scorecardresearch

বড় খবর

‘PF জমা না হলে BJP এমপি-এমএলএ-দের বাড়ি ঘেরাও’, চা শ্রমিকদের সভায় হুঁশিয়ারি অভিষেকের

মালবাজারে চা শ্রমিকদের সভায় আক্রমণাত্মক মেজাজে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।

‘PF জমা না হলে BJP এমপি-এমএলএ-দের বাড়ি ঘেরাও’, চা শ্রমিকদের সভায় হুঁশিয়ারি অভিষেকের
তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।

চা শ্রমিকদের সভায় আক্রমণাত্মক মেজাজে তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। চা শ্রমিকদের পিএফ-গ্র্যাচুইটির সমস্যা না মিটলে আগামী দিনে বিজেপি সাংসদ-বিধায়কদের বাড়ি ঘেরাওয়ের হুঁশিয়ারি তৃণমূল নেতার।

রবিবার মালবাজারের সভায় আগাগোড়া চা শ্রমিকদের স্বার্থে আওয়াজ তুলেছেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। উত্তরবঙ্গের চা বাগানগুলিতে শ্রমিকদের পিএফ-গ্র্যাচুইটি নিয়ে বিস্তর সমস্যা রয়েছে। অধিকাংশ ক্ষেত্রেই সময়মতো পিএফ-এর টাকা জমা পড়ে না বলে অভিযোগ শ্রমিকদের। এদিন চা শ্রমিদকদের এই জ্বলন্ত সমস্যা নিয়ে সরব হন অভিষেক। আগামী ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে ৩ লক্ষ চা শ্রমিকের আইডি কার্ড বানানোর প্রতিশ্রুতি তৃণমূল নেতার। এব্যাপারে সরকারের সঙ্গে সবরকম আলোচনা তিনি করবেন বলেও আশ্বাস দিয়েছেন।

পিএফ-গ্র্যাচুইটির সমস্যা নিয়ে বলতে গিয়ে এগিন অভিষেক নিশানা করেছেন বিজেপিকে। তাঁর কথায়, ”চা শ্রমিকদের পিএফ-এর টাকা ঠিক মতো দিচ্ছে না। পিএফ-গ্র্যাচুইটি কেন্দ্রের দায়িত্ব, রাজ্যের নয়। ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে পিএফ-গ্র্যাচুইটি দিতে হবে। তা না হলে ১ জানুয়ারি থেকে ১ মাস বিজেপি বিধায়কদের বাড়ি ঘেরাও করা হবে। আন্দোলনের মাধ্যমে বাড়ি গুঁড়িয়ে দিতে হবে। প্রয়োজনে দিল্লি যাব। ৩ লক্ষ চা শ্রমিককে নিয়ে দিল্লি যাব।”

আরও পড়ুন- উদ্ধার মালিকহীন কোটি কোটি, তোলপাড় রাজ্য রাজনীতি, বড় চ্যালেঞ্জ ED-র

উত্তরবঙ্গের চা বাগানগুলিতে শ্রমিকদের পিএফ-গ্র্যাচুইটির সমস্যার পিছনে বাগান মালিকদের একাংশ জড়িত রয়েছেন বলে অভিযোগ অভিষেকের। এক্ষেত্রে শ্রমিকদেরই সচেতন থাকার পরামর্শ তৃণমূল নেতার। প্রকাশ্য সভায় তিনি এদিন বলেন, ”পিএফ-গ্র্যাচুইটি জমা না হলে বাগানমালিকের বিরুদ্ধেই সংশ্লিষ্ট থানায় এফআইআর দায়ের করুন। এব্যাপারে চা শ্রমিকদের সবরকম সহায়তা করবে রাজ্য সরকার।”

মোদী সরকার চা বাগান অধিগ্রহণের মিথ্যা প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল বলে এদিন সোচ্চার হয়েছেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। এপ্রসঙ্গে কেন্দ্রকে দুষে তৃণমূল নেতা বলেন, ”প্রধানমন্ত্রী বলেছিলেন বন্ধ ৭টি চাবাগানই অধিগ্রহণ করে খোলার ব্যবস্থা করবেন। মোদী প্রতিস্রুতি দিয়েছিলেন, আর সেই প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়িত করেছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার। চা বাগানগুলি অধিগ্রহণ করেছে রাজ্য সরকার। দু’বছর আগে বলেছিল অসম, পশ্চিমবঙ্গের চা শ্রমিকদের জন্য ১ হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ হয়েছে। এক টাকাও পাননি চা শ্রমিকরা। এরা মিথ্যাবাদীর দল। প্রতিশ্রুতি দিয়েও রাখেনি মোদী সরকার। রাজনৈতিক স্বার্থে আচ্ছে দিন আনার কথা বলছে বিজেপি।”

আরও পড়ুন- BJP-র মিসড কলের পাল্টা, ডিজিটাল QR কোড দিয়ে সদস্য সংগ্রহে SFI

মোদীর ‘আচ্ছে দিন’ স্লোগান নিয়ে অভিষেকের নিশানায় উত্তরবঙ্গের মন্ত্রী জন বার্লা ও কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী নিশীথ প্রামাণিক। অভিষেকের টিপ্পনি, ”জন বার্লারই আচ্ছে দিন এসেছে। ওঁর বাড়ি দেখেছেন? নিশীথ প্রামাণিকের দিল্লির বাড়ি দেখেছেন? কোটি কোটি টাকা খরচ করে বাড়ি বানিয়েছে।”

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Westbengal news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Tmc mp abhisek banerjee malbazar rally