scorecardresearch

বড় খবর

‘মমতা আদিবাসী বিরোধী’, এবার একেবারে পোস্টার দিয়ে প্রচারে ঝাঁপাল বিজেপি

অবশ্য খোদ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ই দ্রৌপদী মুর্মুর রাষ্ট্রপতি ভোটে জয়ের সম্ভাবনা বেশি বলে মেনে নিয়েছেন। দাবি করেছিলেন, বিজেপি প্রার্থীর কথা তাঁদের আগে জানায়নি।

mamata anti adibasi poster by bjp at malda, মমতা আদিবাসী বিরোধী পোস্টার
এই পোস্টার ঘিরেই শোরগোল। ছবি- মধুমিতা দে

‘আদিবাসী জাতি বিরোধী মমতা।’ আদিবাসীদের গ্রামেই পড়ল এই পোস্টার। যা ঘিরে শোরগোল মালদার হবিবপুর থানার কেন্দপুকুর এলাকায়। পোস্টার দেওয়ার কথা স্বীকার করেছে বিজেপি। সোচ্চার তৃণমূল কংগ্রেস। এছাড়া পশ্চিম মেদিনীপুরের পিংলাতেও একই পোস্টার পড়েছে।

ওড়িশার ময়ূরভঞ্জের বাসিন্দা দ্রৌপদী মুর্মুরে এবার রাষ্ট্রপতি পদে প্রার্থী করেছে এনডিএ। তার আগেই অবশ্য আদর্শের কথা তুলে যশবন্ত সিনহাকে লড়াইয়ে নামায় তৃণমূল, কংগ্রেস সহ বিরোধীদের ১৮টি দল। কেন এক আদিবাসীকে রাইসিনার লড়াইয়ে সমর্থন করতে পারল না বিরোধী দলগুলি? তা নিয়ে শুরু থেকেই প্রশ্ন তুলেছিল বিজেপি। নিশানা করা হয় বাংলার শাসক দল তৃণমূলকে। দ্রৌপদীর জাতিগত পরিচয়ের আবেগে বিরোধীদের মধ্যেও ভাগাভাগি নজরে এসেছে। বিজেপি বিরোধী হলেও, জেএমএম এনডিএ প্রার্থীকে সমর্থন করছে। বিজেডিও দ্রৌপদীর পক্ষে।

তৃণমূল আদিবাসী বিরোধী, দ্রৌপদী মুর্মুকে হাতিয়ার করে বঙ্গ আগেই প্রচার চালিয়েছে গেরুয়া দল। এবার সেই প্রচারই উঠে এল পোস্টারে। আগামী সোমবার রাষ্ট্রপতি ভোট। তার আগে আদিবাসী গ্রামে সেই পোস্টার পড়ার ঘটনা বেশ তাৎপর্যপূর্ণ।

পোস্টারে লেখা রয়েছে বিজেপি আদবাসি মহিলা দ্রোপদী মুর্মুকে রাষ্ট্রপতি পদে প্রার্থী করেছে। আদিবাসী মহিলাকে সম্মান জানিয়েছে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এর প্রতিবাদ করে প্রার্থী দিয়েছেন। উনি আদিবাসিদের সঙ্গে ছিলেন না, কখনও থাকবেন না। আদিবাসি জাতি বিরোধী মমতা।

এই পোস্টার প্রসঙ্গে বিজেপির হবিবপুর মণ্ডল সভাপতি সঞ্জীব সরকার জানিয়েছেন, বিজেপি আদিবাসিদের সম্মান জানিয়েছেন। তাই তাকে রাষ্ট্রপতি পদপ্রার্থী করেছে। কিন্তু মমতা বন্দোপাধ্যায় আদিবাসীদের অসম্মান করেছেন। ফলে মমতা বন্দোপাধ্যায় কখনও আদবাসিদের হতে পারে না। সেই কারনে এই পোস্টার দেওয়া হয়েছে। 

উত্তর মালদার বিজেপি সাংসদ খগেন মুর্মু বলেন,”মুখ্যমন্ত্রী আদিবাসী বিরোধী সেই কারনে বিরোধী প্রার্থী দিয়েছেন। উনি আদিবাসিদের ভালো বাসেন না। সেই কারনে আদিবাসী মহিলা রাষ্ট্রপতি প্রার্থী হওয়ায় প্রতিবাদ করছেন। এখন আদিবাসিদের মন পেতে মন গড়া কথা বলছেন। সেই কারণেই দলের তরফে এই পোস্টার দেওয়া হয়েছে।”

সোচ্চার তৃণমূল। শাসক দলের জেলা তৃণমূলের সভাপতি আব্দুর রহিম বক্সি বলেন, “মমতা বন্দোপাধ্যায় আদিবাসিদের সঙ্গে আছেন এবং থাকবেন। বিজেপি ভুল প্রচার করে মানুষকে বিভ্রান্ত করছে। মালদার আদিবাসী মানুষেরা যোগ্য জবাব দেবে। বিজেপি এক ঠকবাজের দল। ফলে বিভ্রান্ত করে লাভ নেই। পঞ্চায়েত ও লোকসভা ভোটের আগে বিভ্রান্ত করছে বিজেপি।”

রথের দিন অবশ্য খোদ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ই দ্রৌপদী মুর্মুর রাষ্ট্রপতি ভোটে জয়ের সম্ভাবনা বেশি বলে মেনে নিয়েছেন। দাবি করেছিলেন, দলিত, আদিবাসীরা তাঁর সঙ্গেই রয়েছে থাকবেন। বলেছিলেন, “ওরা প্রার্থী ঠিক করার আগে কিছু জানায়নি। জানালে ভেবে দেখতাম।”

আরও পড়ুন- ‘দুর্নীতি হলে দায় ঠিকাদার সংস্থারই’, AIIMS নিয়োগকাণ্ডে বিস্ফোরক বিজেপি বিধায়ক

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Westbengal news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Mamata anti adibasi poster by bjp at malda