বড় খবর

রক্তস্নাত মায়ানমার! গণতন্ত্রের দাবি তুলতেই সেনার গুলিতে নিহত ৩৮

শান্তি ফেরানোর নামে নির্বিচারে হত্যা করা হচ্ছে সাধারণ মানুষকে, এমনই অভিযোগ উঠল।

বুধবার চরম নৃশংসতার সাক্ষী থাকল আন সাং সু কি-এর দেশ। একদিনে ৩৮ গণতন্ত্রকামী মানুষকে গুলি করে মারল সেনা ও পুলিশ। মায়ানমারে গণতন্ত্রপন্থী নেতাকর্মীরা বৃহস্পতিবার আরও বিক্ষোভ প্রদর্শনের প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। গোটা ঘটনায় স্তম্ভিত হয়েছে বিশ্ব। শান্তি ফেরানোর নামে নির্বিচারে হত্যা করা হচ্ছে সাধারণ মানুষকে, এমনই অভিযোগ উঠল।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছে, বুধবার পুলিশ ও সেনারা কয়েক রাউন্ড গুলি চালিয়েছিল। আচমকাই দেশের শাসনক্ষমতা নিজেদের হাতে তুলে নেয় মায়ানমার সেনা। পালটা ক্যু বা সেনা অভ্যুত্থানের প্রতিবাদে পথে নামে দেশের আমজনতা। আন সাং সু কি পন্থীদের দমনে মরিয়া সে দেশের সেনা। সেই উদ্দেশে নির্বিচারে দমন পীড়ন চালাচ্ছে তারা।

অ্যাক্টিভিস্ট মং সাউংখা রয়টার্সকে বলেছেন, “আমরা জানি আমরা যেকোনও সময় গুলি খেতে পারি। এভাবে বেচে থাকার কোনও অর্থ হয় না। তাই আমরা এই পথ বেছে নিয়েছি। আমরা লড়াই চালিয়ে যাব।” শুধুমাত্র ইয়াঙ্গনেই মৃত্যু হয়েছে সাতজনের। গ্রেপ্তার হয়েছেন অন্তত ৩০০ জন। মনওয়ায় ছজনের মৃত্যু হয়েছে। বাকি মৃত্যুর খবর এসেছে মান্দালয়, মিঙগিয়ান শহরগুলি থেকে।

রাষ্ট্রসংঘের বিশেষ দূত ক্রিস্টিন শরণার বার্জারার নিউইয়র্কে বলেছিলেন যে বুধবার ১ ফেব্রুয়ারি সবচেয়ে ‘রক্তক্ষয়ী দিন’ ছিল। ৩৮ জন নিহত হয়েছে। নিহতদের মধ্যে চার শিশুও রয়েছে বলে একটি সংস্থা জানিয়েছে। স্থানীয় সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে যে কয়েকশ প্রতিবাদকারীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Get the latest Bengali news and World news here. You can also read all the World news by following us on Twitter, Facebook and Telegram.

Web Title: 38 people had been killed myanmar activists vow more protests after bloodiest day

Next Story
চিনা সাইবার হানা: ভারতের পাশে দাঁড়াক বাইডেন প্রশাসন, আর্জি মার্কিন কংগ্রেস সদস্যের
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com