scorecardresearch

বড় খবর

Visva-Bharati University: ফের অধ্যাপকদের কটূক্তি বিদ্যুৎ চক্রবর্তীর! ‘ক্ষমা চান উপাচার্য’, দাবি শিক্ষক সমিতির

Visva-Bharati University: সেই ক্লিপের সত্যতা যাচাই করেনি ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা।

Visva-Bharati University, VC
ভাইরাল ভিডিওতে এক অধ্যাপকের সঙ্গে উত্তপ্ত বাক্য বিনিময় শোনা গিয়েছে উপাচার্যের।

আলটপকা মন্তব্য করে ফের বিতর্কে বিশ্বভারতীর উপাচার্য। সম্প্রতি একটা অডিও ক্লিপ ভাইরাল হয়েছে। সেই ক্লিপে শোনা গিয়েছে, বিশ্বভারতীর কয়েকজন অধ্যাপকের উদ্দেশে কটূক্তি করেছেন বিদ্যুৎ চক্রবর্তী। সেই ক্লিপ ভাইরাল হতেই উপাচার্যের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নিতে সরব হয়েছেন অধ্যাপক সমিতি। যদিও সেই ক্লিপের সত্যতা যাচাই করেনি ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা।

অধ্যাপক সমিতির অভিযোগ, বিশেষ এক সংগঠনের অধ্যাপকদের বিরুদ্ধে কটূক্তি করেছেন। তাই ক্ষমাপ্রার্থনা করুন উপাচার্য। যদিও বিশ্ববিদ্যালয় কতৃপক্ষের কোনও প্রতিক্রিয়া এখনও মেলেনি। মঙ্গলবার কর্মসমিতির বৈঠকে উপাচার্য মন্তব্য করেছেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়েকজন অধ্যাপক চায় না ন্যাক ক্যাম্পাস ভিজিট করুক। কিংবা রামগড়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের নবনির্মিত ক্যাম্পাস নিয়ে উদাসীন তাঁরা।‘ এমনকি, নিজেদের ক্ষোভ সম্বন্ধে সংশ্লিষ্ট কমিটিকে অবগত করেননি তাঁরা। এমন মন্তব্য করেছেন উপাচার্য।

এখানেই শেষ নয়। আরও আক্রমণাত্মক হয়ে বিদ্যুৎ চক্রবর্তী বলেন, ‘এঁরাই আমার বক্তব্য রেকর্ড করছে, ফাঁস করবে বলে। অত্যন্ত নিম্ন মানসিকতার পরিচয়। এঁরা বিশ্বভারতীর অধ্যাপক। কিন্তু এত বড় প্রতিষ্ঠানের সিক্ষক হওয়ার মানসিকতা তাঁদের নেই।‘

এতেই বেড়েছে বিতর্ক। সেই অডিওতে উপাচার্যের সঙ্গে এক অধ্যাপকের উত্তপ্ত বাক্য বিনিময় হতে শোনা গিয়েছে। এমনকি, প্রশ্নের জবাব না দিলে সেই অধ্যাপককে বৈঠক ছেড়ে বেরিয়ে যেতেও বলেছেন উপাচার্য। এমনটাও শোনা গিয়েছে সেই ভিডিওতে।

উপাচার্য হিসেবে বিশ্ববিদ্যালয়ের দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকে বিতর্কে জড়িয়েছেন বিদ্যুৎ চক্রবর্তী। শিক্ষক কিংবা অশিক্ষক কর্মী সংগঠনের সঙ্গে তাঁর মতের বিরোধের কথা মানবসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রকের কানেও গিয়েছে। সম্প্রতি বিশ্বভারতীর মাঠ পাঁচিল দিয়ে ঘেরা নিয়ে একপ্রস্ত বিরোধ বাঁধে উপাচার্য ও স্থানীয়দের।  

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Westbengal news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Viral audio claims vc uses foul languages to some section of teachers state