YouTuber Roddur roy denied bail by Kolkata Court: লকআপেই রোদ্দুর, খারিজ জামিনের আবেদন | Indian Express Bangla

‘আমি আর্টিস্ট, টেররিস্ট নই’, জামিন না পেয়ে ভেঙে পড়লেন রোদ্দুর রায়

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে কুমন্তব্যের জেরে গত ৭ জুন গোয়া থেকে রোদগ্দুর রায়কে গ্রেফতরা করে কলকাতা পুলিশের সাইবার সেলের আধিকারিকরা।

‘আমি আর্টিস্ট, টেররিস্ট নই’, জামিন না পেয়ে ভেঙে পড়লেন রোদ্দুর রায়
ব্যাঙ্কশাল আদালতে রোদ্দুর রায়। ছবি: পার্থ পাল।

মিলল না জামিন। মঙ্গলবার ইউটিউবার রোদ্দুর রায়ের বিরুদ্ধে জোড়া মামলার শুনানি ছিল ব্যাংকশাল আদালতে। তারই একটিতে আগামী সোমবার পর্যন্ত পুলিশ হেফাজত হয়েছে তাঁর। অন্যটিতে জেল হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছে আদালত। আদালত থেকে থানায় ফেরার পথে এ দিন রোদ্দুর রায় বলেন, ‘আমি টেররিস্ট না, আর্টিস্ট। কিন্তু, আমার শিল্প কেউ বোঝে না।’

এদিকে বিতর্কিত ইউটিউবার রোদ্দুর রায়ের বিরুদ্ধে নতুন মামলা রুজু করেছে বটতলা থানার পুলিশের। এই মামলাতেই ৭ দিনের পুলিশি হেফাজতের নির্দেশ হয়েছে রোদ্দুরের।

হেয়ার স্ট্রিট থানার করা মামলায় আগামী ২০ জুন পর্যন্ত জেল হেফাজতের রোদ্দুর রায়কে রাখার নির্দেশ দিয়েছে ব্যাংকশাল কোর্ট।

YouTube Poster

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে কুমন্তব্যের জেরে গত ৭ জুন গোয়া থেকে রোদগ্দুর রায়কে গ্রেফতরা করে কলকাতা পুলিশের সাইবার সেলের আধিকারিকরা। এই মামলাটি দায়ের হয়েছিল হেয়ার স্ট্রিট থানায়। যার ভিত্তিতে রোদ্দূরকে গ্রেফতার করা হয়েছিল। ওই মামলায় চিফ মেট্রোপলিটান ম্যাজিস্ট্রেটের রোদ্দূরকে পুলিশের হেফাজতে রাখার নির্দেশও দিয়েছিলেন।

সাহিত্যে অবদানের জন্য একাডেমি সম্মানে সম্মানিত করা হয়েছে মুখ্যমন্ত্রীকে। যাকে কেন্দ্র করে বিতর্ক তৈরি হয়। এই ইস্যুতে ইউটিউবে মুখ খোলেন রোদ্দুর রায়। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও অভিষেককে কুমন্তব্য করার অভিযোগ ওঠে তাঁর বিরুদ্ধে। ফলে প্রথমে লালবাজার, পাটুলি থানায় রোদ্দুরের বিরুদ্ধে অভিযোগ জমা পড়ে। পরে এই অভিযোগ জমা পড়েছে হেয়ার স্ট্রিট, চিৎপুর, বটতলা থানায়। যার প্রেক্ষিতেই তাঁর বিরুদ্ধে পদক্ষেপ করে কলকাতা পুলিশ।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Westbengal news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Youtuber roddur roy denied bail by kolkata court

Next Story
‘কিছুই করছে না CBI, আমি ক্লান্ত-হতাশ’, ক্ষুব্ধ বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়