scorecardresearch

বড় খবর

পরীক্ষা কিছুতেই পিছবে না, ছাত্রদের লেখাপড়া করার নির্দেশ কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যর

দাবি, “তৃতীয় সেম চলাকালীন একাধিক ছুটি থাকার কারণে সিলেবাস শেষ করানো সম্ভব হয়নি কলেজের পক্ষে। এর ফলে পরীক্ষার জন্য যথাযথ প্রস্তুতি নিতে পারিনি। ভোট থাকলে পরীক্ষা পিছিয়ে দেওয়া হয়, তাহলে এক্ষেত্রে নয় কেন?”

ছাত্র ছাত্রীরা যতই পথে নেমে বিক্ষোভ দেখাক, পরীক্ষার দিন পিছিয়ে দেওয়া সম্ভব নয়, একথা সাফ জানিয়ে দিলেন কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য সোনালি চক্রবর্তী। পরীক্ষা পিছলে সর্বভরতীয় স্তরে যে সকল ছাত্রছাত্রী পরীক্ষা দেবে তাঁদের সমস্যায় পড়তে হবে। এমন যুক্তিই দিয়েছেন সোনালিদেবী। আর তাই বিশ্ববিদ্যালয় কখনও এমন সিদ্ধান্ত নিতে পারে না বলেও জানিয়েছেন তিনি। উল্লেখ্য, তৃতীয় সেমিস্টারে পাঠ শুরু হওয়ার দিন থেকেই জানিয়ে দেওয়া হয়েছিল যে ডিসেম্বর মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহ থেকে পরীক্ষা শুরু হবে। কিন্তু, ছাত্রছাত্রীদের দাবি, একাধিক ছুটি থাকার জন্য তাঁদের সিলেবাস শেষ হয়নি। তাই জানুয়ারি মাসে পরীক্ষা পিছিয়ে দেওয়ার দাবি জানিয়ে বুধ ও বৃহস্পতিবার কলেজস্ট্রিট চত্বরে দাবি আদায়ের জন্য প্রতিবাদ বিক্ষোভে নামে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনস্ত কলেজগুলির স্নাতক পড়ুয়াদের একাংশ।

আরও পড়ুন: প্রেসিডেন্সির ভোটে এসএফআই-এর দাপট, নিশ্চিহ্ন টিএমসিপি

কলেজস্ট্রিট চত্বরে চলে অবরোধ

উল্লেখ্য, বুধবার থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল ফটকের সামনে দফায় দফায় অবরোধ করে অবস্থান বিক্ষোভ করেছে তৃতীয় সেমিষ্টারের পড়ুয়ারা। একই দাবিতে বৃহস্পতিবার সকাল থেকেও ফের রাস্তা অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখায় পড়ুয়ারা। এদিন পড়ুয়াদের বিক্ষোভ আটকানোর জন্য আগে থেকেই ব্যারিকেড করে রেখেছিল পুলিশ৷ কিন্তু সেই ব্যারিকেড ভেঙে রাস্তার মাঝে বসে পড়েন পড়ুয়ারা৷ ফলে যানজটে নাকাল হয় কলেজস্ট্রিট ও সংলগ্ন চত্বর৷ যান চলাচল স্বাভাবিক রাখতে এদিন মেডিকেল কলেজ থেকে কলেজস্ট্রিট হয়ে মহাত্মা গান্ধি রোডগামী সমস্ত বাস ও গাড়িকে সূর্য সেন স্ট্রিটের দিকে ঘুরিয়ে দেওয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন: যাদবপুরে স্বশাসন-কেন্দ্রীয় অনুদানের দাবিতে রাজ্যপালের দ্বারস্থ জুটা

বিএস.সি, বি.এ তৃতীয় সেমিস্টারের পরীক্ষা শুরু হবে ১২ ডিসেম্বর থেকে। প্রথম সেমিস্টার শুরু হবে ২০ ডিসেম্বর থেকে। প্রতি পরীক্ষার পর সম্ভব হলে দুদিন করে ছুটি থাকবে বলেও জানিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। এদিন সোনালি চক্রবর্তী ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা-কে বলেন, “বিশ্ববিদ্যালয়ের কাজ সময় মতো পরীক্ষা নেওয়া। সিলেবাস শেষ করানোর দায়িত্ব কলেজের। পরীক্ষা পিছনোর কোনো অনুরোধ জানানো হয়নি কলেজের প্রিন্সিপালদের তরফ থেকে। অবরোধ করে সময় নষ্ট না করে এখন লেখাপড়া করা উচিত ছাত্র-ছাত্রীদের”।

যানজটের সৃষ্টি হয়

এদিকে ছাত্রছাত্রীদের দাবি, “তৃতীয় সেম চলাকালীন একাধিক ছুটি থাকার কারণে সিলেবাস শেষ করানো সম্ভব হয়নি কলেজের পক্ষে। এর ফলে পরীক্ষার জন্য যথাযথ প্রস্তুতি নিতে পারিনি। ভোট থাকলে পরীক্ষা পিছিয়ে দেওয়া হয়, তাহলে এক্ষেত্রে নয় কেন?”

আরও পড়ুন: রাজ্যে অষ্টম শ্রেণীর লাইফ সায়েন্স সিলেবাসে এবার সাপ

সোনালিদেবী বলেন,” সিবিসিএস (সেমিস্টার) পদ্ধতি একটা নিয়ম মেনে পর পর চলে। একটা পরীক্ষা পিছলে পরের পরীক্ষার সময় পাওয়া যাবে না। অন্যদিকে, চতুর্থ সেমিস্টারও তাহলে পিছিয়ে দিতে হয়, যা সম্ভব নয়”। বৃহস্পতিবার সন্ধে নামতেই অবরোধ তুলে নেয় পড়ুয়ারা।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Education news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Calcutta university declare 3rd semester 4th semester exam date