রেড রোডে কার্নিভাল, পুলিশের নির্দেশে আজ SSC-র আন্দোলনকারীদের ধরনায় বিরতি: Red Road Puja Carnival: Protesting SSC candidates told to remove by Kolkata Police | Indian Express Bangla

রেড রোডে কার্নিভাল, পুলিশের নির্দেশে আজ SSC-র আন্দোলনকারীদের ধরনায় বিরতি

মেয়ো রোডে চাকরিপ্রার্থীদের আন্দোলনে না বসার জন্য নির্দেশ দেয় ময়দান থানার পুলিশ।

রেড রোডে কার্নিভাল, পুলিশের নির্দেশে আজ SSC-র আন্দোলনকারীদের ধরনায় বিরতি
ধরনা আন্দোলনে এসএসসির নবম-দশমের চাকরি প্রার্থীরা।

আজ রেড রোডে পুজো কার্নিভাল। বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রায় অংশ নিচ্ছে কলকাতার একশোটি নামজাদা পুজো। পুজোশেষের উৎসবে মাতবে তিলোত্তমা। কিন্তু প্রদীপের তলায় অন্ধকারের মতো কার্নিভাল থেকে অনতিদূরেই দীর্ঘ ৫৭২ দিন ধরে নিয়োগের দাবিতে ধরনায় বসে নবম-দশম শ্রেণির চাকরিপ্রার্থীরা। তবে উৎসবের দিনগুলোতে অবস্থানে বসে থাকলেও কার্নিভালের কারণে শনিবার ধরনায় বসছেন না আন্দোলনকারীরা।

জানা গিয়েছে, পুলিশের নির্দেশ মেনে শনিবার মেয়ো রোড ধরনাস্থলে তাঁরা অবস্থান বিক্ষোভে বসছেন না। আজ দুর্গাপুজো কার্নিভাল উপলক্ষ্যে কলকাতার একাধিক রাস্তায় যান চলাচল নিয়ন্ত্রিত। শোভাযাত্রা যাওয়ার কথা রেড রোড দিয়ে। কড়া নিরাপত্তার চাদরে গোটা এলাকা। তাই মেয়ো রোডে চাকরিপ্রার্থীদের আন্দোলনে না বসার জন্য আবেদন জানায় ময়দান থানার পুলিশ।

এই বিষয়ে আন্দোলনকারী চাকরিপ্রার্থী শহিদুল্লাহ জানিয়েছেন, “পুলিশের তরফ থেকে মেল মারফত নির্দেশ আসে অবস্থানে না বসার জন্য। পরিস্থিতি বিবেচনা করে আমরা শনিবার ধরনায় বসছি না। তবে রবিবার, লক্ষ্মীপুজোর দিন থেকে আবার প্রতিদিন আমরা অবস্থানে বসব। যতদিন না নিয়োগপত্র হাতে না পাচ্ছি, আমরা অবস্থান তুলব না।”

আরও পড়ুনসরকারি কর্মীদের ছুটিতে কাটছাঁট নবান্নের, শনিবার থেকেই ‘ওয়ার্ক ফ্রম হোম’

পুলিশ জানিয়েছে, মেয়ো রোড স্পর্শকাতর এলাকা। শনিবার পুজো কার্নিভালের জেরে এই রাস্তায় ব্যাপক ভিড় হবে। ১০০টির মতো পুজো কমিটি যোগ দেবে কার্নিভালে। এলাকার নিরাপত্তার কথা ভেবেই আন্দোলনকারীদের একদিনের জন্য ধরনা তুলে দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Westbengal news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Red road puja carnival protesting ssc candidates told to remove by kolkata police

Next Story
এখনও দশমীর আতঙ্কে মালবাজার, বিভীষিকার কাহিনী জানুন উদ্ধারকারীদের মুখেই