মাতৃ দিবসে অন্য গল্প, জোর করে জমি-বাড়ি কেড়ে প্রতারণা ছেলের, শাস্তি চান মা

নিজের ছেলের বিরুদ্ধে থানায় প্রতারণার অভিযোগ জানিয়েছেন বৃদ্ধা। শেষ পর্যন্ত, অভিযুক্ত ছেলেকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

মাতৃ দিবসে অন্য গল্প, জোর করে জমি-বাড়ি কেড়ে প্রতারণা ছেলের, শাস্তি চান মা
ছেলের কাছে প্রতারিত মা বাণী দাস। ছবি- গৌতম মণ্ডল

মাতৃ দিবস। সোশাল মিডিয়ায় ছয়লাপ পোস্ট। উঠে আসছে মায়ের সঙ্গে সন্তানের নিবিড় সম্পর্ক, শর্তহীন ভালোবাসার কথা। মা-য়েদের এই বিশেষ দিনেই নিজের পুত্র সন্তানের শাস্তি চেয়ে আকুতি জানাচ্ছেন গাইঘাটা থানার চাঁদপাড়া ঢাকুরিয়া এলাকার এক মা। বৃ্দ্ধার বয়স ৮৩। নিজের ছেলের বিরুদ্ধে থানায় প্রতারণার অভিযোগ জানিয়েছেন তিনি। শেষ পর্যন্ত, অভিযুক্ত ছেলেকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

পুলিশ জানিয়েছে, অভিযুক্ত ছেলের নাম প্রণব কুমার দাস। তিনি কেন্দ্রীয় সরকারের সিপিডব্লিউডি-তে ইঞ্জিনিয়ার পদে কর্মরত। বর্তমানে তার স্ত্রী সন্তান নিয়ে থাকেন বাগুইহাটি এলাকায়। বছর ৮৩ র বৃদ্ধা বাণী দাস, ছেলে, বৌমা, নাতির বিরুদ্ধে ভয়ঙ্কর অভিযোগ জানিয়ে আদালতের দ্বারস্থ হয়েছিলেন।

অভিযোগ, ২০১৮ সালে ছোট ছেলে প্রণব মাকে চিকিৎসার নাম করে গাইঘাটার বকচরা এলাকার একটি বাড়িতে নিয়ে যায়। বৃদ্ধা মাকে জোর করে বিভিন্ন কাগজপত্রে সই করিয়ে নেয় । বৃদ্ধার নামে থাকা জমি-বাড়ি নিজের নামে লিখে নেয়।

অশক্ত শরীরে আদালতের দরজায় বৃদ্ধা, ছেলের কাজে কান্নায় ভেঙে পড়েছেন।

পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে,বাণী দেবীর তিন ছেলে ৷ বড় ছেলে মৃত৷ স্বামীর মৃত্যুর পর থেকে তিনি মেজ ছেলে অনুপ কুমার দাসের কাছেই থাকেন। ছোট ছেলে অভিযুক্ত প্রণব তাঁর পরিবার নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে কলকাতার বাগুইহাটি এলাকায় থাকেন। মেজ ছেলে অনুপ কুমার দাসের দাবি, ‘ভাই বাড়িতে এসে মাকে চিকিৎসার নাম করে একদিন নিয়ে গিয়েছিল। বলেছিল দলিলে মায়ের নাম ভুল আছে, সেটা পরিবর্তন করতে হবে। পরে আমরা জানতে পারি বকচর আর একটি বাড়িতে নিয়ে গিয়ে মাকে ভুল বুঝিয়ে জোরজবস্তি করে বিভিন্ন কাগজপত্রে সই করিয়ে নেয়। মার নামে থাকা জমি-বাড়ি সহ সকল সম্পত্তি নিজের নামে লিখে নেয়। এই কাজে ভাইকে তার স্ত্রী সহ আরো কয়েকজন সহযোগিতা করে৷ ঘটনার কথা জানাতেই আমরা গাইঘাটা থানা দ্বারস্থ হই।’

বৃদ্ধা বাণী দাস বলেন, ‘আমার ছোট ছেলে জোর কারে আমার জমি ওর নামে লিখিয়ে নিয়েছে। সে বড় চাকরি করে কিন্তু আমাকে দেখে না। ওর শাস্তি হোক।’

বনগাঁ মহকুমা আদালতের আইনজীবী বিশ্বরূপ সিংহ বলেন, ‘বৃদ্ধা সঙ্গে প্রতারণা করে ইংরেজিতে লেখা স্ট্যাম্প পেপারে সই করিয়ে তাঁর সম্পত্তি লিখিয়ে নিয়েছে ছেলে প্রণব দাস। বৃদ্ধা, ছেলে বৌমা সহ তিনজনের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ জানিয়ে ছিলেন। পুলিশ প্রণব দাসকে গ্রেফতার করে বনগাঁ মহকুমা আদালতে পাঠালে বিচারক তাঁর জেল হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছেন।’

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Westbengal news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Son has cheated by taking away the land and house by force mother wants punishment

Next Story
বরাদ্দ লক্ষ-লক্ষ টাকা মিলছে না, পাঁচশোর বেশি অঙ্গনওয়াড়ি কেন্দ্রে রান্না বন্ধ