scorecardresearch

বড় খবর

বন্দে ভারতে পাথর হামলার তদন্তে বিজেপিতে দ্বিমত, রাজ্য পুলিশেই আস্থা গেরুয়া সাংসদের!

এনআইএ তদন্তের দাবি তুলেছেন শুভেন্দু অধিকারী।

বন্দে ভারতে পাথর হামলার তদন্তে বিজেপিতে দ্বিমত, রাজ্য পুলিশেই আস্থা গেরুয়া সাংসদের!
হামলার পর বন্দে ভারত ট্রেনের কামরার কাচ ক্ষতিগ্রস্ত।

বাংলায় বন্দে ভারতে হামলার তদন্তে বিজেপিতেই ভিন্নমত। রাজ্যের বিরোধী দলনেতা যখন এনআইএ তদন্তের দাবি তুলেছেন, তখন রাজ্য গোয়েন্দা সংস্থা সিআইডি-কে দিয়েই পরপর দু’দিন পাথর হামলায় তদন্তের পক্ষে সওয়াল করলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী তথা গেরুয়া দলের সাংসদ সুভাষ সরকার। তাঁর দাবি, তদন্তের ক্ষেত্রে রাজ্য পুলিশ যথেষ্ট যোগ্য।

কী বলেছেন মন্ত্রী সুভাষ সরকার?

বাংলায় প্রথন তিন দিনের যাত্রাতেই দু’বার পাথরের ঘায়ে ক্ষতিগ্রস্ত বন্দে ভারত। এই ঘটনা বঙ্গ রাজনীতিতে উত্তাপ ছড়িয়েছে। একে অপরকে দুষছে শাসক ও বিরোধী শিবির। ঘটনার পর শুভেন্দু অধিকারীর প্রস্ন ছিল, ‘উদ্বোধনের দিনে জয় শ্রী রাম স্লোগানের প্রতিশোধেই এই হামলা?’ একই সঙ্গে এনআইএ তদন্তের পক্ষে সোচ্চার হন বিরোদী দলনেতা। পাল্টা বন্দে ভারতের উপর পাথর বৃষ্টিকে ‘পরিকল্পিত উস্কানি’ বলে তোপ দেগে পদ্ম বাহিনীকে নিশানা করেছিল তৃণমূল।

বন্দে ভারত দ্বিতীয়বার হামলার পর মুখ খুললেন কেন্দ্রীয় শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী তথা বাঁকুড়ার বিজেপি সাংসদ সুভাষ সরকার। হামলার তদন্তে অবশ্য কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থাকে কাজে লাগাতে চাননি তিনি। উল্টে দলের শীর্ষ নেতা শুভেন্দুর ভিন্নসুরই শোনা গিয়েছে সুভা,বাবুর মুখে।

এনআইএ-তে দিয়ে নয়। তদন্তে রাজ্য পুলিশেই আস্থা রাখছেন সাংসদ সুভাষ সরকার। বুধবার তিনি বলেন, ‘বন্দে ভারতে দ্বিতীয় দিন হামলা হল, পরিকল্পিতভাবে পাথর ছোড়া হল। তারপরও রাজ্য সরকার ও মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রীর কোনও বক্তব্য নেই। কেন্দ্রী. সরকারের কোনও উন্নয়নই কী রাজ্য প্রশাসন বরদাস্ত করতে পারছেন না? এটা স্পষ্ট করে রাজ্যবাসীকে রাজ্য সরকার তাহলে জানিয়ে দিক। না হলে চাইব, মানীয়া মুখ্যমন্ত্রী এই হামলার তদন্তে সিআইডি তদন্তের নির্দেশ দিন। আমি বলছি না এতে সিবিআই তদন্ত প্রয়োজন। রাজ্য পুলিশ যথেষ্ট যোগ্য। কোথা থেকে কারা ঢিল ফেললেন তা খুঁজে বার করুক পুলিশ। তবে তদন্তের ক্ষেত্রে যেন কোনও স্বজনপোষণ রাজনীতি না হয়। রাজ্য পুলিশ সুয়োমোটো এফআইআর করুন আজকের মধ্যে, ইতিমধ্যেই দেরি হয়ে গিয়েছে, আর দেরি ঠিক হবে না।’

রাজ্য বিজেপির সভাপতি তথা বালুরঘাটের সাংসদ সুকান্ত মজুমদার বলেছেন, ‘মারতে হলে ঢিল উপযুক্ত জায়গায় মারুন। ঘর পাচ্ছেন না, তাই বিডিও অফিসে ঢিল মারুন।’

বন্দ ভারতে পাথর হামলার তদন্ত পসঙ্গে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী সুভাষ সরকারের দাবি প্রসঙ্গে তৃণমূলের রাজ্য সহ-সভাপতি জয়প্রকাশ মজুমদার বলেন, ‘অবঞ্চিত ঘটনা। তবে বন্দে ভারতে আগেও ঢিল মারা হয়েছে। সেগুলো আবার বিজেপি শাসিত রাজ্যেই হয়েছে। তখন তো হইচই হয়নি। কেউ ঢিল মারলে রেলপুলিশ রাজ্য পুলিশকে জানাবে, তদন্ত হবে। সেটাই বলেছেন ডাঃ সরকার। কিন্তু, বিজেপি এসব নিয়ে রাজনীতি করছে।’

আরও পড়ুন- ‘বিডিও অফিসে ঢিল মারুন’, নিদান সুকান্তর, গ্রেফতারে চায় তৃণমূল

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Westbengal news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Let cid investigate vande bharat stone pelting case says bjp mp subhash sarkar