scorecardresearch

যুদ্ধের জের, ইউক্রেনের মহিলাদের করুণ পরিস্থিতি, বিশেষ পরিকল্পনায় IMF

মঙ্গলবারই আরও একটা আন্তর্জাতিক নারী দিবস পেরিয়েছে বিশ্ববাসী। সেকথা মাথায় রেখে ইউক্রেন পরিস্থিতি এবার উঠে এল রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে।

যুদ্ধের জের, ইউক্রেনের মহিলাদের করুণ পরিস্থিতি, বিশেষ পরিকল্পনায় IMF
যখন মহিলা এবং কন্যারা তাদের পূর্ণ শক্তি ব্যবহার করতে পারবেন, তখনই তাঁদের উন্নয়ন ঘটা সম্ভব।

মঙ্গলবারই আরও একটা আন্তর্জাতিক নারী দিবস পেরিয়েছে বিশ্ববাসী। সেকথা মাথায় রেখে ইউক্রেন পরিস্থিতি এবার উঠে এল রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে। তুলে ধরলেন আন্তর্জাতিক মুদ্রা ভাণ্ডারের ম্যানেজিং ডিরেক্টর ক্রিস্টালিনা জিওর্জিয়েভা। তিনি জানান, এমনিতেই করোনা পরিস্থিতিতে গোটা বিশ্বের নারী আর্থিক ও সামাজিক ক্ষেত্রে পিছিয়ে পড়েছে। আর, যুদ্ধ ইউক্রেনের নারীকে করুণ পরিস্থিতির দিকে ঠেলে দিয়েছে।

তাঁর কথায়, যুদ্ধের সবচেয়ে খারাপ দিকটা নারীকেই ভুগতে হয়। অথচ, নারীই হল শান্তির সবচেয়ে ভালো আশা। দ্বন্দ্বের মধ্যে সেতুবন্ধন করে নারীই দ্বন্দ্বের অবসান ঘটায়। জিওর্জিয়েভার কথায়, ‘ যে নারীরা যুদ্ধের বীভত্সতার মুখোমুখি হয়েছেন, আমি তাঁদের প্রতি সমব্যথী। কারণ, তাঁদের নিজেদের সন্তানকে রক্ষা করতে হয়েছে। আহত ব্যক্তিদের যত্ন নিতে হয়েছে।’

ক্রিস্টালিনা আরও জানান, ‘যুদ্ধবিধ্বস্ত অঞ্চলের নারীকে দেশ, নিজের সমাজ এবং পরিবারের জন্য বলিদান দিতে হয়েছে। সেই দুর্ভাগ্যের মুখেই এখন আমাদের ইউক্রেনের বোনেদেরকেও পড়তে হয়েছে। আমরা তোমাদের সাহসের সম্মান করি। তোমাদের যন্ত্রণার ভাগীদার আমরা। তোমাদের পাশেই আমরা আছি।’ ক্রিস্টালিনা জানান, করোনা থেকে যুদ্ধ- নানা কারণে লিঙ্গ সাম্যতার লড়াইয়ে বর্তমান বিশ্বে নারী পিছিয়ে পড়েছে।

জিওর্জিয়েভা জানান, অতিমারী পরিস্থিতিতে গোটা বিশ্বেই নারী-পুরুষ নির্বিশেষে বহু মানুষ কাজ হারিয়েছেন। খুইয়েছেন সামাজিক নিরাপত্তা। শ্রম দান করেও তাঁরা অর্থ পাননি। উলটে, তাঁদের সন্তানের বোঝা বইতে হয়েছে। উন্নয়নশীল দেশগুলোর ২ কোটি কন্যা করোনা পরিস্থিতির পর আর স্কুলে ফেরেননি। যা তাত্পর্যপূর্ণ ভাবে তাঁদের জীবনভর আয়ের হ্রাস ঘটিয়েছে।

আফ্রিকার সাহারা মরুভূমি সংলগ্ন অঞ্চলগুলোয় এই পরিস্থিতিতে লিঙ্গজনিত হিংসা বৃদ্ধি পেয়েছে। এই সব দেশগুলো যদি এমন ধরনের ঘটনা কমাতে পারে, তবে দীর্ঘস্থায়ী আর্থিক উত্পাদন অন্তত ৩০ শতাংশ বেড়ে যাওয়া সম্ভব। যখন মহিলা এবং কন্যারা তাদের পূর্ণ শক্তি ব্যবহার করতে পারবেন, তখনই তাঁদের উন্নয়ন ঘটা সম্ভব। আর্থিক উন্নতি কেবলমাত্র তখনই হতে পারে বলেই আন্তর্জাতিক মুদ্রা ভাণ্ডারের ম্যানেজিং ডিরেক্টর জানান।

আর, তাতে সকলেরই কল্যাণ বলে দাবি করেছেন ক্রিস্টালিনা। এই পরিস্থিতিতে উপদ্রুত এবং যুদ্ধবিধ্বস্ত এলাকার নারীর উন্নয়নে বিশেষ পরিকল্পনা গ্রহণ করতে চায় আন্তর্জাতিক মুদ্রা ভাণ্ডার। বুধবার সেই ব্যাপারে সংস্থার পরিচালকমণ্ডলী আলোচনা করেছেন বলেই জানান আন্তর্জাতিক মুদ্রা ভাণ্ডারের ম্যানেজিং ডিরেক্টর।

Read in English

Stay updated with the latest news headlines and all the latest World news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Ukraine war adds to economic social setbacks for women imf