বড় খবর

নজর দিলেই ঘুম উড়িয়ে দেব, আমেরিকাকে প্রকাশ্যে হুমকি কিম জংয়ের বোনের

নতুন প্রশাসন যদি চার বছর শান্তিতে ঘুমাতে চায়, তাহলে শুরুতেই এই কাজ করা থেকে তাদের বিরত থাকতে হবে’।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে সম্পর্কে টানাপোড়েন ছিলই। যদিও ডোনাল্ড ট্রাম্পের সময় কিছুটা ঠান্ডা ছিল আমেরিকা-উত্তর কোরিয়ার সম্পর্ক। কিন্তু ফের উত্তপ্ত হল পরিস্থিতি। এবার কিম জং উন নয় তাঁর বোন প্রভাবশালী কিম ইয়ো জং সরাসরি নিশানা করেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনকে।

রডং সিনাম পত্রিকা কিম জং উনের বোনকে উদ্ধৃত করে বলেছে, ‘যুক্তরাষ্ট্রের নতুন প্রশাসনকে পরামর্শ দিচ্ছি। যুক্তরাষ্ট্র সমুদ্রের ওপার থেকে যদি আমাদের ভূখণ্ডে বারুদের গন্ধ ছড়ানোর চেষ্টা চালায়। নতুন প্রশাসন যদি চার বছর শান্তিতে ঘুমাতে চায়, তাহলে শুরুতেই এই কাজ করা থেকে তাদের বিরত থাকতে হবে’।

তিনি সরাসরি বলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট যদি ভালোভাবে ঘুমাতে চান তাহলে যেন এ জাতীয় সিদ্ধান্ত না নেন। এমনকী উত্তর কোরিয়ার বিরুদ্ধে কোনও পদক্ষেপ করলে আমেরিকার ‘ঘুম’ উড়িয়ে দেওয়া হবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন তিনি। নাম না করে জো বাইডেনকে হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেছেন, “আগামী চার বছর যদি নিশ্চিন্তে ঘুমোতে চান, তা হলে আমাদের দিকে নজর দেওয়ার চেষ্টা করবেন না। যদি সেই প্রচেষ্টা হয়, তা হলে ঘুম উড়িয়ে দেব।”

জাপান এবং দক্ষিণ কোরিয়ার সঙ্গে আমেরিকার সামরিক বোঝাপড়া এবং সম্পর্ক নতুন নয়। কয়েকদিনের ভিতরে যৌথ সেনা মহড়া হওয়ার কথা। কিন্তু উত্তর কোরিয়া মনে করছে তাঁদের চাপে রাখতেই এমন পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। এদিকে, জাপানের মাটিতে পা রেখেছেন পেন্টাগন প্রধান লয়েড অস্টিন এবং নতুন বিদেশ সচিব অ্যান্টনিব্লিংকেন। সেখানে দুদিন থেকে দক্ষিণ কোরিয়ায় যাওয়ার কথা দুই মার্কিন কর্তার।

গত এক সপ্তাহ ধরে দক্ষিণ কোরিয়া ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র যৌথ সামরিক মহড়া দিচ্ছে। যা নিয়ে উত্তর কোরিয়ার সরকারি সংবাদ সংস্থা আপত্তি জানিয়েছে। দেশে যুদ্ধ পরিস্থিতি তৈরি করতেই এই উদ্যোগ এমনটাই জানিয়েছে উত্তর কোরিয়া।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Get the latest Bengali news and World news here. You can also read all the World news by following us on Twitter, Facebook and Telegram.

Web Title: Kim jong uns sister lashed out at washington set to visit seoul

Next Story
জাতীয় নিরাপত্তার স্বার্থে শ্রীলঙ্কায় নিষিদ্ধের পথে বোরখা এবং কয়েক হাজার মাদ্রাসা
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com