scorecardresearch

বড় খবর

রাশিয়ার বিরুদ্ধে ইউরোপের সুরে সুর মেলাক ভারত, চান জার্মান চ্যান্সেলর

ইউক্রেন ছাড়াও দ্বিপাক্ষিক বিভিন্ন ইস্যুতে উভয়ের মধ্যে কথা হবে বলেই জানিয়েছে বিদেশ মন্ত্রক।

Olaf

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে বৈঠকের আগে ইউক্রেন ইস্যুতে সরব হলেন জার্মানির চ্যান্সেলর ওলাফ স্কোলজ। জার্মান চ্যান্সেলরের দায়িত্ব নেওয়ার পর এই প্রথম প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে স্কোলজের বৈঠক ঘিরে তুঙ্গে উঠেছে জল্পনা। এই সফরের আগেই বিদেশ মন্ত্রক জানিয়েছিল, বৈঠকে অন্যতম মূল আলোচ্য বিষয় থাকবে ইউক্রেন ইস্যু। ২০২১ সালে ওলাফ স্কোলজ জার্মানির চ্যান্সেলরের দায়িত্ব গ্রহণ করেন। সোমবার মোদীর সঙ্গে বৈঠকের আগে স্কোলজ অভিযোগ করেন, ইউক্রেনে রাশিয়ার হামলা রাষ্ট্রসংঘের সনদ ভঙ্গ করেছে। সেই কারণে তিনি আশাবাদী, ভারত এবং জার্মানি ইউক্রেনে হামলা নিয়ে একই দৃষ্টিভঙ্গী পোষণ করবে। রাষ্ট্রসংঘের সনদ অনুযায়ী, সাধারণ নাগরিকদের হত্যা যুদ্ধাপরাধ। সেই বিষয়ে দুই দেশই একমত হবে।

রবিবার রাতেই বার্লিনের পথে রওনা দেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। ইউক্রেন ছাড়াও দ্বিপাক্ষিক বিভিন্ন ইস্যুতে উভয়ের মধ্যে কথা হবে বলেই জানিয়েছে বিদেশ মন্ত্রক। সেই সুরে সোমবার স্কোলজও জানিয়েছেন, ‘জলবায়ু পরিবর্তনের বিরুদ্ধে লড়াই’, ‘উন্নয়ন’-এর প্রসঙ্গও আলোচনায় উঠবে। পাশাপাশি, ভারত ও ইউরোপীয় ইউনিয়নের মধ্যে ‘মুক্ত বাণিজ্য চুক্তি’-র বিষয়টিও এই সফরে গতি পাবে। তবে, সবকিছু ছাপিয়ে গিয়েছে ইউক্রেনে রাশিয়ার হামলার বিষয়টি। এই হামলা গোটা ভৌগলিক-রাজনৈতিক পরিবেশকে কার্যত বিষিয়ে তুলেছে। আর, সেই কারণেই গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠেছে, রাশিয়া ইস্যুতে ভারতের মনোভাব।

আরও পড়ুন- মোদী সরকারের আট বছর ‘অপশাসন’-এর কেস স্টাডি, অভিযোগ রাহুলের

এই প্রশ্নে স্কোলজ জানিয়েছেন, তিনি ডিসেম্বরে চ্যান্সেলর পদে বসেছেন। তারপর থেকে ভারতের সঙ্গে জার্মানির সম্পর্ক চাঙ্গা করার বিষয়টিকে তিনি প্রাধান্য দিয়েছেন। তারই অঙ্গ হিসেবে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর জার্মানি সফরের দিকে তিনি তাকিয়ে আছেন। স্কোলজ জানিয়েছেন, মোদীর পাশাপাশি, জার্মানির প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠকে অংশ নেবেন ভারতের অন্যান্য মন্ত্রীরাও। তাই এই সফর শুধুমাত্র ভারত-জার্মানির সম্পর্ককে উন্নত করবে না। নতুন মাত্রাও দেবে। তবে, রাশিয়ার হামলার বিষয়টি সবচেয়ে প্রাসঙ্গিক। ভারতের সঙ্গে রাশিয়ার সম্পর্ক দীর্ঘদিনের। কিন্তু, বর্তমানে রাশিয়ার হামলায় ইউক্রেনের নাগরিকরা বাস্তুচ্যুত হয়েছেন। ইউক্রেনের বহু নাগরিক রাশিয়ার হামলায় প্রাণ হারিয়েছেন। যার জেরে কার্যত গোটা ইউরোপ এখন রাশিয়ার বিরুদ্ধে। রাষ্ট্রসংঘের সনদ ভঙ্গ করায় ভারতও ইউরোপের দেশগুলোর মতো রাশিয়ার বিরুদ্ধে সুরে সুর মেলাক। এমনটাই চান জার্মানির চ্যান্সেলর।

Read story in English

Stay updated with the latest news headlines and all the latest World news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Confident of agreement with india on war crime accountability