বড় খবর

কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের নামে কাটমানির পোস্টার ‘সাঁটায়’ পুলিশের হাতে গ্রেফতার পুলিশ

শ্রীরামপুর থানার পুলিশ গ্রেফতার করলো হুগলী গ্রামীণ জেলার ডি আই বি অফিসার সমীর সরকার কে। সব তথ্যর সত্যতা যাচাই করে পুলিশ শনিবার রাত থেকেই অভিযুক্ত পুলিশ অফিসারকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য।

অভিযুক্ত ওসি সমীর সরকার। ছবি- উত্তম দত্ত

‘পুলিশ’ লেখা গাড়িতে চড়ে শ্রীরামপুরের সাংসদ কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে কুরুচিপূর্ণ পোস্টার সাঁটানোর অভিযোগে মঙ্গলবার শ্রীরামপুর থানার পুলিশ গ্রেফতার করল হুগলী গ্রামীণ জেলার ডি আই বি অফিসার সমীর সরকারকে। শনিবার সকালে শ্রীরামপুরের বিভিন্ন এলাকায় তৃণমূল সাংসদ তথা আইনজীবী কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের নামে ‘কাটমানির’ পোস্টার চোখে পড়ে। এইসব পোস্টারগুলিকে কেন্দ্র করেই রীতিমতো চাঞ্চল্য ছড়ায় গোটা শ্রীরামপুর এলাকায়। এরপর পুলিশি তদন্তের মাঝেই এদিন উঠে আসে হুগলি গ্রামীণ একারা ওসি (ওয়াচ) পদে কর্মরত সমীর সরকারের নাম।

ঠিক কী হয়েছিল?

৩০ জুলাই সাংসদ কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের নামে কাটমানির টাকা নেওয়ার অভিযোগে পোস্টার পড়ে শ্রীরামপুরে। লাল কালি দিয়ে হাতে লেখা এইসব পোস্টারে অশ্লীল ভাষায় তৃণমূলের এই আইনজীবী সাংসদকে আক্রমণও করা হয়। এরপরই সাংসদের সম্মানহানির অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্তে নেমে পুলিশের হাতে উঠে আসে চাঞ্চল্যকর তথ্য। জানা যায়, পুলিশের স্টিকার সাঁটানো সাদা বোলেরো গাড়ি করে কাটমানি সংক্রান্ত ওইসব পোস্টার লাগানো হয়েছে। এরপর শ্রীরামপুরের বিভিন্ন এলাকার সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখে পুলিশ। এরপরই পুলিশ খোঁজ শুরু করে ওই বোলেরো গাড়ির। পয়লা অগাস্ট গভীর রাতে চুঁচুড়ার খাদিনামোড় এলাকা থেকে প্রথমে আটক করা হয় গাড়িটিকে। তবে পুলিশি জেরার মুখে গাড়ির চালক অমিয় খামারু এসব কথা অস্বীকার করলেও পরে জেরা্র মুখে সে ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে নেয়। এই জেরার পরেই উঠে আসে সমীর সরকারের নাম। এরপরই মঙ্গলবার সকালে শ্রীরামপুর থানার পুলিশ গ্রেফতার করে হুগলী গ্রামীণ জেলার ডি আই বি অফিসার সমীর সরকারকে।

আরও পড়ুন- গঙ্গার ‘দূষিত জলে’ তৈরি হচ্ছে খাবার, তালা ঝুলল হাওড়ার একাধিক হোটেলে

মঙ্গলবার সমীর সরকারকে গ্রেফতার করা হলেও শনিবার রাত থেকেই তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করে পুলিশ। এরপর দু’দিনব্যাপী জিজ্ঞাসাবাদ করে তদন্তকারীরা বুঝতে পারেন সমীরের প্রত্যক্ষ মদতেই পোস্টার সাঁটানো হয় শ্রীরামপুরের বিভিন্ন এলাকায়। জানা যাচ্ছে, উচ্চপদস্থ অফিসারদের থেকে অনুমতি পেতেই শেষ পর্যন্ত অভিযুক্ত পুলিশ অফিসারকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাঁর বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৪১৯/৫০৫(১)(বি)এবং ৫০৬ ধারায় মামলা রুজু করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার দুপুরেই তাঁকে শ্রীরামপুরের এসিজেএম অমর কুমার মাহাতোর এজলাসে তোলা হয় এবং দুদিনের বিচারবিভাগীয় হেফাজত দেওয়া হয়।

আরও পড়ুন- তিন মাসেই ভগ্নপ্রায় তিস্তার বাঁধ, আতঙ্কে উত্তরবঙ্গের লক্ষাধিক মানুষ

সূত্রের খবর, তদন্তে দেখা যায়, গাড়িটিতে চালক অমিয় খামারু ছাড়াও ছিলেন রিষড়ার মহম্মদ মুস্তাক। সিসিটিভি ফুটেজ অনুযায়ী, ওই গাড়িটিতে সমীর সরকারকে উঠতেও দেখা যায়। প্রসঙ্গত, কিছুদিন আগেও তিনি জাঙ্গিপাড়া থানার ওসি ছিলেন। তবে সমীর সরকারের দাবি, তাঁকে ফাসানো হয়েছে। ধৃত অফিসার বলেন, “কল্যান ব্যানার্জীর জন্য চার রাত মাঠের মধ্যে শুয়ে কষ্ট করে নির্বাচন করেছি। ওঁকেই জিজ্ঞাসা করুন কেন করল, উনিই বলতে পারবেন”।

Get the latest Bengali news and Westbengal news here. You can also read all the Westbengal news by following us on Twitter, Facebook and Telegram.

Web Title: Police arrested another police for labelling cut money poster against kalyan banerjee

Next Story
West Bengal Weather Today: আজ-কাল দক্ষিণবঙ্গে ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস, সতর্ক করল আবহাওয়া দফতরrain, বৃষ্টি
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com