scorecardresearch

বড় খবর

ছাগলের লোভে এসে বেড়ায় আটকে বিপত্তি! চিতাবাঘের গোঙানিতে তুঙ্গে আতঙ্ক

ঘুমপাড়ানি গুলি ছুঁড়ে চিতাবাঘটিকে কাবু করেন বনদফতরের কর্মীরা।

ছাগলের লোভে এসে বেড়ায় আটকে বিপত্তি! চিতাবাঘের গোঙানিতে তুঙ্গে আতঙ্ক
ঘুমপাড়ানি গুলি করে কাবু করা হয়েছে চিতাবাঘটিকে। ছবি: সন্দীপ সরকার।

ছাগল খেতে এসে ঘোর বিপাকে জঙ্গলের চিতা। ঘরের বেড়ায় আটকে গোঙানি শুরু জঙ্গলের দস্যির। এই ঘটনার কথা ছড়িয়ে পড়তেই রীতিমতো আতঙ্ক ছড়িয়ে পরে এলাকায়। বুধবার রাতে ঘটনাটি ঘটেছে বানারহাট থানার তেলিপাড়ার কালুয়া কলোনিতে। পরে খবর পেয়ে বনদফতরের কর্মীরা ঘটনাস্থলে এসে ঘুম পাড়ানি গুলি ছোঁড়েন। নিস্তেজ করে উদ্ধার করা হয় চিতাটিকে।

বানারহাট থানার কালুয়া কলোনিতে প্রায়শই লেগে থাকে হাতির হানা। এলাকার প্রবীণ বাসিন্দা শ্যামসুন্দর রাওয়ের মেয়ে রিনা বাড়ির পোষ্য কুকুরদের আওয়াজ শুনে ভেবেছিলেন হয়তো অন্য দিনের মতো এলাকায় হাতি এসেছে। তবে কাছে গিয়ে টর্চ জ্বালিয়ে তিনি দেখেন বাড়ির ছাগল রাখার ঘরে বেড়ার মধ্যে আটকে রয়েছে একটি চিতাবাঘ। দেখেই চক্ষু চড়কগাছ হয় রিনার।

তাঁর প্রাণপণ চিৎকারে ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন প্রতিবেশীরা। এরপরই খবর দেওয়া হয় বিন্নাগুড়ি বন্যপ্রাণ দফতরকে। বুধবার রাতে কালুয়া কলোনিতে গৃহস্থের বাড়িতে চিতাবাঘের হানার খবর ছড়িয়ে পড়তেই আতঙ্কিত হয়ে পড়েন এলাকাবাসী। ঘটনাস্থলে এসে বন্যপ্রাণ শাখার কর্মীরা প্রায় দু’ঘন্টার চেষ্টায় ঘুমপাড়ানি গুলি করে চিতাবাঘ টিকে কাবু করে। এরপর সেটিকে উদ্ধার করে নিয়ে যায় বিন্নাগুড়ি রেঞ্জে।

আরও পড়ুন- চাকরি নিয়ে বিরাট ‘প্যাঁচে’ কেষ্ট কন্যা, সঙ্গে পাঁচ ঘনিষ্ঠও, আজ তলব হাইকোর্টে

জানা গিয়েছে, এর আগেও শ্যামসুন্দর রাওয়ের বাড়ি থেকে খোয়া যায় একটি ছাগল। তাঁরা ভেবেছিলেন ছাগলটি হয়তো চুরি হয়েছে। পরে তারা পায়ের ছাপ দেখে নিশ্চিত হয়েছিলেন চিতাবাঘ তুলে নিয়ে গিয়েছিল ছাগলটিকে।

এরপর বুধবার ফের রাত ৮টা নাগাদ চিতাবাঘটি ওই বাড়ির ছাগল রাখার ঘরে ঢোকে। তবে ছাগলকে ধরার আগেই কোনওভাবে সেটি ঘরের বেড়ার মধ্যে আটকে যায়। মুখে আঘাত পায় জন্তুটি। শ্যামসুন্দরবাবুর মেয়ে রিনা হাতির হানা মনে করে বাইরে বেড়িয়ে আওয়াজ শুনে ঘরে গিয়ে প্রথম চিতাবাঘটিকে দেখতে পান।

আরও পড়ুন- দানা বাঁধছে আরও একটি নিম্নচাপ, জোরালো বৃষ্টির সম্ভাবনা জেলায়-জেলায়

পরে ঘুমপাড়ানি গুলি করে খাঁচাবন্দি করে সেখান থেকে নিয়ে যাওয়া হয় চিতাবাঘটিকে। এরপর যেন হাফ ছেড়ে বাঁচেন শ্যামসুন্দর রাওয়ের পরিবার। শ্যামসুন্দর রাওয়ের মেয়ে রিনা রাও বলেন, ‘হাতির হানার কথা ভেবে বাইরে বেড়িয়ে ছাগল রাখার ঘরে একটা আওয়াজ শুনতে পাই। টর্চ জ্বালিয়ে দেখি একটি জন্তু জ্বল জ্বল চোখে তাকিয়ে আছে। চিতাবাঘটি কোনওভাবে আটকে গিয়েছিল। পড়ে চিৎকার করে সবাইকে ডাকি। বাঘটি পাশের তেলিপাড়া চা বাগান থেকে হয়তো এসেছিল।’

জলপাইগুড়ি অনারারি ওয়াইল্ড লাইফ ওয়ার্ডেন সীমা চৌধুরী বলেন, ‘সম্ভবত ছাগলের লোভে চিতাবাঘটি শ্যামসুন্দর রাওয়ের বাড়িতে ঢুকে পড়ে ও বেড়ায় আটকে যায়। চিতাবাঘটির মুখে সামান্য আঘাত লেগে থাকতে পারে। সেটিকে ঘুম পাড়ানি গুলি করে উদ্ধার করা হয়েছে। চিতাবাঘটিকে সুস্থ করে ছেড়ে দেওয়া হবে গভীর জঙ্গলে।”

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Westbengal news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Leopard wounded due to trapped in the fence