scorecardresearch

বড় খবর

বাজেট কথা: ‘ভোট-অন-অ্যাকাউন্ট না, অ্যাকাউন্ট ফর ভোট’?

মোদী-শাহরা বলেছেন, এ বাজেট ‘ঐতিহাসিক’। কংগ্রেস বলছে ভোটারদের সরাসরি ঘুষ দিচ্ছে বিজেপি। এই দেখনদারি বাজেটের মেয়াদ ফুরিয়ে গিয়েছে বলে কটাক্ষ করেছেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

বাজেট কথা: ‘ভোট-অন-অ্যাকাউন্ট না, অ্যাকাউন্ট ফর ভোট’?
মোদী, মমতা, রাহুল ও চিদম্বরম। ছবি: ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস।

লোকসভা ভোটের আগে মোদী সরকারের শেষ অন্তর্বর্তী বাজেট অধিবেশন ঘিরে শাসক-বিরোধী চাপানউতোর তুঙ্গে। উনিশের ভোটের মুখে সরকারের শেষ বাজেট নিয়ে ইতিমধ্যেই ‘ঢাক পেটাতে’ আসরে নেমেছেন মোদী-শাহরা। অন্যদিকে, বাজেটের তীব্র বিরোধিতা করে আসরে নেমেছেন রাহুল-মমতার মতো রাজনৈতিক বিরোধী নেতারা। এই বাজেটের মাধ্যমে সরাসরি ভোটারদের ঘুষ দিচ্ছে বলে বিজেপিকে নিশানা করেছেন লোকসভার কংগ্রেস নেতা মল্লিকার্জুন খাড়গে। মোদী-শাহরা বলছেন, এ বাজেট ‘ঐতিহাসিক’। একনজরে জেনে নিন কে কী বললেন বাজেট প্রসঙ্গে:

“উপকৃত হবেন কৃষক ও বেতনভোগীরা,” বাজেট নিয়ে একথাই বললেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তাঁর সরকারের শেষ বাজেট প্রসঙ্গে মোদী বলেন, “১২ কোটিরও বেশি কৃষক ও তাঁদের পরিবার উপকৃত হবেন। পাশাপাশি ৩ কোটি বেতনভোগী ও তাঁদের পরিবার লাভবান হবেন। দারিদ্রের শিকল থেকে বহু মানুষকে মুক্ত করা গেল, এটা ভেবে ভাল লাগছে। নব্য মধ্যবিত্ত শ্রেণির স্বপ্নপূরণ হচ্ছে।”

আরও পড়ুন, টুকলি করা বাজেট, এক্সপায়ারি ডেট পেরিয়ে গিয়েছে: মমতা

মোদীর সেনাপতি অমিত শাহ বলেছেন, এই বাজেটে সমাজের সবস্তরের মানুষ উপকৃত হবেন। শাহর কথায়, দেশের যুবক, কৃষক, গরিবদের প্রতি সরকার কতটা দায়বদ্ধ, তা প্রমাণ করবে এই বাজেট। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং বলেছেন, “এটা ঐতিহাসিক বাজেট। সমাজের সব স্তরের মানুষ উপকৃত হবেন।” কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলি বলেছেন, “২০১৪-১৯ সালের মধ্যে সব বাজেটেই দারুণ ভাবে স্বস্তি দিয়েছে মধ্যবিত্ত শ্রেণিকে।” লোকসভার অধ্যক্ষ সুমিত্রা মহাজন বলেছেন, “এই বাজেট সকলের জন্য।”

[bc_video video_id=”5997357105001″ account_id=”5798671093001″ player_id=”JvQ6j3xDb1″ embed=”in-page” padding_top=”56%” autoplay=”” min_width=”0px” max_width=”640px” width=”100%” height=”100%”]

আরও পড়ুন, Budget 2019 Tax Slab: আয়করে ছাড়ের পর ছাড়! কী বলছে বাজেট?

এদিনের বাজেটকে আম-আদমির বাজেট বলে বর্ণনা করেছেন মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী দেবেন্দ্র ফড়নবিশ।

“নয়া ভারত গড়ার পথ দেখাবে এই বাজেট,” বলেছেন সুরেশ প্রভু।

তবে মোদী সরকারের শেষ বাজেট নিয়ে সুর চড়িয়েছেন বিরোধীরা। এদিন বাজেট নিয়ে ফের মোদীর বিরুদ্ধে আক্রমণ শানালেন রাহুল। টুইটারে রাগা লিখেছেন, “প্রিয় নমো, ৫ বছরে আপনার অক্ষমতা ও ঔদ্ধত্যে আমাদের কৃষকদের জীবন নষ্ট হয়েছে। দিনে ১৭ টাকা করে ওঁদের জন্য বরাদ্দ করার অর্থ ওঁদের অপমান করা।” বিরোধী নেতা মল্লিকার্জুন খাড়গের কটাক্ষ, “টাকা দিয়ে ভোটারদের মন জয় করতে চাইছে সরকার। সরাসরি ভোটারদের ঘুষ দিচ্ছে।”

আরও পড়ুন, কেন্দ্রীয় বাজেট: মুখ্য দিকগুলির ব্যাখ্যা

প্রাক্তন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী পি চিদাম্বরম বলেছেন, “এটা ভোট-অন-অ্যাকাউন্ট ছিল না, এটা ‘অ্যাকাউন্ট ফর ভোট’ ছিল।” তৃণমূল সুপ্রিমো তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেন, “এটা দেখনদারির বাজেট, যার এক্সপায়ারি ডেট পেরিয়ে গিয়েছে। এ বাজেট লাগুই হবে না। ফলে এর কোনও মূল্য নেই।”

“এই বাজেটে পুরোপুরি হতাশ দিল্লিবাসী,” টুইট করেছেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল।

আরও পড়ুন, Railway Budget 2019: বাজেটে বরাদ্দ কমল ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রো প্রকল্পের

“অর্থমন্ত্রকের আধিকারিকরা বাজেট তৈরি করেছেন না কি আরএসএস করেছে?” প্রশ্ন তুলেছেন কর্নাটকের মুখ্যমন্ত্রী এইচ. ডি. কুমারস্বামী।

“অ্যাকাউন্টে টাকা লেনদেন একটা জুমলা,” কটাক্ষ সিপিএমের।

কিন্তু, বাজেট নিয়ে কী বলছে বণিক মহল? কেপিএমজি-র সিইও তথা চেয়ারম্যান অরুণ এম কুমার বলেছেন, “দেশের বৃদ্ধি তরান্বিত করতে এই বাজেট একটা সাহসী পদক্ষেপ।” আইসিসির তরফেও প্রেস বিবৃতিতে বলা হয়েছে, দেশের বৃদ্ধির জন্য অগ্রণী ভূমিকা পালন করবে এই বাজেট। মেডিকা গ্রুপ অফ হসপিটালসের চেয়ারম্যান ডা. অলোক রায় বলেছেন, দেশের দরিদ্র ও প্রান্তিক শ্রেণিকে সাহায্যের জন্য এই বাজেট বিশেষভাবে উল্লেখযোগ্য। গোদরেজ অ্যাপ্লায়েন্সের কমল নন্দী জানান, “কৃষক ও মধ্যবিত্ত শ্রেণির জন্যই এই বাজেট।”

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Budget news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Budget 2019 pm modi rahul gandhi piyush goyal chidambaram congress bjp