scorecardresearch

বড় খবর

বছরভর যুদ্ধ চললেও ইউক্রেনের পাশেই থাকবে, জানাল ন্যাটো

রাষ্ট্রসংঘের মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেস ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট জেলেনস্কির সঙ্গে দেখা করার জন্য বৃহস্পতিবার কিয়েভে পৌঁছন।

Natto

রাশিয়ার বিরুদ্ধে যুদ্ধ বছরভর চললেও সমর্থন করে যাবে ন্যাটো। ইউক্রেনকে সোভিয়েত জমানার পুরনো অস্ত্রের বদলে আধুনিক অস্ত্র দিয়ে সাহায্যের জন্য ন্যাটো অঙ্গীকারবদ্ধ। বৃহস্পতিবার একথা স্পষ্ট করে দিয়েছেন ন্যাটোর মহাসচিব জেনস স্টলটেনবার্গ। বেলজিয়ামের ব্রাসেলসে যুবর এক সমাবেশে তিনি বক্তব্য রাখছিলেন। সেখানে স্টলটেনবার্গ বলেন, ‘আমাদের দীর্ঘ লড়াইয়ের জন্য প্রস্তুতি প্রয়োজন। এই যুদ্ধ কয়েক মাস এমনকী, বছর পেরিয়েও চলবে, সেই প্রস্তুতি আমাদের রাখা দরকার।’ কীভাবে তাঁরা ইউক্রেনকে সাহায্য করতে চান, তা-ও স্পষ্ট করে দিয়েছেন ন্যাটোর মহাসচিব। জানিয়েছেন, শুধু তিনিই নন। ন্যাটোর সব শরিকরাই ইউক্রেনকে সাহায্যের ব্যাপারে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। প্রয়োজনে তাঁরা ইউক্রেনকে ন্যাটোর মানের অস্ত্র ইউক্রেনের হাতে তুলে দেবেন।

এর মধ্যেই রাষ্ট্রসংঘের মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেস ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট জেলেনস্কির সঙ্গে দেখা করার জন্য বৃহস্পতিবার কিয়েভে পৌঁছন। ইউক্রেনের বিদেশমন্ত্রী দিমিত্র কুলেবার সঙ্গেও তাঁর বৈঠকের কথা। রাজধানী কিয়েভের বাইরে এক গোপন স্থানে এই বৈঠকের আয়োজন করা হয়েছে। চলতি সপ্তাহের গোড়ায় মস্কোয় গিয়ে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সঙ্গেও বৈঠক করেছেন গুতেরেস। সেই বৈঠকে মারিউপোলের আজোভস্টাল ইস্পাত কমপ্লেক্সে অবরুদ্ধ নাগরিকদের মুক্তি নিয়ে কথা হয়েছে।

এর মধ্যেই, বুধবার গভীর রাতে রাশিয়ার দক্ষিণাঞ্চলীয় শহর খেরসনের একটি টেলিভিশন টাওয়ারের কাছে ধারাবাহিক বিস্ফোরণের খবর পাওয়া গেছে। ইউক্রেন এবং রাশিয়া, উভয় সংবাদ সংস্থাই জানিয়েছে যে ধারাবাহিক এই বিস্ফোরণে সাময়িকভাবে রাশিয়ার টিভি চ্যানেলগুলো বন্ধ হয়ে যায়। রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা আরআইএ নভোস্তি অবশ্য বৃহস্পতিবার জানিয়েছে, সম্প্রচার ফের শুরু হয়েছে। তাঁরা জানিয়েছে, রাশিয়ার টিভি চ্যানেলগুলো গত সপ্তাহেই খেরসন থেকে সম্প্রচার শুরু করেছে। তারপর এই বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটল। বিস্ফোরণের কারণ জানতে তদন্ত জোরকদমে চলছে।

এর মধ্যেই মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ইউক্রেনকে আরও বিপুল পরিমাণ অর্থ সাহায্য করতে চান। তিনি ৩,৩০০ কোটি মার্কিন ডলার অর্থসাহায্য় করতে চান ইউক্রেনকে। এই অর্থ বরাদ্দের অনুমতি দেওয়ার জন্য মার্কিন কংগ্রেসের কাছে বাইডেন অনুমতি চাইবেন বলে জানিয়েছেন। একইসঙ্গে, রাশিয়ার বিরুদ্ধে আরও বেশি নিষেধাজ্ঞা আরোপের কথাও জানিয়েছেন বাইডেন।

Read story in English

Stay updated with the latest news headlines and all the latest World news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Nato says ready to support kyiv