scorecardresearch

বড় খবর

নদীর জল বেড়ে ভয়ঙ্কর বিপত্তি, কোনওমতে প্রাণে রক্ষা ৮ কিশোর, কিশোরীর

এই উদ্ধার কার্য চালাতে গিয়ে আহত হন সেবক ফাঁড়ির সিভিক ভলেন্টিয়ার রোশন রাই, প্রভাশ রাই এবং স্থানীয় কিছু যুবক।

নদীর জল বেড়ে ভয়ঙ্কর বিপত্তি, কোনওমতে প্রাণে রক্ষা ৮ কিশোর, কিশোরীর
প্রশাসনের তৎপরতায় উদ্ধার হওয়া ৮ কিশোর, কিশোরী। ছবি- সন্দীপ

সাক্ষাৎ মৃত্যুর হাত থেকে বেঁচে ফিরল শিলিগুড়ির ৮ কিশোর, কিশোরী। নিজেদের জীবনের তোয়াক্কা না করে মৃত্যুর মুখ থেকে তাঁদের উদ্ধার করে নিরাপদে ফিরিয়ে নিয়ে এলেন সেবক ফাঁড়ির পুলিশ। এই উদ্ধার কার্য চালাতে গিয়ে আহত হন দুই পুলিশকর্মী। উদ্ধার হওয়া ৫ কিশোর ও ৩ কিশোরীর বাড়ি শিলিগুড়ির মিলনপল্লী এলাকার বলে জানা গেছে।

সেবক পেড়িয়ে কালিখোলায় কমলা ফলস দেখতে গিয়েছিল শিলিগুড়ির মিলনপল্লী এলাকার ৮ কিশোর, কিশোরী। বিপজ্জনক পাহাড়ি পথে তাঁরা হেঁটে সেখানে পৌছলেও কালিখোলা নদীর জল আচমকা বেড়ে যাওয়ায় তাঁরা আটকে যায় নদীর ওপারে। খবর পেয়ে তাঁদের উদ্ধার করতে ঘটনাস্থলে পৌঁছায় সেবক ফাঁড়ির পুলিশ, রাজ্য বিপর্যয় মোকাবিলা দল এবং দমকল কর্মীরা। কিন্তু কালিখোলা নদীর জল ক্রমশ বাড়তে থাকায় কিশোর, কিশোরীদের উদ্ধার করতে সমর্থ হননি তাঁরা।

পরবর্তীতে সেবক ফাঁড়ির পুলিশের একটি দল স্থানীয়দের সহযোগিতায় কালিখোলা নদী এবং গভীর জঙ্গলের বিপজ্জনক পাহাড়ি পথ পেড়িয়ে প্রায় ৩ ঘন্টা হাঁটার পর মূল জায়গায় পৌঁছান উদ্ধারকারীরা। এবং তাঁদের উদ্ধার করতে সমর্থ হন। এদিন ভোর সোয়া চারটা নাগাদ কিশোর কিশোরীদের উদ্ধার করে নিরাপদে ফিরিয়ে আনা হয় সেবক পুলিশ ফাঁড়িতে।

এই উদ্ধার কার্য চালাতে গিয়ে আহত হন সেবক ফাঁড়ির সিভিক ভলেন্টিয়ার রোশন রাই, প্রভাশ রাই এবং স্থানীয় কিছু যুবক। কিশোর কিশোরীরা জানিয়েছেন, কালিঝোড়া থেকে তাঁরা পায়ে হেঁটেই বিপজ্জনক পাহাড়ি পথ ধরে কালিখোলা নদী পেড়িয়ে কমলা ফলসে গিয়েছিলেন। কিন্তু ফেরার পথে কালিখোলা নদীর জল অত্যাধিক বেড়ে যাওয়ায় তাঁরা আটকে পড়েন নদীর ওপারে। কোনক্রমে সেখানে প্রান হাতে নিয়ে পাথরের খাঁজে আটকে ছিলেন দীর্ঘক্ষণ। সেবক ফাঁড়ির পুলিশ ও স্থানীয়রা সময়মতো উদ্ধার করতে সক্ষম না হলে তাঁদের প্রানে বেঁচে ফেরা সম্ভব হত না।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Westbengal news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Police rescued 8 youth trapped in the inaccessible mountains due to rising kalikhola river water