scorecardresearch

‘ওরা মাসি, বাবু ধরে কাজ পেয়েছে!’, টলিউডের লিঙ্গবৈষম্যের বিরুদ্ধে ‘সরব’ ভাস্বর

অভিনয় জগতে মহিলা কর্মীদের কটুক্তি করা নিয়ে প্রতিবাদ ভাস্বর চট্টোপাধ্যায়ের। কী বলছেন অভিনেতা?

Bhaswar Chatterjee, tollywood
অস্ত্রোপচার হল অভিনেতা ভাস্বর চট্টোপাধ্যায়ের

সোশ্যাল মিডিয়ায় আবারও প্রতিবাদী পোস্ট ভাস্বর চট্টোপাধ্যায়ের (Bhaswar Chatterjee)। এবার আওয়াজ তুললেন বাংলা সিনেইন্ডাস্ট্রিতে মহিলা কর্মীদের অবস্থান নিয়ে। ভাস্বরের কথায়, যুগ বদলালেও, লিঙ্গবৈষম্য এখনও মোছেনি। এমনকী অভিনয় জগতেও একই পরিস্থিতি। আড়ালে-আবডালে অনেক মহিলা কর্মীদেরই সেটে ‘বড় মাসি’ কিংবা ‘ছোট মাসি’ বলে সম্বোধন করা হয়।

ভাস্বর চট্টোপাধ্যায় বরাবরই প্রতিবাদী। তাঁর একাধিক ফেসবুক পোস্ট নিয়ে এক আগেও একাধিকবার শোরগোল বেঁধেছে। এবারও অভিনেতা মুখ খুললেন অভিনয় জগতে মহিলা কর্মীদের করা কটুক্তি নিয়ে। ফেসবুক পোস্টে তুলে ধরলেন অভিনয়জগতের কথা।

অভিনেতা লিখেছেন, “নারী-পুরুষ সমান সমান মান্না দে গাইলেও আমাদের মানতে কষ্ট হয়। আমি আমার কাজের জায়গার কথা বলতে পারি। এখানে অনেক মহিলা আছেন যাঁরা এক্সিকিউটিভ প্রোডিউসার বা কস্টিউম ডিজাইনার অথবা কাস্টিং ডিরেক্টর হিসেবে কাজ করেন। এঁদের নিয়ে সেটে সারাদিন নানা মন্তব্য শোনা যায়। কেউ বলছে, বাবু ধরে কাজ পেয়েছে। কেউ বলছে, ছাড় তো ও কিচ্ছু জানে না।”

[আরও পড়ুন: সারা আলি খানের নাক কেটে গিয়ে রক্তারক্তি কাণ্ড! শেয়ার করলেন ভিডিও]

পাশাপাশি মহিলাদের কীভাবে কটুক্তি, সমালোচনার শিকার হতে হয়, সেকথাও তুলে ধরেছেন পোস্টে ভাস্বর। তাঁর কথায়, “কেউ আবার তাঁদের আড়ালে বড় মাসি, ছোট মাসি বলে ডাকছে। এক পা-ও এগোইনি আমরা উল্টে রোজ পিছিয়ে যাচ্ছি। আজে-বাজে কথা ছেড়ে নিজেদের কাজে মন দিলে পুরো কাজটাই ভাল হবে, এটা বুঝবো কি কোনোদিনও?”

ভাস্বর চট্টোপাধ্যায়ের এই প্রতিবাদী পোস্টে ইতিমধ্যেই সমর্থন জানিয়েছেন ইন্ডাস্ট্রি তথা নেটিজেনদের একাংশ। অভিনেতার আক্ষেপ, “ইন্ডাস্ট্রিতে শুধু পুরুষরাই নন, মহিলারাও এভাবে অপর একজন মহিলাকে কটুক্তি করে থাকেন। চোখের সামনে দেখা।” সেই ভাবনা থেকেই সম্ভবত এই প্রতিবাদী পোস্ট ভাস্বরের।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Entertainment news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Bhaswar chatterjee protest against gender inequality in cine industry