বড় খবর

এবারও একগুচ্ছ বাংলা ছবি মনোনীত ইফি-তে

বরাবরই বাংলা ছবির রমরমা দেখা যায় ইফিতে। প্যানোরামা সেকশনে মনোনীত হয়েছে পাঁচটি ছবি। কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায়ের ছবি ‘নগরকীর্তন’, অভিষেক সাহার ছবি ‘উড়নচণ্ডী’, অর্জুন দত্তর ‘অব্যক্ত’, সৃজিত মুখোপাধ্যায়ের ‘উমা’ এবং অরিজিৎ সিংয়ের ‘সা’।

অর্জুন, অভিষেক, অরিজিৎদের মতো নতুন পরিচালকের ছবিতেই ইফি জয় বাংলার

ইফি অর্থাৎ ইন্টারন্যাশনাল ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল অফ ইন্ডিয়া-তে এবারও মনোনীত হয়েছে একগুচ্ছ বাংলা ছবি। বরাবরই বাংলা ছবির রমরমা দেখা যায় ইফিতে। প্যানোরামা সেকশনে মনোনীত হয়েছে পাঁচটি ছবি। কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায়ের ছবি ‘নগরকীর্তন’, অভিষেক সাহার ছবি ‘উড়নচণ্ডী’, অর্জুন দত্তর ‘অব্যক্ত’, সৃজিত মুখোপাধ্যায়ের ‘উমা’ এবং অরিজিৎ সিংয়ের ‘সা’। গোয়ার আয়োজিত হতে চলেছে ৮৯ তম চলচ্চিত্র উৎসব।

নগরকীর্তন এবারে জাতীয় পুরস্কারে মঞ্চেও সামদৃত হয়েছে। বিগত অনেক বছর ধরে ইফিতে মনোনয়ন পেয়ে চলেছেন কৌশিক। উনিশ বছরের ঋদ্ধি সেন কৌশিকের পরিচালিত নগরকীর্তন ছবিতে অভিনয়ের জন্য জাতীয় পুরস্কার পেয়েছেন। ছবিতে তিনি অভিনয় করেছেন ঋত্বিক চক্রবর্তীর বিপরীতে। নগরকীর্তন এক বাঁশিওয়ালা ও একজন রূপান্তরকামীর ভালবাসার গল্প। শুধু তাই নয়, কান চলচ্চিত্র উৎসবেও প্রতিযোগিতা বিভাগে এশিয়ার মোট ন’টি ছবির মধ্যে একটি ছিল নগরকীর্তন।

উড়নচণ্ডী ছবির পরিচালক সহ কলাকুশলীরা

আরও পড়ুন: ঐশ্বর্য রাই বচ্চনের ক্লাসিক অ্যাপিলই তাঁকে পিরিয়ড ছবিতে জায়গা করে দিয়েছে

এরপরে রয়েছে অভিষেক সাহার ডেবিউ ছবি উড়নচণ্ডী। একটি লরি, তিনজন বিভিন্ন বয়সের মহিলা, এ ছবির গল্পের বিন্দু তৈরি হয়েছে এঁদের নিয়েই। দৈনন্দিন বন্দিত্ব থেকে স্বাধীনতা এ ছবির অন্যতম উপজীব্য। একটি রোড ট্রিপে মুক্তির রাস্তা খোঁজা তিন উড়নচণ্ডীর ভূমিকায় অভিনয় করেছেন চিত্রা সেন, সুদীপ্তা চক্রবর্তী ও রাজনন্দিনী দত্ত। বাংলা ছবি ‘রোড মুভি’ শব্দটার সঙ্গে পরিচিত নয় বিশেষ একটা। পরিচালক অভিষেক সাহার ভাবনা আর সুদীপের লেখায় সেটা দেখতে পেয়েছেন বাংলার দর্শক।

উমায় রিল লাইফ এবং রিয়েল লাইফ বাবা-মেয়ে

আর সৃজিত মুখোপাধ্যায়ের উমা পাড়ি দিচ্ছে ইফিতে। কানাডায় ইভান নামের একটি শিশুর ইচ্ছেপূরণের জন্য ক্রিসমাসের আগেই ক্রিসমাসের আয়োজন করেছিলেন তার মা। সৃজিতের ছবিতে দুর্গোৎসবের আয়োজন করেন এক বাবা। ইভানের জীবনের সত্য ঘটনাকেই নতুন মোড়কে পেশ করেন সৃজিত। ছবিতে দেখা যায় মৃত্যুপথযাত্রী অস্ট্রিয়াবাসী উমাকে। নিষ্পাপ শিশুটি তার বাবাকে জানায় তার দুর্গাপুজো দেখার সাধ। হাতে সময় খুব কম, একথা ভেবেই অসময়ে মেয়ের জন্য দুর্গোৎসবের ব্যবস্থা করেন তার বাবা।

অর্পিতা চট্টোপাধ্যায়, অব্যক্ত ছবিতে।

পরিচালক অর্জুন দত্তও নবাগত। ইন্দ্রর জীবনের ওঠাপড়ার সঙ্গে কীভাবে জড়িয়ে যায় তার মা সাথী, বাবা কৌশিক ও প্রিয় কাকু রুদ্রর জীবনের গতিপথ, তাই নিয়েই তৈরি হয়েছে তাঁর ছবির প্লট। ছবিতে দ্বৈত চরিত্রে অভিনয় করছেন অর্পিতা। উত্তর কলকাতার বনেদি বাড়ির বউ সাথী। চরিত্রটার একটি নিজস্ব দৃষ্টিভঙ্গি আছে। আর অ্যাডেড ফ্যাক্টর অবশ্যই আদিল হুসেন। আদিলের চরিত্রের নাম রুদ্র। এই নিয়েই ছবি অব্যক্ত।

আর সবশেষে ইফিতে বাংলা ছবির তালিকায় মনোনীত হয়েছে অরিজিৎ সিংয়ের ছবি সা। সব মিলিয়ে চোখ বোলালে দেখা যাবে অর্জুন, অভিষেক, অরিজিৎদের মতো নতুন পরিচালকের ছবিতেই ইফি জয় বাংলার।

Web Title: Five bengali movies in iffi panorama

Next Story
নানা পাটেকরের জায়গা নিলেন রাণা ডাগ্গুবাটি
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com