নজিরবিহীন! মৃত সন্তানকে শুঁড়ে তুলে নিয়ে গেল মা হাতি, আবেগঘন ঘটনার সাক্ষী ডুয়ার্স

নজিরবিহীন ঘটনার সাক্ষী ডুয়ার্সের বানারহাটের বাসিন্দারা। মৃত হস্তি শাবককে শুঁড়ে আগলে প্রায় ১ কিলোমিটার পথ নিয়ে গেল মা হাতি।

The dead baby was picked up by mother elephant, Dooars have witnessed a emotional event
মৃত হস্তিশাবককে শুঁড়ে তুলে প্রায় ১ কিলোমিটার পথ পাড়ি দেয় মা হাতি। ছবি: সন্দীপ সরকার।

নজিরবিহীন ঘটনার সাক্ষী ডুয়ার্সের বানারহাটের বাসিন্দারা। মৃত হস্তি শাবককে শুঁড়ে আগলে প্রায় ১ কিলোমিটার পথ নিয়ে গেল মা হাতি। শুধু মা হাতিই নয়, দলে থাকা অন্য হাতিদেরও আগলে রাখতে দেখা গেল মৃত হস্তিশাবকটিকে।

ডুয়ার্সের বানারহাট ব্লকের ডায়না চা বাগান ও আমবাড়ি চা বাগানের বাসিন্দারা এমন নজিরবিহীন ঘটনা দেখে আবেগে ভাসলেন। ঘটনার খবর পাওয়া মাত্র বনদফতরের কর্মী ও আধিকারিকরা এলাকায় যান। ঘটনাস্থলে যান ওয়াইল্ড লাইফ ওয়ার্ডেন সীমা চৌধুরীও।

মৃত সন্তানকে শুঁড়ে করে নিয়ে যাচ্ছে মা হাতি। ছবি: সন্দীপ সরকার।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, শুক্রবর সকালে ডুয়ার্সের আমবাড়ি চা বাগান থেকে একটি মা হাতি শুঁড়ে করে তার মৃত সন্তানকে নিয়ে দীর্ঘ পথ দৌড়ে পার্শ্ববর্তী ডায়না চা বাগানের দিকে ছুটে যায়। পরবর্তী সময়ে জঙ্গল থেকে আরও কয়েকটি হাতি বেরিয়ে এসে মৃত ওই হস্তি শাবকটিকে আগলে রাখে। এই ঘটনার খবর পেয়ে বনদফতরের কর্মীরা চিকিৎসক-সহ ঘটনাস্থলে এসে পৌঁছে যায়। তবে হতির দল শাবকটিকে ঘিরে রাখার কারণে তাকে উদ্ধার করা যায়নি।

আরও পড়ুন- এ যেন এক যাত্রায় পৃথক ফল! এক টিকিটেই কোটিপতি, এক লটারি কাড়ল প্রাণ

ঘটনাস্থলে গিয়ে ওয়াইল্ড লাইফ ওয়ার্ডেন সীমা চৌধুরী বলেন, ”এমন আবেগপূর্ণ ঘটনা মনে হয় দেশের ইতিহাসে কখনও ঘটেনি। মানুষের বিপদে মানুষ ঝাঁপিয়ে পড়তে চায় না, সেখানে হাতিরা শিখিয়ে দিল বিপদে কিভাবে পাশে থাকা উচিত। বনকর্মীরা মৃত হস্তি শাবকটি উদ্ধারের চেষ্টা করলে হাতির দল বারবার বাধা দেওয়ার চেষ্টা করে। সেই কারণে হাতির দল গভীর জঙ্গলে ফিরে যাওয়ার পরেই মৃত হস্তি শাবকের দেহ বনকর্মীরা উদ্ধার করেন। ময়নাতদন্তের পরেই হস্তিশাবকের মৃত্যুর আসল কারণ জানা যাবে।”

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Westbengal news download Indian Express Bengali App.

Web Title: The dead baby was picked up by mother elephant dooars have witnessed a emotional event

Next Story
অগ্নিমূল্য বাজারেও সস্তায় সবজি-ফল ‘সুফল বাংলা’য়