scorecardresearch

দীঘায় বিরল মাছের সমাহার, চেখে দেখতে পারেন

এই উৎসব চলবে আগামী ২১ জানুয়ারি পর্যন্ত। অতল থেকে বোতলবন্দি হয়েছে শতাধিক সামুদ্রিক মাছ। যার অধিকাংশই বিরল।সচরাচর দেখাই যায় না এসব মাছ।

দীঘায় বিরল মাছের সমাহার, চেখে দেখতে পারেন

চেখে-দেখে সবেতেই তৃপ্তি। বাঙালি আর মাছের সম্পর্ক চিরন্তন। মাছের কারণেই ‘মাছে-ভাতে বাঙালি’ নামকরণ। আর সেই নামকরণকে আরও সমৃদ্ধ করতেই নাকি দেখার পাশাপাশি মাছের স্বাদ চেখে দেখার আয়োজন। সি-ফুড ফেস্টিভ্যাল। বুধবার থেকে দিঘা মোহনার গঙ্গোৎসবে শুরু হয়েছে এই মাছের উৎসব। সামুদ্রিক মাছের বিপুল সম্ভার নিয়ে শুরু হওয়া এই উৎসব চলবে আগামী ২১ জানুয়ারি পর্যন্ত। অতল থেকে বোতলবন্দি হয়েছে শতাধিক সামুদ্রিক মাছ। যার অধিকাংশই বিরল। সচরাচর দেখাই যায় না এসব মাছ। আর সে কারণেই বিরল এসব মাছকে বোতলবন্দি করে তাদের সঙ্গে মানুষের পরিচিতি বাড়ানোর লক্ষ্যে আয়োজন এমন উৎসবের।

একই সঙ্গে সুযোগ মিলছে সামুদ্রিক মাছের ৩৫ টি পদ চেখে দেখার দারুণ সুযোগ। স্বাভাবিকভাবে বাঙালি যে এমন সুযোগ হাতছাড়া করবেন না তা নিশ্চিত। দিঘা মোহনার এই সি -ফুড ফেস্টিভ্যালে মাছ দেখার সুযোগ মিলছে সম্পূর্ণ বিনামূল্যে। তবে টাটকা ইলিশ, তোপশে, ভোলা, রুলি, তাপড়া, ফিতা, কাগজা, পমফ্রেট প্রভৃতির হাতেগরম স্বাদ নিতে খরচ করতে হচ্ছে সামান্য কিছু অর্থ।

দেখে, চেখে, আনন্দ

আয়োজক দিঘা-ফিশারমেন অ্যান্ড ফিশ ট্রেডার্স অ্যাসোসিয়েশনের সম্পাদক শ্যামসুন্দর দাস বলেন, “সামুদ্রিক মাছের সঙ্গে মানুষের নিবিড় পরিচয় ঘটাতে সি-ফুড ফেস্টিভ্যালের আয়োজন করা হয়েছে। সেই সঙ্গে টাটকা মাছের স্বাদ গ্রহণের ব্যবস্থাও করা হয়েছে। সাধারণ মানুষের সাধ্যের মধ্যেই রাখা হয়েছে দাম।”

রাজ্যের প্রাক্তন মৎস্যমন্ত্রী কিরণময় নন্দ এদিন সূচনা করেন সি-ফুড ফেস্টিভ্যালের। মাছের এমন আয়োজন দেখতে পেয়ে বেশ খুশি বেড়াতে আসা পর্যটক, স্থানীয় মানুষ। অদেখা চরকট, খোরট, সুরুশট, ব্যান্ডেড, গ্রোপার, স্ন্যাপ্যার ফিশ, ভূত মাছ এ সব দেখার পাশাপাশি সামান্য খরচ করে টাটকা মাছের স্বাদ গ্রহণ করেও যথেষ্ট তৃপ্ত তাঁরা।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Westbengal news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Seafood festival digha west bengal rare seafood