scorecardresearch

বড় খবর

শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু SSC-র, কর্মশিক্ষা-শারীরশিক্ষায় চাকরিতে আলাদা পদ

রাজ্যের স্কুলগুলিতে কয়েক হাজার শূন্যপদ রয়েছে। শেষবার ২০১৬ সালে রাজ্যে স্কুল সার্ভিস কমিশনের পরীক্ষা হয়েছিল।

West Bengal Government is going to recruit teachers in Madhyamik and Higher Secondary Schools
প্রতিকী ছবি।

দীর্ঘ ৬ বছরের প্রতীক্ষার অবসান। রাজ্যের স্কুলগুলিতে শিক্ষক নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ স্কুল সার্ভিস কমিশনের। ২০১৬ সালে শেষবার স্কুল সার্ভিস কমিশনের শিক্ষক নিয়োগের পরীক্ষা হয়েছিল। তারপর দীর্ঘ ৬ বছর পর ফের একবার স্কুলে শিক্ষক নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি জারি করল এসএসসি। রাজ্যের মাধ্যমিক এবং উচ্চমাধ্যমিক স্তরে শিক্ষক নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি জারি করল স্কুল সার্ভিস কমিশন।

এসএসসি-তে নিয়োগ দুর্নীতির মাঝেই এবার শিক্ষক নিয়োগে বড়সড় ঘোষণা। জানা গিয়েছে, এবার দ্রুতই প্রকাশিত নিয়োগ-বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হবে। এই মুহূর্তে রাজ্যে কয়েক হাজার শূন্যপদ রয়েছে। দ্রুত সব পদগুলি পূরণের জন্য নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি জারি করা হবে। পরীক্ষার তারিখ থেকে শুরু করে শিক্ষক নিয়োগ সংক্রান্ত যাবতীয় তথ্য বিজ্ঞাপন প্রকাশ করে জানানো হবে। প্রধান শিক্ষক পদেও দ্রুত নিয়োগ হবে বলে জানা গিয়েছে।

আরও পড়ুন- হাঁসখালির নির্যাতিতার পরিবারকে ১ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণের দাবিতে মামলা হাইকোর্টে

এদিন সাংবাদিক বৈঠকে শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু এই নিয়োগ নিয়ে বলেন, ”কর্মশিক্ষা ও শারীরশিক্ষার চাকরিপ্রর্থীদের জন্য আলাদা পোস্ট তৈরি করা হয়েছে। কর্মশিক্ষার জন্য ৭৫০ পদ তৈরি। শারীরশিক্ষার জন্য ৮৫০ পদ তৈরি হয়েছে। ৫২৬১টি এসএসসি পদ, ২০১৬ সালে পরীক্ষা হয়েছিল। প্যানেলের ফলে মেধাতালিকায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিলেন। মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে নতুন পদ তৈরি হয়েছে।”

উল্লেখ্য, একাধিক মামলায় এই মুহূর্তে বেশ বেকায়দায় এসএসসি। সংস্থার বিরুদ্ধে নিয়োগের ক্ষেত্রে পাহাড়-প্রমাণ দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে। কলকাতা হাইকোর্টের নির্দেশে নিয়োগ দুর্নীতির তদন্তে কোমর বেঁধে নেমেছে সিবিআই। ইতিমধ্যেই কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার জিজ্ঞাসাবাদের মুখোমুখি হতে হয়েছে স্কুল সার্ভিস কমিনের একাধিক কর্তাকে। এমনকী শিক্ষামন্ত্রী থাকাকালীন পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের ভূমিকাও খতিয়ে দেখছেন তদন্তকারীরা।

এই আবহেই এবার ফের এক দফায় শিক্ষক নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে দিল স্কুল সার্ভিস কমিশন। দীর্ঘ ৬ বছর পর রাজ্যের স্কুলগুলিতে শিক্ষক নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হল। ২০১৬ সালের পর থেকে রাজ্যের স্কুলগুলিতে নতুন করে আর শিক্ষক নিয়োগ হয়নি। জানা গিয়েছে, মাধ্যমিক, উচ্চমাধ্যমিক স্কুলগুলিতে শিক্ষক নিয়োগ হবে। এরই পাশাপাশি প্রধান শিক্ষক পদের জন্যও পরীক্ষা হবে। তবে প্রাথমিকে নিয়োগের ক্ষেত্রে পরবর্তী সময়ে সিদ্ধান্ত নেবে রাজ্য সরকার।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Westbengal news download Indian Express Bengali App.

Web Title: West bengal government is going to recruit teachers in madhyamik and higher secondary schools