বড় খবর

‘ধর্মের ভিত্তিতে ভাগাভাগি চাই না’, এনআরসি ইস্যুতে ফের সরব মমতা

‘‘আমি চাই আমার ভাই-বোনেরা সংঘবদ্ধভাবে থাকুক। এনআরসি-নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলের নামে ওদের ভাগ করতে চাই না আমরা’’।

mamata banerjee, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়
মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ছবি: ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস।

কালীপুজোর উদ্বোধনে গিয়েও এনআরসি ইস্যুতে সরব হলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ধর্মের ভিত্তিতে ভাগাভাগি চাই না, এই ভাষাতেই সোচ্চার হয়েছেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী। বৃহস্পতিবার শিলিগুড়িতে কালীপুজোর উদ্বোধনে গিয়ে মমতা বলেন, উত্তরবঙ্গবাসীকে সংঘবদ্ধভাবে থাকতে হবে। আমি চাই আমার ভাই-বোনেরা ঐক্যবদ্ধ হোক।

আরও পড়ুন: ‘মুসলিমদের অন্তর্ভুক্তি করলেই নাগরিকত্ব বিল সমর্থন করবেন মমতা’, বিস্ফোরক দাবি বিজেপি নেতার

ঠিক কী বলেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়?
মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘‘আমি চাই আমার ভাই-বোনেরা সংঘবদ্ধভাবে থাকুক। এনআরসি-নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলের নামে ওদের ভাগ করতে চাই না আমরা। ধর্মের ভিত্তিতে এই ভেদাভেদ মানব না। উৎসবের মরশুমে ঈশ্বরের কাছে প্রার্থনা করি, যাতে সকলে ভাল থাকেন’’।

আরও পড়ুন: মতা ভাইফোঁটায় কাকে কেন আমন্ত্রণ করলেন? এবার কি ঝামেলা মেটাতে চান?

উল্লেখ্য, ক’দিন আগেই উত্তরকন্যায় প্রশাসনিক বৈঠকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘‘বাংলায় এনআরসি করব না আমরা। এটা আমাদের সরকার। আমরা করতে দেব না’’। পাশাপাশি মমতা এও বলেন, ‘‘রাজ্যে কোনও ডিটেনশন ক্যাম্প তৈরি করা হবে না, প্রশ্নই ওঠে না’’। এনআরসি ইস্যুতে প্রথম থেকেই বিরোধিতা জানিয়ে আসছেন তৃণমূল সুপ্রিমো। এনআরসি বিরোধিতায় কলকাতায় পদযাত্রাও করেন মমতা। কিছুদিন আগে অমিত শাহের সঙ্গে বৈঠক করেন মমতা। সেই বৈঠকের পর মুখ্যমন্ত্রী বলেন, বাংলায় এনআরসি করার কোনও প্রয়োজন নেই। আসাম এনআরসিতেও বাদ পড়েছেন বহু বাঙালি এবং গোর্খা, এই বিষয়টা কখনই মেনে নেওয়া যায় না। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী তথা বিজেপি সভাপতি অমিত শাহকে এ কথাই তিনি বলেছেন।

Read the full story in English

Get the latest Bengali news and Westbengal news here. You can also read all the Westbengal news by following us on Twitter, Facebook and Telegram.

Web Title: Mamata banerjee nrc north bengal

Next Story
জিয়াগঞ্জ হত্যাকাণ্ড: বৃষ্টিভেজা রাতে ধৃত উৎপলকে নিয়ে ঘটনার পুননির্মাণ পুলিশের
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com