমূল কাউন্সিলরের। পুলিশের কাছে অভিযোগেও নাম রয়েছে তাঁর। গ্রেফতার ৪। প্রশ্ন কমিশনের ভূমিকায়।

Left Congress warns of movement to catch killers of college students in Burdwan
আনিস খান, তুহিনা খাতুন

পুর ভোটের ফল প্রকাশের পরেই গলায় দড়ি দিয়ে মরতে হবে তিন বোনকে। পুর ভোটের আচরণবিধি জারি থাকার সময়েই শহর বর্ধমানের ২৭ নম্বর ওয়ার্ডের দেওয়ালে আঁকা হয় হুমকি বার্তা। ওই ছবি আঁকানোর অভিযোগ উঠেছিল ওই ওয়ার্ডেরই তৃণমূল প্রার্থী শেখ বসির আহমেদ ও তাঁর অনুগামীদের বিরুদ্ধে। কিন্তু রাজ্য নির্বাচন কমিশন বা পুলিশ- কোনও তরফেই পুর ভোটের ফল প্রকাশের দিন পর্যন্ত ওই ছবি মোছানোর কোন উদ্যেগ নেওয়া হয় না। তাই ওই ছবি এলাকায় দেওয়ালেই রয়ে যায়। আর ওই দেওয়ালচিত্রের বার্তাই বাস্তবে ফলে যায় ২ মার্চ বর্ধমানের ২৭ নম্বর ওয়ার্ডের বাবুরবাগ নতুনপল্লী এলাকায়।

পুর ভোটের ফল প্রকাশের পরেই বিকেলে বাড়ি থেকে উদ্ধার হয় স্থানীয় তৃণমূল সমর্থক পরিবারের কলেজ ছাত্রী তুহিনা খাতুনের(১৭) ঝুলন্ত দেহ। বাড়িতে চড়াও হয়ে হুমকি শাসানি দিয়ে ওই কলেজ ছাত্রীকে আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে সদ্য নির্বাচিত ২৭ নম্বর ওয়ার্ডের তৃণমূল কাউন্সিলার শেখ বসির আহমেদ ও তাঁর অনুগামীদের বিরুদ্ধে। আর তুহিনার এমন মর্মান্তিক মৃত্যুর ঘটনা এখন আমতার ছাত্র নেতা আনিসকে খুনের ঘটনার মতোই তোলপাড় ফেলে দিয়েছে রাজ্য রাজনীতিতে।

বর্ধমান থানায়র সামনে বিক্ষোভ এসএইআই কর্মী, সমর্থকদের ছবি-প্রদীপ চট্টোপাধ্যায়

বর্ধমান রাজ কলেজের প্রথম বর্ষের ছাত্রী তুহিনার খাতুনের মৃত্যুর ঘটনা নিয়ে শুক্রবার বর্ধমানের জেলা কার্যালয়ে সাংবাদিক বৈঠক করেন এসএফআইয়ের পূর্ব বর্ধামান জেলা সভাপতি বিশ্বরুপ হাজরা। তিনি স্পষ্ট জানিয়ে দেন পুর ভোটের ফল প্রকাশের পরেই শাসকের রাজনৈতিক হিংসা ও অত্যাচার সহ্য করতে না পেরে ছাত্রী তুহিনা আত্মঘাতী হয়েছেন। নির্বাচনী আচরণবিধি জারি থাকার মধেও তুহিনাদের বাড়ির ঠিক আগের একটি দেওয়ালে ছবি আঁকা হয় তিনটি মেয়ের দেহ ঝুলছে। এই ঘটনা অমানবিক ও আদিম হিংস্রতার চরম প্রকাশ বলে এসএফআই মনে করে। পুলিশের নির্দেশ পাওয়ার পরেও ওই এলাকার তৃণমূল প্রার্থী দেওয়াল লিখন মোছেনি। আমতার ছাত্র নেতা আনিস খানের মৃত্যু যেমন দুর্ভাগ্য জনক, তার চেয়ে কিছু কম ময় বর্ধমানের ঘটনা।

তুহিনার মৃত্যুর ঘটনা নিয়ে এসএফআই বৃহত্তর প্রতিবাদ আন্দোলনে নামবে বলে বিশ্বরুপ হাজরা এদিন জানিয়েদেন। তুহিনার মৃত্যুর ঘটনার বিচার চেয়ে এদিন বিকালে এসএফআই, ডিওয়াইএফআই ও গণতান্ত্রিক মহিলা সমিতির সদস্যারা বর্ধমান থানার সামনে ধরনায় বসেন। তুহিনার মৃত্যুর ঘটনায় সকল দোষীদের গ্রেফতার ও শাস্তির দাবি করেন এসএফআইয়ের জেলা সম্পাদক অনির্বাণ হাজরা।

এই ছবি ঘিরেই বিতর্ক ছবি- প্রদীপ চট্টোপাধ্যায়

এসএফআইয়ের মতোই কংগ্রেস নেতৃত্বও তুহিনা খাতুনের মৃত্যুর ঘটনার প্রতিবাদে স্বোচ্চার হয়েছেন। প্রদেশ কংগ্রেসের কার্যকরী সভাপতি নেপাল মাহাতো এদিন জেলা কংগ্রেসের নেতাদের সঙ্গে নিয়ে বাবুরবাগে আত্মঘাতী কলেজ ছাত্রী তুহিনা খাতুনের বাড়িতে যান। কংগ্রেস নেতাদের কাছে তৃণমূল কাউন্সিলার বসির আহমেদ ও তাঁর অনুগামীদের বিরুদ্ধে একরাশ ক্ষোভ উগরে দেন তুহিনার পরিবার। এখনও বসির আহমেদ হুমকি দিচ্ছে বলে তারা কংগ্রেস নেতাদের কাছে জানান।

নেপালবাবু জানান, ‘ভোটের সময়ে ছবি এঁকে হুমকি দিয়ে এই ধরনের দেওয়াল লেখা চরম থেকে চরমতম অপরাধ। এটা একটা নক্কারজনক ঘটনা। নির্বাচন চলাকালীন এলাকার আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নির্বাচন কমিশনের আওতায় থাকে। নির্বাচন কমিশন চেষ্টা করেও এই ছবি মুছতে পারেনি। এর দ্বারাই বোঝা যায় রাজ্য নির্বাচন কমিশনের ক্ষমতা কতটা।’ পুলিশ গোটা বিষয়টিকে অন্যদিকে ঘুরিয়ে দিতে চাইছে বলেও নেপালবাবু অভিযোগ করেছেন। একই সঙ্গে নেপাল মাহাতো জানিয়েদেন, দোষীদের উপযুক্ত শাস্তির দাবিতে প্রয়োজনে তাঁরা আইনি লড়াই লড়বেন।

কংগ্রেস নেতা নেপাল মাহাতর সঙ্গে মৃতের পরিবারের সদস্যরা ছবি-প্রদীপ চট্টোপাধ্যায়

যদিও বসির আহমেদ এদিন বলেন , ‘তাঁর বিরুদ্ধে মিথ্যা করে হুমকি দেওয়ার অভিযোগ তোলা হচ্ছে । প্রয়োজনে সিআইডি দিয়ে ঘটনার তদন্ত হোক। আসল ঘটনা প্রকাশ্যে আসুক।’

কেন কমিশন ওই ছবি মুছলো না? এই প্রশ্নের উত্তরে বর্ধমান সদর মহকুমা শাসক তথা পুর নির্বাচনী আধিকারিক তীর্থাঙ্কর বিশ্বাস বলেন, ‘এই সংক্রান্ত বিষয়ে আমার কিছু জানা নেই । আমার কাছে কোন অভিযোগও আসেনি।’ তবে এই প্রসঙ্গে ডিএসপি (সদর) অতনু ঘোষাল বলেন, ‘মৃতার পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত চলছে । ইতিমধ্যেই চারজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে । অভিযোগের সমস্ত দিক খতিয়ে দেখা হচ্ছে। সত্যতা মিললে দোষীরা কেউ ছাড় পাবে না ।’

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Westbengal news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Left congress warns of movement to catch killers of college students in burdwan