বড় খবর

মালদহে ফের জ্বরে কাবু শিশুর মৃত্যু, গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত বেড়ে ৩

উত্তরবঙ্গের একাধিক জেলায় একের পর শিশু জ্বরে কাবু। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রীকে চিঠি বিরোধী দলনেতার। রাজ্যে বিশেষজ্ঞদের নিয়ে কেন্দ্রীয় দল পাঠানোর আবেদন।

Three child died suffering high fever in last 24 hours in Maldaha Medical College
শিশু মৃত্যুতে কান্নায় ভেঙে পড়েছে পরিবার। ছবি: মধুমিতা দে

ফের জ্বরের বলি। জ্বর এবং শ্বাসকষ্ট নিয়ে ভর্তি হয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মালদহ মেডিক্যালে মৃত্যু ৮ মাসের এক শিশুর। এই নিয়ে গত ২৪ ঘন্টায় তিনটি শিশুর মৃত্যু হয়েছে বলে হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে শিশু মৃত্যু ঘিরে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে মালদহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল চত্বরে। চিকিৎসার গাফিলতিতে শিশু মৃত্যুর অভিযোগে সরব হয় মৃতের পরিবার। যদিও শিশুটির মৃত্যুর প্রকৃত কারণ খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে জানিয়েছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। এদিকে, জ্বরে একের পর এক শিশু কাবু হওয়া নিয়ে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রীকে চিঠি লিখেছেন শুভেন্দু অধিকারী। অবিলম্বে রাজ্যে বিশেষজ্ঞদের নিয়ে কেন্দ্রীয় দল পাঠানোর আবেদন জানিয়েছেন বিরোধী দলনেতা।

মালদহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছে, বুধবার জ্বর এবং শ্বাসকষ্ট নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছিল ৮ মাসের ওই শিশুটিকে। মৃত শিশুর বাড়ি মালদহ শহরের দক্ষিণ বালুচর এলাকায়। বৃহস্পতিবার সকালে শিশুটির মৃত্যু হয়। শিশুটির বাবা অক্ষয় ডোম জানিয়েছেন, শ্বাসকষ্ট এবং জ্বর নিয়ে ছেলেকে ভর্তি করানো হয়েছিল। মৃতের বাবা-মা’র আরও অভিযোগ, হাসপাতালে তাঁদের সন্তানের সঠিক চিকিৎসা হয়নি। উল্লেখ্য, গত কয়েকদিন ধরেই মালদহ জেলায় একের পর এক শিশু জ্বরে আক্রান্ত হচ্ছে। মালদহ মেডিক্যালের শিশু বিভাগে জ্বর ও সর্দি কাশির উপসর্গ নিয়ে ইতিমধ্যেই বহু শিশু ভর্তি রয়েছে। তবে বেশ কিছু শিশুর পরিবারই চিকিৎসায় গাফিলতির অভিযোগ তুলছেন।

মালদহ মেডিক্যালে এদিন সকালে ফের একটি শিশুর মৃত্যুতে চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে। চিকিৎসারত শিশুদের অভিভাবকরা চরম উৎকণ্ঠায় রয়েছেন। অনেকেরই অভিযোগ, হাসপাতালের শিশু বিভাগে গাদাগাদি করে অসুস্থ শিশুদের একসঙ্গে রাখা হয়েছে। ঠিকমতো চিকিৎসা পরিষেবা মিলছে না বলেও তাঁদের অভিযোগ।

এবিষয়ে মালদহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের অধ্যক্ষ পার্থপ্রতিম মুখোপাধ্যায় জানিয়েছেন, গত ২৪ ঘণ্টায় তিনটি শিশুর মৃত্যুর খবর তিনি পেয়েছেন। হাসপাতালে ভর্তি থাকা শিশুদের জ্বর, সর্দি, কাশি এবং শ্বাসকষ্টের উপসর্গ রয়েছে। তবে শিশুদের চিকিৎসার ব্যাপারে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ যথেষ্ট সচেতন রয়েছে বলে তিনি জানিয়েছেন। তাঁর দাবি, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণেই রয়েছে। এদিন সকালে শিশু মৃত্যু প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ”প্রাথমিকভাবে জানতে পেরেছি ওই শিশুটিকে সংকটজনক অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল। প্রয়োজনীয় সব চেষ্টা করেও ওই শিশুটিকে বাঁচানো যায়নি। এখনও পর্যন্ত মালদহ মেডিক্যাল কলেজে ৫০ থেকে ৬০ জন শিশু ভর্তি রয়েছে।”

এদিকে, একের পর এক শিশুর জ্বর নিয়ে নড়েচড়ে বসেছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষও। এদিনই হাসপাতালে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের নিয়ে একটি বৈঠক ডেকেছেন অধ্যক্ষ। মেডিক্যাল কলেজের শিশু বিশেষজ্ঞদের একটি আলাদা টিমও গঠন করা হচ্ছে। যাঁরা প্রতিনিয়ত শিশু বিভাগের মনিটরিং করবেন।

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রীকে লেখা শুভেন্দু অধিকারীর চিঠি
কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রীকে লেখা শুভেন্দু অধিকারীর চিঠি

আরও পড়ুন- জ্বরে কাবু একের পর এক শিশু, ‘ভোটে ব্যস্ত সরকার’, রাজ্যকে তুলোধনা শুভেন্দুর

অন্যদিকে, উত্তরবঙ্গে শিশুদের জ্বরে আক্রান্ত হওয়ার বিষয়টি নিয়ে উদ্বেগে বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীও। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী মনসুখ মাণ্ডভিয়াকে চিঠি লিখে তিনি উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। উত্তরভঙ্গের জেলাগুলিতে ৭৫০-এরও বেশি শিশুর জ্বর এবং অনির্ধারিত ফ্লু-র মতো উপসর্গ রয়েছে বলে তিনি জানিয়েছেন। উত্তরবঙ্গের আট জেলার বিভিন্ন সরকারি হাসপাতালে জ্বরে আক্রান্ত শিশুদের ভর্তি করা হয়েছে। করোনার তৃতীয় ঢেউ নিয়ে আতঙ্কের আবহে এই পরিস্থিতি অত্যন্ত উদ্বেগজনক আকার নিচ্ছে বলেও কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রীকে লেখা চিঠিতে জানিয়েছেন বিজেপি নেতা। এই পরিস্থিতিতে বিশেষজ্ঞদের নিয়ে একটি কেন্দ্রীয় দল পশ্চিমবঙ্গে পাঠানোর আবেজন জানিয়েছেন শুভেন্দু অধিকারী।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Get the latest Bengali news and Westbengal news here. You can also read all the Westbengal news by following us on Twitter, Facebook and Telegram.

Web Title: Three child died suffering high fever in last 24 hours in maldaha medical college

Next Story
মুকুটে নয়া পালক, জয়নগরের মোয়ার জনপ্রিয়তা বাড়াতে অভিনব উদ্যোগ ডাক বিভাগেরIndian Post Office launch a special cover for joynagar moa
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com