বড় খবর

বাস-মিনিবাসের পারমিটের ফি মুকুব সহ কর ছাড়ের ঘোষণা

“সবাই আবার লাইন ধরে ট্যাক্স মুকুবের আবেদন করবেন না। সরকারে কাছে কোনও পয়সা নেই। কোনও আয় নেই। এমনকী জিএসটির টাকাও পাচ্ছি না।”

বাসমালিকদের একাধিক সুবিধার কথা ঘোষণা করেছে রাজ্য় সরকার। ছবি- শশী ঘোষ

বাস ও মিনিবাসের পারমিট ফি, কর মুকুবসহ পরিবহণের ক্ষেত্রে একাধিক সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্য সরকার। বৃহস্পতিবার মন্ত্রীসভার ক্যাবিনেট বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। বাস মালিকরা লকডাউনের শুরু থেকেই কেন্দ্র ও রাজ্য সরকারের কাছে নানা দাবি করে আসছিল। রাজ্যের এই ঘোষণাকে স্বাগত জানিয়েছে বাসমালিকদের সংগঠনগুলি।

এর আগে বাসমালিকরা বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে আবেদন করেছিলেন। সেটা বিবেচনা করে দেখে রাজ্য সরকার। এদিন স্বরাষ্টসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “ক্যাবিনেট সিদ্ধান্ত নিয়েছে ওয়েস্ট বেঙ্গল মোটর ভেহিকেলস অ্যাক্ট ১৯৭৯ অনুসারে শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত নয় এমন বাস ও মিনিবাসে যা ট্যাক্স ধার্য হয়ে থাকে তা ১ এপ্রিল ২০২০ থেকে ৩০ সেপ্টেম্বর,২০২০ পর্যন্ত মুকুব করা হল। এই সময়সীমার মধ্যে এডিশনাল ট্যাক্সও মুকুব করা হল। এছাড়া পুরো বছরের জন্য পারমিট ফিও মুকুব করা হয়েছে। যাঁরা ৩১ মার্চ ২০২০ অবধি এই কর দেননি। তাঁরা ৩১ অগাস্টের মধ্যে সেই কর দিলে পেনাল্টি মুকুব করা হবে।” তিনি জানান, এক্ষেত্রে একইসঙ্গে বাকি ঘোষিত সুযোগ সুবিধাও পাবেন।

এর আগে রাজ্য সরকার ঘোষণা করেছিল লকডাউন সময়ে রাস্তায় নামলে প্রতিটি বাসকে ১৫ হাজার টাকা করে ভর্তুকি দেওয়া হবে। এদিন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “আগে যেহেতু বলেছিলাম মাসে ১৫ হাজার টাকা করে দেব। তখন ওরা এই প্রস্তাব দিয়েছিল। ১৫ হাজার চাকার বদলে এই সিদ্ধান্ত।” তবে মুখ্যমন্ত্রী জানিয়ে দেন, “সবাই আবার লাইন ধরে ট্যাক্স মুকুবের আবেদন করবেন না। সরকারে কাছে কোনও পয়সা নেই। কোনও আয় নেই। এমনকী জিএসটির টাকাও পাচ্ছি না। চালাব কী করে রাজ্য। কোভিডের জন্য প্রতিদিন প্রচুর খরচ হচ্ছে, সেই টাকাও পাচ্ছি না। নিজেদের থেকেই করতে হচ্ছে।”

রাজ্য সরকারের এই সিদ্ধান্তকে ধন্যবাদ জানিয়েছে বাসমালিকদের সংগঠনগুলি। জয়েন্ট কাউন্সিল অব বাস সিন্ডিকেটের সাধারণ সম্পাদক তপন বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “২৭ মার্চ থেকে দাবি করছিলাম। রাজ্য সরকার সহানুভুতির সঙ্গে বিবেচনা করায় ধন্যবাদ জানাচ্ছি। রাজ্যপালের মাধ্যমে কেন্দ্রীয় সরকারে কাছে বিমা, ব্যাংকের ইএমআই, ফিটনিস সংক্রান্ত দাবি জানানো হয়েছে।” ওয়েস্ট বেঙ্গল বাস ও মিনিবাস অ্যাসোসিয়েশনের সম্পাদক প্রদীপ বসুও রাজ্যের সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিছেন। প্রদীপ বসু বলেন, “রাজ্য এগিয়ে এসেছে এবার কেন্দ্রকেও এগিয়ে আসতে হবে। কেন্দ্রীয় মন্ত্রীদের আমরা জানিয়েছি। কর্মহীন পরিবহণ শ্রমিকদের জন্য প্যাকেজ করার দাবি জানিয়েছি। আগামী সপ্তাহে বাকি দাবির প্রেক্ষিতে রাস্তায় নামব।”

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Get the latest Bengali news and Westbengal news here. You can also read all the Westbengal news by following us on Twitter, Facebook and Telegram.

Web Title: Bus

Next Story
সিপিএম নেতা শ্যামল চক্রবর্তীর জীবনাবসানShyamal Chakraborty, শ্য়ামল চক্রবর্তী
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com