বড় খবর


সুন্দরবনে মৎস্যজীবীদের নৌকায় এবার এলপিজি সিলিন্ডার

”এই উদ্য়োগের ফলে মানুষ ও জন্তুর মধ্য়ে সংঘাত এড়ানো যাবে”।

সুন্দরবন, মৎস্য়জীবী
ফাইল ছবি।

সুন্দরবনে মৎস্যজীবীদের হাতে এবার তুলে দেওয়া হচ্ছে এলপিজি সিলিন্ডার। মাছ ধরতে গিয়ে রান্নার প্রয়োজনে জঙ্গলে কাঠ কুড়োতে যাতে যেতে না হয় মৎস্যজীবীদের, সে কারণেই এবার এহেন উদ্যোগ নেওয়া হল। যেসব মৎস্যজীবীর বোট লাইসেন্স সার্টিফিকেট রয়েছে, তাঁরাই সিলিন্ডার পাবেন। এরফলে মানুষ-জন্তু দ্বন্দ্বও এড়ানো যাবে বলে মত কর্তৃপক্ষের।

এ প্রসঙ্গে দ্য় ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসকে সুন্দরবন ব্য়াঘ্র সংরক্ষণের ফিল্ড ডিরেক্টর তপন দাস জানিয়েছেন, ”এই উদ্য়োগ নেওয়া হয়েছে. আসলে যাতে জঙ্গলে ঢুকতে না পারেন মৎস্য়জীবীরা। যখন তাঁরা মাছ ধরতে আসেন, কিছুদিন থাকেন। নৌকা বেঁধে রাখেন, রান্না করেন। রান্নার জন্য় জঙ্গলে কাঠ খুঁজতে যান। এই উদ্য়োগের ফলে মানুষ ও জন্তুর মধ্য়ে সংঘাত এড়ানো যাবে”।

আরও পড়ুন: করোনায় বাংলায় আশার আলো, একদিনে সুস্থ ৩২০৮

ওই এলাকায় ৬৫০ জন মৎস্য়জীবীর লাইসেন্স রয়েছে। কর্তৃপক্ষের তরফে জানানো হয়েছে, ইতিমধ্য়েই ২৫ জন মৎস্য়জীবীকে এলপিজি সিসিন্ডার দেওয়া হয়েছে। আরও ৭৫ জনকে শীঘ্রই তা দেওয়া হবে।

সোসাইটি ফর হেরিটেজ অ্য়ান্ড ইকোলজিক্য়াল রিসার্চের (শের) জয়দীপ কুণ্ডু বলেছেন, ”প্রথম ধাপে ১০০ জন মৎস্য়জীবীকে সিলিন্ডার দেওয়া হবে। আগামী ২ বছরের মধ্য়ে সকল মৎস্য়জীবীকে সিলিন্ডার দেওয়া হবে”।

Read the full story in English

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Web Title: Reducing man animal conflict sundarbans fishermen to get movable lpg cylinders

Next Story
করোনায় বাংলায় আশার আলো, একদিনে সুস্থ ৩২০৮coronavirus, করোনাভাইরাস
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com