scorecardresearch

বড় খবর

মুখ ফেরালেন মা-ও! জেলে কেঁদে ভাসাচ্ছেন অর্পিতা, দিনরাত পার্থকে শাপ-শাপান্ত নায়িকার

আলিপুর মহিলা সংশোধনাগারে দিনরাত কপাল চাপড়াচ্ছেন অভিনেত্রী।

মুখ ফেরালেন মা-ও! জেলে কেঁদে ভাসাচ্ছেন অর্পিতা, দিনরাত পার্থকে শাপ-শাপান্ত নায়িকার
উথসবের মাসে জেল হেফাজতেই 'অপা'।

বাংলার পাশাপাশি ওড়িয়া-তামিল ইন্ডাস্ট্রিতে কাজ করেছেন। মডেলিং-এও নাম করেছিলেন। নাকতলা পুজোর মুখ, সেই অভিনেত্রীর-ই বর্তমানে রাজ্যের SSC দুর্নীতি-কাণ্ডে নাম জড়িয়ে ঠাঁই হয়েছে জেলে। অর্পিতা মুখোপাধ্যায়ের ঠিকানা এখন আলিপুর মহিলা সংশোধনাগারের ২ নম্বর ঘর। দিনরাত কপাল চাপড়াচ্ছেন জেলে। কারণ, নায়িকা-মেয়ের থেকে মুখ ফিরিয়েছেন মা মিনতি মুখোপাধ্যায়ও।

৩০০ স্কোয়ার ফিটের ঘরে ১৯জন সহ-বন্দির সঙ্গে কাটাতে হচ্ছে প্রতিটা মুহূর্ত। সেই ঘরেই শৌচালয়। যিনি কিনা বিলাসবহুল জীবনযাত্রায় অভ্যস্ত, তার এমন দশার জন্য দিনরাত দুষছেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে। জেল সূত্রে খবর, গোড়ার দিকে যদিও চেনা ২-৪জন খোঁজখবর করতেন অর্পিতার, এখন সময়ের সঙ্গে সেসবেও ভাঁটা পড়েছে। পার্থ-সারথী অর্পিতার আশঙ্কা, এভাবেই বোধহয় গোটা জীবনটা কাটাতে হবে। আর সেই ভয়েই কেঁদে ভাসাচ্ছেন তিনি।

[আরও পড়ুন: মোদীর দফতরে চপ্পল পায়ে মিলিন্দ সোমান, গোপাল উপহার দিয়েও বিতর্কে!]

মাঝরাতে নাকি ঘুমও ভেঙে যাচ্ছে অভিনেত্রীর। এদিকে মেয়ের এমন অবস্থাতেও পাশে থাকতে নারাজ অর্পিতা মুখোপাধ্যায়ের মা। নায়িকার আইনজীবী জানান, মিনতিদেবীর সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে, তিনি স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন যে মেয়ের সঙ্গে দেখা করার জন্য জেলে আসতে পারবেন না তিনি। মা কিংবা ঘনিষ্ঠ কাউকেই কাছে না পেয়ে চূড়ান্ত মানসিক অবসাদ গ্রাস করেছেন অভিনেত্রীকে।

আদালতের কাছে নিরাপত্তার আর্জি জানিয়েছিলেন অর্পিতা মুখোপাধ্যায়। নায়িকার সেই আর্জি মেনে বর্তমানে দিনরাত পালা করে কোনও না কোনও মহিলা দেহরক্ষী থাকছেন তাঁর সঙ্গে। বাইরে বেরনো মানা। শুধু আইনজীবী এলে সংশোধনাগারের অফিসঘরে নিয়ে যাওয়া হয় তাঁকে। ইচ্ছে হলে অভিনেত্রী হলঘরের বারান্দায় হাঁটেন। কারণ

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Entertainment news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Arpita mukherjees mother doesnt want to visit her in jail