‘কাশফুল দিয়ে বালিশ-তোশক হয় কিনা দেখুন তো!’, প্রশাসনিক বৈঠকে পরামর্শ মমতার

CM Mamata: বীরেন্দ্রকৃষ্ণ ভদ্রের কণ্ঠে আশ্বিন শারদপ্রাতে শুনলেই চনমনে হয়ে ওঠে বাঙালির মন। কারণ দুয়ারে দুর্গাপুজো।

CM Mamata Banerjee North 24 Parganas Administrative review meeting
মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

CM Mamata: বীরেন্দ্রকৃষ্ণ ভদ্রের কণ্ঠে আশ্বিন শারদপ্রাতে শুনলেই চনমনে হয়ে ওঠে বাঙালির মন। কারণ দুয়ারে দুর্গাপুজো। আর বাংলাজুড়ে কাশফুলের আগমন স্বাগত জানায় উৎসবের মাস আশ্বিনকে।  সেই সাদা কাশবন ভেদ করে অপু-দুর্গার ট্রেন জন্য দৌড়নোর দৃশ্য এখনও বাঙালির মননে। এবার এই কাশফুলকে বাঙালির সঙ্গে ওতপ্রোত ভাবে জুড়তে বিশেষ ভাবনা মুখ্যমন্ত্রীর। ভাদ্রর মাঝামাঝি থেকে কার্তিকের শুরু পর্যন্ত কাশফুল দেখা যায়। তারপর উড়ে যায় এই ফুল। তাই তুলোর বদলে কাশফুলের বালিশ-তোশক বানানোর উদ্যোগ নিতে বিডিওদের নির্দেশ দেন মুখ্যমন্ত্রী।

এদিন হাওড়ার প্রশাসনিক বৈঠকে আধিকারিকদের উদ্দেশে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘কাশফুলের অপচয় বন্ধ করতে কোনও কেমিক্যাল ব্যবহার করে তা দিয়ে বালিশ-বালাপোশ তৈরি করা যায় কিনা দেখুন তো। তাহলে দারুণ হবে।‘  

এদিকে, তৃতীয়বার মুখ্যমন্ত্রী হয়ে রাজ্যকে শিল্প[বান্ধব হিসেবে গড়ে তুলতে মরিয়া মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ইতিমধ্যে দেউচা-পাচামি এবং অশোক নগরজুড়ে বিনিয়োগের কর্মযজ্ঞ শুরু হয়েছে। এই দুই জায়গায় বিপুল কর্মসংস্থানের ইঙ্গিত দিয়েছেন খোদ মুখ্যমন্ত্রী। নবান্ন সূত্রে এমনটাই কবর। এবার একদা শিল্প শহর হাওড়াকে ফের বিনিয়োগবান্ধব করতে বুধবার উদ্যোগী হলেন মুখ্যমন্ত্রী। আর এই উদ্যোগে কেউ বাধা হলে, তাঁকে রেয়াত করা চলবে না। বুধবার প্রশাসনিক বৈঠকে ঠারেঠরে বুঝিয়ে দিলেন মুখ্যমন্ত্রী। বুধবার হাওড়া জেলার প্রশাসনিক বৈঠক করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

সেই বৈঠকে বিনিয়োগের জন্য জমি জটের প্রসঙ্গ ওঠে। ভূমি সংস্কার দফতরের সচিবের উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘অনেকে ইচ্ছা করে দেরি করাচ্ছে। আগে ইউনাইটেড ক্লিয়ারেন্স সিস্টেম ছিল। সেটা এখন কার নির্দেশে বন্ধ আছে? কারা এত বড় নেতা হয়েছে দেখি! দুই বছর ধরে কাজে দেরি করলে শিল্প হবে কী করে?’ মুখ্যমন্ত্রীর এই প্রসঙ্গের ভূমি দফতরের সচিব আগামি দুই বছর ধরে চলা কোভিড পরিস্থিতির প্রসঙ্গ তুলে ধরেন। এই নিয়ে দফতরের অভ্যন্তরীণ বৈঠক হয়েছে বলেও মুখ্যমন্ত্রীকে আশ্বস্ত করেন ওই আমলা।

এদিন মুখ্যমন্ত্রীর তীব্র ভর্ৎসনার মুখে তাঁরই দলের বিধায়ক। ‘খবরদার, এটা কখনও করবে না।’ বৃহস্পতিবার হাওড়ায় প্রশাসনিক বৈঠকে গিয়ে তৃণমূল বিধায়ক গৌতম চৌধুরীকে এভাবেই ধমক মমতা বন্দ্যাপাধ্যায়ের। এলাকায় জল জমে থাকার প্রতিবাদ দেখাতে গিয়ে রাস্তায় বসে পড়েছিলেন উত্তর হাওড়ার এই বিধায়ক। বিভিন্ন সংবাদমাধ্যম ও সোশ্যাল মিডিয়ায় খোদ তৃণমূল বিধায়কের দল পরিচালিত পুরসভা কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধাচরণ রীতিমতো ভাইরাল হয়। সেই ঘটনার উল্লেখ করে এদিন এই বিধায়ককে কড়া বার্তা দেন মুখ্যমন্ত্রী।

পুজোর মরশুম মিটতেই জেলায়-জেলায় প্রশাসনিক বৈঠক শুরু করে দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আজ হাওড়া জেলায় প্রশাসিক বৈঠকে গিয়েছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মুখ্যমন্ত্রীকে সামনে পেয়ে নিজেদের এলাকার একাধিক সমস্যা-অভাবের কথা তাঁকে জানান বিধায়করা। সমস্যা সমাধান কীভাবে করা যাবে সেব্যাপারে প্রয়োজনীয় পরামর্শও তাঁদের দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Get the latest Bengali news and Westbengal news here. You can also read all the Westbengal news by following us on Twitter, Facebook and Telegram.

Web Title: Mamata banerjee shares unique idea of using kash flowers state

Next Story
প্রেসিডেন্সিতে ছাত্র আন্দোলন, ফের নতি স্বীকার কর্তৃপক্ষেরpreci
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com