scorecardresearch

ঋত্বিকদা বলেছিল, ‘জানি আমায় কেন কাস্ট করছিস’: অভিমন্যু

সমালোচক থেকে দর্শকের মিশ্র প্রতিক্রিয়া পেয়েছে ‘টেকো’। বক্সঅফিসেও ভালই ফল করছে। বিতর্ক কাটিয়ে অবশেষে স্বস্তিতে পরিচালক অভিমন্যু মুখোপাধ্যায়। কথা বললেন ইন্ডিয়ান এক্সপ্রস বাংলার প্রতিনিধির সঙ্গে।

ঋত্বিকদা বলেছিল, ‘জানি আমায় কেন কাস্ট করছিস’: অভিমন্যু
অভিমন্যু মুখোপাধ্যায়। ফোটো- অভিমন্যুর ফেসবুক সৌজন্যে

গত শুক্রবার মুক্তি পেয়েছে ঋত্বিকের চুল নিয়ে চুলোচুলি অর্থাৎ ‘টেকো’। সমালোচক থেকে দর্শকের মিশ্র প্রতিক্রিয়া পেয়েছে এই ছবি। বক্সঅফিসেও ভালই ফল করছে। বিতর্ক কাটিয়ে অবশেষে স্বস্তিতে পরিচালক অভিমন্যু মুখোপাধ্যায়। কথা বললেন ইন্ডিয়ান এক্সপ্রস বাংলার প্রতিনিধির সঙ্গে।

একই বিষয়ে তিনটে ছবি, টেকো মুক্তিও পেল দেরিতে, সঙ্গে বিতর্ক। কোনও খারাপ লাগা রয়েছে?

না খারাপ লাগার কিছু নেই। এগুলো তো পার্ট। তাছাড়া প্রযোজনা সংস্থাও পুরোটা চেষ্টা করেছে। প্রমোশন, ছবির রিলিজ কোনটাতেই তো হাত নেই। তবে ছবিটা ভাল চলছে এটাই সবথেকে আনন্দের কথা।

বিজ্ঞাপনী সংস্থাগুলো আপনার উপর কতটা রেগে?

একদমই নয়। আসলে সুরিন্দর ফিল্মসের ছবি তো, সুতরাং বিজ্ঞপন আসতেই থাকবে (হাসি)। তবে সব বিজ্ঞাপন তো ভুয়ো হয় না, ১০টার মধ্যে তিনটে হয়তো এরকম হয়। যারা ভুলভাল হয়, ভুয়ো বিজ্ঞাপন দেয়, মিথ্যে প্রতিশ্রুতি দেয় এবং সেই ফাঁদে সাধারণ মানুষ পা দেয়। আমার ছবিটা সেই তিনটে বিজ্ঞাপনের বিরুদ্ধে বাকি সাতটার বিরুদ্ধে নয়।

আরও পড়ুন, একটু বড় হয়ে গিয়েছি, ম্যাচিওরড হয়ে গিয়েছি: রাজ

Abhimanyu
টেকো-র শুটিংয়ে পরিচালক। ফোটো- ফেসবুক

আরও পড়ুন, রেশমি-সিদ্ধার্থের রোমান্সে ঝড় উঠবে বিগ বসে!

তবে এই চিত্রনাট্যটা কীভাবে ভাবলেন?

আসলে আমার এক বন্ধুর মুখে ভীষণ ব্রণ হচ্ছিল। সে প্রচুর ক্রিম মাখছিল, কিন্তু কোনও কাজে দিচ্ছিল না। কলেজের এক বন্ধুর ব্রেকআপ হয়ে যায় চুল পড়ে যাচ্ছে বলে। এরকমই ছোট ছোট ঘটনা থেকেই মনে হল এরকম একটা চিত্রনাট্য তো লেখা যায়।

তবে টেকো -র সমর্থনে তো টলিউড আপনার পাশে…

একদম সবাই টুইট করেছে। যারা খুব একটা সোশাল মিডিয়ায় সক্রিয় নয় তারাও পাশে দাঁড়িয়েছে। রাজদা (রাজ চক্রবর্তী) আমার গুরু, তাই রাজদা তো করেইছে। পাশাপাশি সৃজিতদা (সৃজিত মুখোপাধ্যায়), মৈনাকদা (মৈনাক ভৌমিক), শিবুদা (শিবপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়) প্রত্যেকে সরব হয়েছেন। কৌশিকদা (কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায়) আলাদা করে শুভেচ্ছা জানিয়েছে।

ritwick
‘টেকো’ মুক্তি পেয়েছে ২২ নভেম্বর। ফোটো- টুইটার

আরও পড়ুন,  ‘বব বিশ্বাস’-এর ভূমিকায় অভিষেক? ছবির ঘোষণা নিয়ে চাঞ্চল্য সোশাল মিডিয়ায়

ঋত্বিক চক্রবর্তীর সঙ্গে কাজের অভিজ্ঞতা…

কেটে এটা আর নতুন করে বলার অপেক্ষা রাখে না। যেভাবে ঋত্বিকদা বিষয়টা পর্দায় ফুটিয়ে তুলেছে সেটা ওঁর পক্ষেই সম্ভব। তবে প্রথমবার যখন চিত্রনাট্যটা শোনাই, ”দাদা বলেছিল জানি কেন আমায় কাস্ট করছিস (হাসি)।”

টেকো কী বক্সঅফিসে আশাপূরণ করেছে?

এখনও পর্যন্ত বলতে গেলে হ্যাঁ করেছে। একই ভাবনায় তিনটে ছবি ছিল, তাও দর্শক যেভাবে সাড়া দিয়েছে তা অভাবনীয়। ট্রেলার ও গান- মুক্তি পাওয়ার পর মূহুর্তে জনপ্রিয় হয়ে যায়। দর্শক বিষয়টার সঙ্গে রিলেট করতে পারবে।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Entertainment news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Abhimanyu mukherjee on his film teko