scorecardresearch

বড় খবর

পাঞ্জশির ছাড়তে হবে, তবেই হবে আলোচনা, তালিবানকে শর্ত মাসুদের

একটানা কয়েক সপ্তাহ ধরে পাঞ্জশির উপত্যকায় চলছে রক্তক্ষয়ী সংগ্রাম। আল-কায়দাকে সঙ্গে নিয়েও পাঞ্জশিরে দাঁত ফোটাতে পারেনি তালিবান।

Ahmad Massoud did not escaped but how panjshir still fighting
পাঞ্জশিরের প্রতিরোধ বাহিনীর প্রধান আহমেদ মাসুদ

তালিবানের সঙ্গে আলোচনায় রাজি পাঞ্জশিরের প্রতিরোধ বাহিনীর প্রধান আহমেদ মাসুদ। তবে তার আগে পাঞ্জশির উপত্যকায় হামলা বন্ধ করতে তালিবানকে, এমনই শর্ত দিয়েছেন তিনি। একটানা কয়েক সপ্তাহ ধরে পাঞ্জশিরে তালিবান যোদ্ধাদের মোকাবিলায় রক্তক্ষয়ী সংগ্রাম চালাচ্ছে মাসুদের প্রতিরোধ বাহিনী। মুখে পাঞ্জশির দখলের কথা বারবার বলে চলেছে তালিবান। তবে তালিবানের সেই দাবি ওড়াচ্ছেন প্রতিরোধ বাহিনীর প্রধান।

মাসুদকে এর আগেও একাধিকবার আলোচনার টেবিলে বসার আহ্বান জানিয়েছিলেন আফগানিস্তানের ধর্মীয় নেতাদের একাংশ। প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট হামিদ কারজাইও হিংসা থামাতে মাসুদকে তালিবানের সঙ্গে আলোচনায় বসতে আবেদন করেছিলেন। এবার সেই আবেদনে সাড়া দিয়েছেন মাসুদ। তালিবানের তরফেও প্রতিরোধ বাহিনীর প্রধানের আলোচনার বার্তাকে স্বাগত জানানো হয়েছে।

ন্যাশনাল রেজিস্টেন্স ফ্রন্ট অফ আফগানিস্তানের (এনআরএফএ) প্রধান আহমদ মাসুদ ফেসবুক পোস্টে লিখেছেন, ”এনআরএফএ নীতিগতভাবে বর্তমান সমস্যার সমাধান করতে আগ্রহী। যুদ্ধের অবসান ঘটাতেও রাজি। আলোচনার মাধ্যমে সমস্যা মিটিয়ে নিতে চাই। তালিবানকে পাঞ্জশির ও আন্দারাব থেকে সরতে হবে। দীর্ঘস্থায়ী শান্তির বাতাবরণ তৈরি করতে এনআরএফ এই শর্তে যুদ্ধ বন্ধ করতে প্রস্তুত।”

উল্লেখ্য, গোটা আফগান-মুলুকে নিয়ন্ত্রণ কায়েম করেছে তালিবান। তবে একটানা কয়েক সপ্তাহ ধরে তালিবানের সঙ্গে যুদ্ধ চালিয়ে পাঞ্জশির উপত্যকায় নিয়ন্ত্রণ ধরে রেখেছে মাসুদের বাহিনী। তালিবানের সঙ্গে লড়াইয়ে এককাট্টা হয়ে লড়ছে গোটা পাঞ্জশির। কাবুল পতনের পরেই পাঞ্জশিরে তালিবানকে রুখতে তৈরি হয় নর্দান অ্যালায়েন্স। প্রতিরোধ বাহিনীর নেতৃত্বে আমরুল্লাহ সালেহ এবং আহমদ মাসুদ।

একটানা যুদ্ধ চলছে পাঞ্জশির উপত্যকায়। গত কয়েকদিনে প্রতিরোধ বাহিনীর পাল্টা হামলায় প্রাণ গিয়েছে বহু তালিবান যোদ্ধার। উল্টোদিকে, প্রতিরোধ বাহিনীর বহু যোদ্ধারও মৃত্যু হয়েছে গোলা-গুলির লড়াইয়ে। দাঁতে দাঁত চেপে তালিবানের বিরুদ্ধে লড়ছে পাঞ্জশির। বিনা লড়াইয়ে পাঞ্জশিরের এক ইঞ্চি মাটিও তালিবানকে দখল করতে দিতে চায় না প্রতিরোধ বাহিনী। জানা গিয়েছে, পাঞ্জশির দখলে আল-কায়দার সাহায্য নিচ্ছে তালিবান। তবুও উপত্যকার এই অঞ্চলে এখনও সাফল্য পায়নি তালিবান। তবে মুখে বারবার পাঞ্জশির দখলের দাবি করে চলেছে তালিবান নেতারা।

আরও পড়ুন- নজরে ভোট, যোগী-রাজ্যে বিজেপিকে চাপে ফেলতে ময়দানে কৃষক-নেতারা

আফগান সংবামাধ্যম জানিয়েছে, ধর্মীয় নেতারা পাঞ্জশিরের যুদ্ধ বন্ধে তালিবানকে বারবার আবেদন করেছিলেন। একইভাবে প্রতিরোধ বাহিনীর প্রধান মাসুদকেও তাঁরা তালিবানের সঙ্গে আলোচনায় বসার আহ্বান জানিয়েছিলেন। পাঞ্জশিরের যুদ্ধ বন্ধ করার জন্য একটি আলোচনার ক্ষেত্র তৈরিতে বরাবর ওই নেতারা উদ্যোগী ছিলেন। তবে তালিবানের তরফে পাল্টা উদ্যোগ নেওয়া হয়নি এতদিন। উল্টোদিকে, প্রতিরোধ বাহিনীও এতদিন আলোচনায় বসার ব্যাপারে সম্মত ছিল না। তবে এবার বাহিনীর প্রধান আহমেদ মাসুদ নিজেই তালিবানকে আলোচনায় বসার শর্ত বেঁধে দিয়েছেন। মুখে মাসুদের এই বার্তাকে স্বাগতও জানাচ্ছেন তালিবান নেতারা। তবে শর্ত মেনে ঠিক কবে হবে শান্তি-আলোচনা? নজর সেদিকেই।

Read full story in English

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Stay updated with the latest news headlines and all the latest World news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Panjshir resistance front leader massoud says he is ready to talk with taliban