scorecardresearch

বড় খবর

গেরুয়া শিবিরে ক্ষোভ জমতেই স্থায়ী রাজ্যপাল পেল বাংলা

বর্তমানে তিনি মেঘালয় সরকারের উপদেষ্টা হিসাবে কাজ করছেন।

গেরুয়া শিবিরে ক্ষোভ জমতেই স্থায়ী রাজ্যপাল পেল বাংলা
ডঃ সিভি আনন্দ বোস

জগদীপ ধনকড়েক ইস্তফার চার মাস পর স্থায়ী রাজ্যপাল পেল পশ্চিমবঙ্গ। বাংলার স্থায়ী রাজ্যপাল হচ্ছেন ডঃ সিভি আনন্দ বোস। অস্থায়ী রাজ্যপাল লা গণেশনকে নিয়ে এ রাজ্যের বিজেপি নেতৃত্বের
মধ্যে অসন্তোষ দানা বাঁধছিল। শুভেন্দু অধিকারী সহ বিজেপির একাধিক নেতৃত্বের গত কয়েক দিনের কথাতেই তা স্পষ্ট হচ্ছিল। এ দিকে লা গণেশনের সঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়েরও সুসম্পর্ক ছিল। তাঁর দাদার জন্মদিনে চেন্নাইতেও গিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। এইসবের মধ্যেই স্থায়ী রাজ্যপালের নাম ঘোষণা করা হল রাষ্ট্রপতি ভবনের তরফে।

ডঃ সি ভি আনন্দ বোস প্রাক্তন আইএএস অফিসার। প্রশাসনে নানা সময় গুরুত্বপূর্ণ পদে দায়িত্ব সামলেছেন। বর্তমানে তিনি মেঘালয় সরকারের উপদেষ্টা হিসাবে কাজ করছেন। তাঁকেই এবার বাংলার স্থায়ী রাজ্যপাল হিসাবে নিযুক্ত করা হল।

আরও পড়ুন- রাজনৈতিকভাবে সক্রিয় বাংলায় সক্রিয় রাজ্যপাল হয়ে কাজ করব: সি ভি আনন্দ বোস

রাষ্ট্রপতি ভবনের তরফে বিবৃতিতে জানানো হয়েছে যে, ‘সি ভি আনন্দ বোসকে পশ্চিমবঙ্গের স্থায়ী রাজ্যপাল হিসাবে নিয়োগ করেছেন রাষ্ট্রপতি। তাঁর দায়িত্ব গ্রহণের দিন থেকেই নির্দেশ কার্যকর হবে।’

এই ঘোষণার পরই উচ্ছ্বসিত সি ভি আনন্দ বোস। তিনি বলেছেন, ‘আমি খুবই আনন্দিত, সম্মানিত। প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ। কলকাতর সঙ্গে আমার সম্পর্ক অনেক দিনের। কর্মজীবনের শুরুতে আমি এসবিআইয়ের প্রবেশনারী অফিসার হিসাবে কলকাতায় কাটিয়েছি। বাংলা অল্প অল্প জানি। সংবিধান রক্ষায় ও বাংলার কল্যাণে, সক্রিয় রাজ্যপাল হিসাবে আমি কাজ করব। প্রতিদিন বাংলা শব্দ শেখার চেষ্টা করব।’ সাক্ষাৎকারের শেষ পর্যায়ে কবিগুরুর লেখা ‘চিত্ত যেথা ভয় শূন্য উচ্চ যেথা শির’ পংক্তিটিও বলেন।

আরও পড়ুন- অস্বস্তি বাড়ছে শুভেন্দুর! FIR-এর পর শোকজ নোটিসের সিদ্ধান্ত কমিশনের

১৯৫১ সালে ২ জানুয়ারি কেরলের কোয়াট্টামে সি ভি আনন্দ বোসের জন্ম। তাঁর বাবার নাম পি কে বাসুদেবন পিল্লাই। মায়ের নাম পদ্মাবতী আম্মা। বাংলার স্থায়ী রাজ্যপাল সি ভি আনন্দ বোস জওহরলাল নেহরু ফেলোশিপ পেয়েছিলেন। লালবাহাদুর শাস্ত্রী ন্যাশনাল আকাডেমি অফ অ্যাডমিনিস্ট্রেশনের প্রথম ফেলো ছিলেন। বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশুনার সময়ে পেয়েছিলেন ১৫টি স্বর্ণপদক।

সি ভি আনন্দ বোস ১৯৭৭ ব্যাচের আইএএস অফিসার। নানা সময়ে তিনি কেন্দ্রীয় সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রকের সচিব পদে কাজ করেছেন। রাষ্ট্রপুঞ্জের হ্যাভিটাট গর্ভানিং কাউন্সিলের সদস্যও ছিলেন। ছিলের সার্নের প্রতিনিধি। বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য পদের দায়িত্বও পালন করতেও দেখা গিয়েছে তাঁকে।

রাজ্যের নতুন রাজ্যপাল নিয়োগ নিয়ে তৃণমূল সাংসদ সৌগত রায় বলেন, ‘আমি বহুদিন দিল্লিতে রয়েছি। তবে আইএস অফিসার হিসাবে সি ভি আনন্দ বোসের নাম শুনিনি। রাজ্যপাল নিয়োগের সময় মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আলোচনা করেছিলেন বলেও জানি না।’

তবে নয়া রাজ্যপালকে টুইটবার্তায় স্বগত জানিয়েছেন বিরোদী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Westbengal news download Indian Express Bengali App.

Web Title: New governor of west bengal is c v anand bose updates