scorecardresearch

বড় খবর

আবাস দুর্নীতি: বঙ্গে আসছে কেন্দ্রীয় দল, ‘বাজিমাত’- মনে করছে বিজেপি নেতারা!

এতেই তৃণমূল সরকার ও শাসক দলের দুর্নীতি মানুষের সামনে চোখে আঙুল দিয়ে তুলে ধরা যাবে বলে মনে করছেন গেরুয়া দল।

আবাস দুর্নীতি: বঙ্গে আসছে কেন্দ্রীয় দল, ‘বাজিমাত’- মনে করছে বিজেপি নেতারা!
অস্বস্তি বাড়ছে শাসক শিবিরের?

আবাস কেলেঙ্কারির আঁচে তপ্ত বাংলার রাজনীতি। বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই অভিযোগের তির শাসক দল তৃণমূলের পঞ্চায়েতের জনপ্রতিনিধিদের দিকে। বিজেপি নেতৃত্ব, জনপ্রতিনিধিদের বিরুদ্ধেও অভিযোগ প্রকাশ্যে এলেও দুর্নীতির জেরে বেজায় অস্বস্তিতে জোড়া-ফুল শিবির। নড়েচড়ে বসেছে নবান্ন। সরব বিজেপি। জেলায় জেলায় কেলেঙ্কারির প্রতিবাদে চলছে গেরুয়া বিক্ষোভ। আদালতের দ্বারস্থ হওয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন বঙ্গ বিজেপি সভাপতি। প্রবল হইচইয়ের মাঝেই আবাস তালিকার বিষয়টি সরজমিনে খতিয়ে দেখতে রাজ্যে আসছে কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দল। কেন্দ্রীয় গ্রামোন্নয়ন মন্ত্রকের তরফে বুধবারই পশ্চিমবঙ্গের পঞ্চায়েত ও গ্রামোন্নয়ন দফতরের প্রধান সচিবকে চিঠি দিয়ে এ কথা জানানো হয়েছে।

বাংলার গ্রামে গ্রামে আবাস দুর্নীতি নিয়ে সরব শুভেন্দু অধিকারী, সকান্ত মজুমদাররা। ইতিমধ্যেই কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করে নালিশও জানিয়েছেন তাঁরা। প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার টাকা আটকে দিয়েছে মোদী সরকার। যার প্রতিবাদে মুখর মুখ্যমন্ত্রী। এই অবস্থায়, বাংলায় কেন্দ্রীয় পাঠানোর মতো পদক্ষেপ আদতে মমতা সরকারের উপর চাপ বাড়ানোর কৌশল বলেই মনে করা হচ্ছে।

রাজ্যকে কেন্দ্রীয় গ্রামোন্নয়ন মন্ত্রকের আন্ডার সেক্রেটারি অনিলকুমার সিং-য়ের লেখা চিঠিতে উল্লেখ, কেন্দ্রের দু’টি দল আসবে বাংলায়। একটি পূর্ব মেদিনীপুরে এবং অপরটি মালদহের আবাস তালিকা খতিয়ে দেখবেন। দু’টি দলেই থাকবে তিনজন করে প্রতিনিধি। পূর্ব মেদিনীপুরে যাবেন, কেন্দ্রীয় গ্রামোন্নয়ন মন্ত্রকের ডিরেক্টর শৈলেশ কুমার, আন্ডজাল সেক্রেটরি অনিল কুমার সিং এবং সিনিরয়র স্ট্যাটিস্টিক্যাল অফিসার সুভাষ দ্বিবেদী। মালদহের অবস্থা দেখবেন, মন্ত্রকের ডেপুটি সেক্রেটারি শক্তিকান্ত সিং অ্যাসিস্ট্যান্ট কমিশনার চাহাত সিং এবং অ্যাসিস্ট্যান্ট সেকশন অফিসার গৌরব আহুজা।

চিঠিতে উল্লেখ রয়েছে, জানুয়ারির প্রথম সপ্তাহেই কেন্দ্রীয় দল আসবে। আবাস যোজনার আপডেট করা নথি ও লজিস্টিক সাপোর্ট যেন কেন্দ্রীয় প্রতিনিধিদের জন্য রাজ্যের তরফে ওই দুই জেলায় আয়োজন থাকে।

কেন্দ্রের এই পদক্ষেপে যারপরনাই উচ্ছ্বসিত বিজেপির রাজ্য নেতৃত্ব। এতেই তৃণমূল সরকার ও শাসক দলের দুর্নীতি মানুষের সামনে চোখে আঙুল দিয়ে তুলে ধরা যাবে বলে মনে করছেন তাঁরা। আর দিল্লিতে বিজেপির বঙ্গ নেতাদের কথার যে আমল রয়েছে তাও পঞ্চায়েত ভোটের আগে স্পষ্ট করে দেওয়া হবে। কেন্দ্রীয় দল আসার প্রেক্ষিতে এ দিন বিজেপি রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার টুইটে লিখেছেন, ‘পূর্ব মেদিনীপুর এবং মালদহে প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার অবস্থা খতিয়ে দেখার জন্য পরিশ্রমী অফিসারদের নিয়ে গড়া কেন্দ্রীয় দল নিযুক্ত করায় শ্রী গিরিরাজ সিংজিকে কৃতজ্ঞতা। এটাই বিডিও-পঞ্চায়ত প্রধানদের আঁতাঁতের শেষের শুরু।’

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Westbengal news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Modi govt sending central team for awas scam investigation at west bengal