scorecardresearch

বড় খবর

জিমেই বিপদ? হৃদরোগ বাড়ছে কমবয়সীদের, বিপদ এড়ানোর উপায় জানালেন চিকিৎসক

অল্পবয়সীদের মধ্যে বাড়ছে হৃদরোগ, সতর্ক থাকতে বেশ কিছু মূল্যবান পরামর্শ বিশিষ্ট হৃদরোগ বিশেষজ্ঞের।

জিমেই বিপদ? হৃদরোগ বাড়ছে কমবয়সীদের, বিপদ এড়ানোর উপায় জানালেন চিকিৎসক
অল্পবয়সীদের মধ্যে হৃদরোগ বাড়ছে।

জিমেই ঝুঁকি? শরীরকে আরও বেশি আকর্ষণীয় ও ফিট রাখতে গিয়ে যুবসমাজের একাংশ তাঁদের অজান্তেই ডেকে আনছেন চরম বিপদ। জিমে গিয়ে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু পর্যন্ত ঘটতে দেখা যাচ্ছে। মোটের উপর অল্পবয়সীদের মধ্যে বাড়ছে হৃদরোগ। শারীরিক কসরত না করলেও কমবয়সী ছেলেমেয়েদের হৃদরোগ কাবু করছে। জিমে বা শারীরিক কসরত করতে গিয়ে কমবয়সীদের মধ্যে হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়ার প্রবণতা বেড়ে চলায় উদ্বেগও বাড়ছে। শরীর ফিট তো রাখতেই হবে। তবে এক্ষেত্রেও বেশ কিছু সাবধানতাও অবলম্বন করতে হবে। সে বিষয়েই যুবসমাজকে সতর্ক করলেন বিশিষ্ট হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ তন্ময় মাজি

গত কয়েক বছরে জিমে ওয়েট লিফটিং সহ অন্য কিছু কঠিন ব্যায়ামের পর অল্পবয়সীদের হৃদরোগে আক্রান্ত হতে দেখা যাচ্ছে। এমনকী এক্ষেত্রে মৃত্যু পর্যন্ত ঘটছে। অকাল-মৃত্যুর তালিকাটা দিন যত যাচ্ছে ততই লম্বা হচ্ছে। ফিল্মস্টার থেকে শুরু করে সাধারণ তরুণ-তরুণীর দল, শরীরকে আকর্ষণীয় করে তুলতে ছুটছেন জিমে। অজান্তেই ডাকছেন চরম বিপদ।

আজকাল জিমনেশিয়ামগুলিতে বেশ কিছু হেল্থ ড্রিংকস বা অন্য ফুড সাপ্লিমেন্ট দেওয়া হয়। এগুলি কি কোনওভাবে শরীরের পক্ষে ক্ষতিকর হতে পারে? জিম বা শারীরিক কসরত করার আগে কী কী সাবধানতা নেওয়া যেতে পারে? এব্যাপারে বেশ কিছু মূল্যবান পরামর্শ দিয়েছেন বিশিষ্ট হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক তন্ময় মাজি।

জিমে ভর্তি হওয়ার আগে কী কী সাবধানতা নেবেন?

চিকিৎসক মাজির কথায়, ”এখনকার দিনে ইসিজি খুব সহজেই করা যায়। খুব একটা বেশি খরচও হয় না। যাঁরা মনে করছেন বডি বিল্ডিং করবেন বা পেশাদারি ফুটবলও খেলবেন তাঁরা ইকো স্ক্রিনিং অর্থাৎ ইকো কার্ডিওগ্রাফি করিয়ে নিতে পারেন। এতে তঁরা সেফ থাকবেন।” অর্থাৎ নির্দিষ্ট কিছু স্বাস্থ্য পরীক্ষা করানোর পর তার রিপোর্ট চিকিৎসককে দেখান। তিনিই বলে দেবেন আপনার শরীর ঠিক কতটা কসরতের ধকল নিতে পারবে বা আদৌ নিতে পারবে কিনা।

শরীর সুস্থ রাখতে কী ধরনের ব্যায়াম করতে পারেন?

চিকিৎসকের মতে, ”অ্যারোবিক এক্সারসাইজ করুন। হঠাৎ করে ভারী কসরত চলবে না। হাঁটা বা অল্প সময়ের জন্য ট্রেডমিলে হাঁটাও চলতে পারে। কিন্তু বেশি ওয়েট তোলার ব্যাপারটাই সমস্যার। কারও কারও জন্মগত কিছু সমস্যা থাকে। হঠাৎ করে স্ট্রেস বেড়ে গেলে অনেক সময় সমস্যা হতে পারে। কারও কারও হাইপার ট্রপিক কার্ডিওমায়োপেথি থাকলে খুব ট্রেস হলে সমস্যা হতে পারে।”

জিমে বিপদের আশঙ্কাটা ঠিক কোথায়?

চিকিৎসক মাজি বলছেন, ”বেশ কিছু জিমনেসিয়ামে বিভিন্ন ধরনের ফুড সাপ্লিমেন্ট দেওয়া হয়। সেগুলো কতটা স্বাস্থ্যসম্মত তা আমরাও জানি না। সেগুলো কারা দেয় কীভাবে দেয় বা তাতে স্টেরয়েড জাতীয় কিছু থাকে কিনা স্পষ্ট নয়।” অর্থাৎ জিম বা ব্যায়াম প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে দেওয়া ফুড সাপ্লিমেন্ট বা যে কোনও হেল্থ ড্রিংকস নেওয়ার আগে সচেতন থাকতেই হবে।

অল্পবয়সীদের মধ্যে হৃদরোগে বাড়ছে কেন ?

এক্ষেত্রে চিকিৎসক মাজি ধূমপানকেই বড় কারণ বলে মনে করেন। তাঁর কথায়, ”অল্পবয়সীদের হার্ট অ্যাটাকের একমাত্র রিস্ক ফ্যাক্টর হল ধূমপান। অ্যালকোহলের চেয়েও এটা মারাত্মক। যাঁরা ধূমপান করছেন তাঁদের হার্ট অ্যাটাক যে কোনও সময় হতে পারে। কমবসয়ীদের ক্ষেত্রে হার্ট অ্যাটাকের সম্ভাবনা বাড়াচ্ছে অতিরিক্ত মাত্রায় ধূমপান।”

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Westbengal news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Teens getting heart attacks at the gym doctors advise to be careful