বড় খবর


শুধু শিল্পীরা নন, বকেয়া টাকা নিয়ে নাজেহাল টেকনিশিয়ানরাও

Bengali Television: একটি ধারাবাহিকের ইউনিটে শিল্পীরা যতটা গুরুত্বপূর্ণ, টেকনিশিয়ানরাও তাই। এই মুহূর্তে টেলিপাড়ার শিল্পীদের মতোই বকেয়া টাকা নিয়ে নাজেহাল তাঁরাও।

Bengali television technicians worried about payment recovery
টেকনিশিয়ান্স স্টুডিও। এখানেই রয়েছে আর্টিস্ট ফোরাম ও বিভিন্ন গিল্ডের অফিস। ছবি: ফেসবুক পেজ থেকে

Bengali Television: পয়লা মে সন্ধ্য়ায় বকেয়া টাকা উদ্ধারের ইস্যুতে আপৎকালীন বৈঠক ডেকেছে আর্টিস্ট ফোরাম। যেহেতু বাংলা বিনোদন জগতের সবচেয়ে বড় সংগঠন, ফেডারেশন অফ সিনে টেকনিসিয়ানস অ্যান্ড ওয়াকার্স অফ ইস্টার্ন ইন্ডিয়া-র অন্তর্গত এই ফোরাম, তাই ওই বৈঠকে ফেডারেশনের প্রতিনিধিদেরও অংশ নিতে আহ্বান জানানো হয়েছে। ফেডারেশন ও ফোরামের পদাধিকারীদের হস্তক্ষেপে বকেয়া টাকা উদ্ধার হবে, এমনটাই আশা শিল্পীদের। কিন্তু শুধু শিল্পীরা নন, টেকনিশিয়ানরাও বকেয়া টাকা নিয়ে নাজেহাল। এতদিন এই বিষয়ে তাঁদের সঙ্ঘবদ্ধ হওয়ার কোনও আভাস মেলেনি। কিন্তু টেলিপাড়ার গোপন সূত্রের খবর, আর খুব বেশিদিন বকেয়া টাকা নিয়ে চুপ করে থাকবেন না তাঁরা।

পয়লা মে সকালে টেকনিসিয়ান্স স্টুডিওতে বিশেষ জমায়েত ছিল টেকনিশিয়ানদের। কিন্তু ওই জমায়েতে বকেয়া টাকা ইস্য়ুতে পদক্ষেপের ব্যাপারে আলোচনা হয়েছে কি না তা এখনও জানা যায়নি। টেলিপাড়ার একটি সূত্রের খবর, নিতান্তই রুটিন জমায়েত ছিল। আবার অন্য় একটি গোপন সূত্রের খবর, টেকনিশিয়ানদের একাংশে পেমেন্ট সংক্রান্ত অসন্তোষ অত্যন্ত তীব্র হয়ে উঠেছে। তবে এখনও পর্যন্ত টেকনিশিয়ান্স গিল্ড কোনও পদক্ষেপ নেয়নি।

আরও পড়ুন: শ্রমিক দিবসেই মিলতে পারে সমাধান, আশাবাদী টেলিপাড়া

বাংলা বিনোদন জগতে প্রযোজনার সঙ্গে যুক্ত প্রত্য়েকটি ডিপার্টমেন্টের টেকনিশিয়ানদের গিল্ড রয়েছে। পরিচালক, সিনেম্যাটোগ্রাফার থেকে মেকআপ আর্টিস্ট, প্রত্য়েকেই নির্দিষ্ট গিল্ডের সদস্য। এই সব গিল্ডগুলিই ফেডারেশনের আওতায় পড়ে। ফেডারেশনের সাম্প্রতিক নিয়ম অনুযায়ী, গিল্ডের কার্ড না থাকলে সচরাচর ছোটপর্দা এবং বড়পর্দার কোনও প্রজেক্টে কাজ করা যায় না। আবার কাজের ক্ষেত্রে পেমেন্ট বা অন্য কোনও অসুবিধা হলে সদস্য়রা নির্দিষ্ট গিল্ডের কাছে গিয়েই তাঁদের সমস্যার কথা জানান। অথচ প্রযোজক রানা সরকারের বিভিন্ন প্রজেক্টে যে সমস্ত টেকনিশিয়ান কাজ করেছেন, তাঁদের বেশিরভাগেরই দীর্ঘদিনের পারিশ্রমিক বকেয়া থাকা সত্ত্বেও গিল্ড এখনও কেন এই বিষয়ে কোনও পদক্ষেপ নিল না সেটাই ভারি আশ্চর্যের বিষয়।

আরও পড়ুন: সব প্রযোজক টাকা বাকি রাখেন না, বলছে টেলিপাড়া

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক শিল্পী জানালেন, ”আজ সন্ধ্য়ায় আর্টিস্ট ফোরামের মিটিংয়ের উপর অনেক কিছুই নির্ভর করছে। যদি শিল্পীদের সমস্য়ার সুরাহা হয় তবে টেকনিশিয়ানরাও খানিকটা আশার আলো দেখবেন। কারণ এমনটা তো হতে পারে না যে শুধু অভিনেতা-অভিনেত্রীদের বকেয়া টাকা উদ্ধার হবে অথচ পরিচালক, ডিওপি, মেকআপ আর্টিস্টরা পথে বসবেন। আমরা একটা বড় পরিবারের মতো। যেহেতু সাংগঠনিক দিক থেকে আমাদের কিছু নিয়মকানুন রয়েছে, তাই আমার সরাসরি টেকনিশিয়ানদের ব্যাপারটা নিয়ে কোনও পদক্ষেপ নিতে পারব না। তার জন্য টেকনিশিয়ানদের গিল্ড এবং ফেডারেশনের পদাধিকারীরা রয়েছেন, তাঁরা নিশ্চয়ই কিছু ব্যবস্থা করবেন। তবে এইটুকু বলতে পারি, আমরা শিল্পীরা ওদের পাশে আছি আর ওরাও আমাদের পাশে আছে।”

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা-র পক্ষ থেকে এই বিষয়ে একাধিক টেকনিশিয়ানদের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছে। কিন্তু তাঁদের কেউই সংবাদমাধ্যমের কাছে আনুষ্ঠানিক বিবৃতি দিতে রাজি নন।

Web Title: Bengali television technicians worried about payment recovery

Next Story
ফের নেটপাড়ায় সোচ্চার স্বস্তিকা, তোপ রাজনীতিবিদদেরswastika
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com