scorecardresearch

বড় খবর

Belgharia Shootout-কাণ্ডে ধৃতদের আদালতে পেশ, আজ থেকে রাত পাহারায় মদন মিত্র

Belgharia Shootout: ‘মদন মিত্রের ঘনিষ্ঠ দুই বিবাদমান গোষ্ঠী এই কাণ্ড ঘটিয়েছে। বিজেপি এই সংস্কৃতিকে বিশ্বাসী নয়।‘

Belgharia Shootout-কাণ্ডে ধৃতদের আদালতে পেশ, আজ থেকে রাত পাহারায় মদন মিত্র
একটি সিসিটিভি ফুটেজ পুলিশের হাতে এসেছে।

বেলঘরিয়া শ্যুটআউট-কাণ্ডে ধৃত ৬ জনকে রবিবার ব্যারাকপুর আদালতে তোলা হয়েছে। এই ঘটনায় একটি সিসিটিভি ফুটেজ বেলঘরিয়া থানার হাতে এসেছে। সেই ফুটেজ খতিয়ে দেখে ঘটনার তদন্তে আর কারা জড়িত খতিয়ে দেখছে পুলিশ। সেই ফুটেজে দেখা গিয়েছে, রাত সাড়ে ১১টা নাগাদ বাইকে করে কয়েকজন দ্রুত গতিতে রথতলার দিকে চলে যাচ্ছে। তাঁদের পাশ দিয়ে হেঁটে যাচ্ছে দুই যুবক।

জানা গিয়েছে, প্রমোটিং বিবাদের জেরেই এই গুলি চালনার ঘটনা। শনিবার রাতের দিকে তৃণমূলের ডিপি নগর অফিসে আচমকাই ঢুকে পড়ে মাস্ক পরা কয়েকজন সশস্ত্র দুষ্কৃতী। সেই সময় ওই অফিসে প্রায় জনা দশেক পার্টিকর্মী উপস্থিত ছিলেন। তাঁদের সামনেই মানস বর্ধন-সহ ওপর এক তৃণমূল কর্মীকে লক্ষ্য করে গালিগালাজ করতে থাকে তারা। টানতে টানতে বাইরে বের করা হয় দুই জনকে। মাথায় বন্দুকের বাট দিয়ে আঘাত করা হয়। এরপরেই ঘটনার আকস্মিকতায় এলাকায় জমায়েত বাড়লে গুলি ছুঁড়তে ছুঁড়তে এলাকা থেকে চম্পট দেয় অভিযুক্তরা।আহত দুই তৃণমূলকর্মীকে স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।  

পুলিশ সূত্রে খবর, ডিপি নগর এবং রথতলার সংযোগকারী নীলগঞ্জ রোডে দফায় দফায় বোমাবাজি করেছে অভিযুক্তরা। ঘটনায় আতঙ্ক ছড়ালে হাজির হন কামারহাটির তৃণমূল বিধায়ক মদন মিত্র। তিনি অবিলম্বে পুলিশকে ব্যবস্থা নেওয়ার আর্জি জানিয়ে এই ঘটনায় বিজেপি জড়িত বলে অভিযোগ করেন।

প্রায় ওই বিধানসভা কেন্দ্রের বিভার মোড় এলাকায় দুষ্কৃতীরা এসে ফ্ল্যাট খালি করতে বলে হুমকি দেয়। এমন অভিযোগ করেছেন তিনি। বিজেপি আশ্রিত দুষ্কৃতীরা এভাবেই এলাকায় সন্ত্রাস ছড়াতে চাইছে বলেও সরব হয়েছেন তিনি। এমনকি, কামারহাটিকে ভাটপাড়া হতে দেব না। এই সুরেই গর্জে ওঠেন তৃণমূল বিধায়ক।

তিনি বলেন, ‘রবিবার রাত থেকে পাহারা বসবে। থানা ঘেরাও, বিক্ষোভ মিছিল কিছুই হবে না। প্রয়োজনে আমি রথতলা মোড়ে খাটিয়া পেতে বসবো। দেখি কে কতবড় গুণ্ডা। মারতে হলে আমাকে আগে মারতে হবে।‘ তাঁর দাবি, ‘বিজেপি বুঝতে পেরেছে, ওদের দিন শেষ। উত্তর ২৪ পরগনা থেকে মুছে গিয়েছে, ব্যারাকপুর, দমদমে নিশ্চিহ্ন। তাই আমাদের দলে দালাল তৈরি করছে। পয়সা খাইয়ে, নেশা করিয়ে দু’পয়সার ক্রিমিনালদের নামাচ্ছে। আজ থেকে আমরা রাতে পাহারা দেব। ডান্ডার দরকার নেই, দলের ঝান্ডা নিয়েই পাহারা দেব। দেখি কে কত বড় মস্তান।’

যদিও মদন মিত্রের এই অভিযোগ খারিজ করে দিয়েছেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। তিনি বলেন, ‘মদন মিত্রের ঘনিষ্ঠ দুই বিবাদমান গোষ্ঠী এই কাণ্ড ঘটিয়েছে। বিজেপি এই সংস্কৃতিকে বিশ্বাসী নয়।‘ অপরদিকে, ঘটনার পর ৬ সন্দেহভাজন-সহ একটি মোটরবাইক আটক করেছে পুলিশ। ঘটনার পর ১২ ঘণ্টা কেটে গেলেও এখনও এলাকা থমথমে। আতঙ্কে রবিবার সকালেও সেভাবে বাইরে বেরোতে দেখা যায়নি স্থানীয়দের।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Westbengal news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Six suspected were arrested in connection to tmc party office attack in kamarhati state