scorecardresearch

বড় খবর

কলকাতা থেকে সকালে বেরিয়ে সন্ধেয় ফিরুন, মন জুড়োবে অসাধারণ এই নদীপাড়

আর দেরি নয়! ব্যাগ বাঁধুন আর বেরিয়ে পড়ুন।

কলকাতা থেকে সকালে বেরিয়ে সন্ধেয় ফিরুন, মন জুড়োবে অসাধারণ এই নদীপাড়
নদীপাড়ের অসাধারণ সৌন্দর্য মনকে রঙিন করে তুলবে।

পুরোদমে চলছে বেড়ানোর মরশুম। ভ্রমণপ্রিয় বাঙালির তো পায়ের তলায় সর্ষে! আট থেকে আশি, বেড়াতে ভালোবাসেন না এমন বাঙালির হদিশ মেলাই দুষ্কর। অনেকেই লম্বা ছুটি নিয়ে দূরে বেড়াতে যেতে ভালোবাসেন। তবে অনেকে আবার কর্মস্থলে ছুটি ম্যানেজ করতে না পারার জন্য কাছেপিঠে বেড়ানোর জায়গা খোঁজেন। তাঁদের জন্যই এবার ঘোরার দারুণ এক ঠিকানার হদিশ রইল।

ভোর-ভোর বেড়িয়ে পড়ুন আর চাইলে সন্ধের মধ্যেই ফিরুন বাড়ি। গোটা একটা দিন কাটিয়ে আসুন হুগলি নদীর কোলে। কলকাতা থেকে খুব কাছেই রায়চকে পাবেন বেড়ানোর ষোলোআনা মজা। শহর কলকাতা থেকে মেরেকেটে ৫৫ কিলোমিটার দূরে রয়েছে ডায়মন্ড হারবারের ছোট্ট একটি জনপদ রায়চক। হুগলি নদীর পাড়ের এতল্লাটের মনোরম আবহাওয়া বরাবরই পর্যটকদের নজর কেড়েছে।

রায়চকে দুর্গের আদলে ঝাঁ চকচকে পাঁচতারা একটি হোটেল তৈরি হয়েছে। দুই দশকেরও বেশি সময়ের আগের এই নির্মাণ গোটা এলাকাকে বাড়তি পরিচিতি এনে দিয়েছে। গ্রীষ্মকাল বাদ দিলে বছরভর রায়চকে পর্যটকদের আনাগোনা লেগেই থাকে। কলকাতা থেকে যেতে অল্প সময় লাগে বলেই শর্ট-ট্যুরে রায়চক বরাবরই অনেকের কাছে ফার্স্ট চয়েস। ইচ্ছে হলে সকাল-সকাল বেরিয়ে গোটা দিন নদীর পাড়ে কাটিয়ে বিকেল নাগাদই ফিরে আসতে পারেন। সন্ধের মধ্যেই আপনি পৌঁছে যাবেন কলকাতায়। আবার চাইলে দু’একদিন থাকতেও পারেন রায়চকে।

রায়চকে কী দেখবেন?

হুগলি নদীর পাড়ের এই এলাকা বরাবরই খুব আকর্ষণীয়। অ্যাডভেঞ্চার করতে যাঁদের ভালো লাগে তাঁরা এখানকার জেটি থেকে ভুটভুটি বা লঞ্চে নদীর অপর পাড়ের জেলা পূর্ব মেদিনীপুরে একবার ঢুঁ মেরে আসতে পারেন। এমনকী জলপথ ধরে এখান থেকেই চলে যাওয়া যায় হাওড়ার গাদিয়াড়ায়। ইচ্ছা হলে নদীবক্ষে ডিঙি নৌকা নিয়েও ঘুরতে পারেন। সময় পেলে পার্শ্ববর্তী নূরপূরেও ঘুরে আসতে পারেন। নদীপাড়ের ওই এলাকাও পর্যটকদের মন ভরাবে।

রায়চকে থাকার জায়গার কী বন্দোবস্ত আছে?

চাইলে নদীর তীরের দ্য ফোর্টে থাকতেই পারেন। তবে এই হোটেলটি খুবই ব্যয়বহুল। এছাড়াও রায়চকে রয়েছে হোটেল সি বার্ড ইনটেল, গঙ্গাকুটিরের মতো হোটেল। ছোট আরও কয়েকটি হোটেলও আছে। তবে বাজেট পারমিট না করলে ডায়মন্ড হারবারে গিয়ে থাকতে পারেন। ডায়মন্ড হারবার শহরে বেশ কয়েকটি থাকার হোটেল রয়েছে। সব হোটেলেই থাকার খরচ মোটামুটি নাগালের মধ্যেই। ডায়মন্ড হারবার থেকে রায়চকের দূরত্ব মেরেকেটে মিনিট চল্লিশ।

কলকাতা থেকে কীভাবে যাবেন রায়চকে?

ট্রেনে গেলে শিয়ালদহ দক্ষিণ শাখার ডায়মন্ড হারবার লোকাল ধরুন। ডায়মন্ড হারবার স্টেশনে নামলেই রায়চক যাওয়ার অটো বা অন্য ছোট গাড়ি পাবেন। ডায়মন্ড হারবার স্টেশন থেকে রায়চকের দূরত্ব মেরেকেটে মিনিট চল্লিশ। তবে কলকাতার দিক থেকে গাড়িতে গেলে ডায়মন্ড হারবার রোড ধরুন। এরপর আমতলা পেরিয়ে গিয়ে বাঁদিক বরাবর সোজা চলুন। বাসে যেতে চাইলে ধর্মতলায় পৌঁছে যান। ধর্মতলা থেকে রায়চক যাওয়ার বাস পেয়ে যাবেন।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Westbengal news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Raichak the famous short trip destination near kolkata