scorecardresearch

বড় খবর

‘আমাদের বাঁচান প্লিজ’, কাবুল থেকে ফোনে মেসেজ! অসহায় পরিচালক কবীর খান

‘কাবুল এক্সপ্রেস’ সিনেমার শুটের সময় তালিবানিদের কাছ থেকে খুনের হুমকি খেয়েছিলেন বলিউড পরিচালক-সহ টিম।

Khan on Afghanistan, Kabir Khan, bollywood on Afghanistan, Kabul, Taliban, আফগানিস্তান, কবীর খান, কাবুল এক্সপ্রেস
আফগানিস্তানের পরিস্থিতি দেখে অসহায় পরিচালক কবীর খান

Kabir Khan on Afghanistan: “আপনি কি একটু সাহায্য করতে পারেন? দয়া করে আমাদের বাঁচান”, কাবুল থেকে ক্রমাগত কবীর খানের ফোনে মেসেজ এসে চলেছে। কিন্তু মুম্বইতে বসে অসহায় বোধ করছেন বলিউড পরিচালক। উপায় নেই, কাবুলের ভারতীয় দূতাবাস এখন বন্ধ। বিদেশ মন্ত্রকে যোগাযোগ থাকলেও তাঁরা কিচ্ছুটি করতে পারবেন না, তাই কাবুল থেকে চেনা মানুষগুলোর আর্তি দেখেও অসহায় বোধ করছেন কবীর। আসলে নিজের ফিল্মি কেরিয়ারের শুরুয়াৎ-ই করেছিলেন আফগানিস্তানে গিয়ে নানা ডকুমেন্টরি শুট করে। এমনকী, বলিউডে কবীর খানের (Kabir Khan) ডেবিউ ছবি ‘কাবুল এক্সপ্রেস’-ও সেই দেশের রাজনৈতিক-সামাজিক প্রেক্ষাপটেই তৈরি হয়েছে। শুট-ও হয়েছিল রিয়েল লোকেশন অর্থাৎ আফগানিস্তানের বিভিন্ন জায়গায়। আর যখন সেই দেশ তালিবানি শাসনে, ক’জন চেনা-পরিচিতরা সাহায্য চাইছেন তাদের রক্তচক্ষু থেকে বাঁচতে, কবীর সাহায্য করতে পারছেন না। আর সেই জন্যই বলছেন অসহায় লাগছে নিজেকে কীরকম।

‘কাবুল এক্সপ্রেস’ (Kabul Express)- এর সময়ে প্রযোজক আদিত্য চোপড়া নাকি কবীর খানকে আগেই বলেছিলেন, আফগানিস্তানে শুট করা খুব কঠিন। পর যদিও নিজের যোগাযোগ কাজে লাগিয়ে সেখানে সিনেমার শুটিং করে এসেছিলেন পরিচালক। তবে শুটিংয়ের সময়ও তালিবানিদের কাছ থেকে প্রাণনাশের হুমকি খেতে হয়েছিল কবীর খান-সহ গোটা টিমকে। সেকথা সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন পরিচালক। তিনি জানান, “কাবুলে শুটিংয়ের সময় তালিবানদের কাছে খুনের হুমকি খেয়েছিলাম। তবে সেই সময়ে আমার ওখানকার পরিচিত লোকেরা খুব সাহায্য করেছিল আমাদের। এমনকী, স্থানীয় প্রশাসন ও সরকারের কাছেও সাহায্য পেয়েছিলাম। আর আজ যখন সেই মানুষগুলোই আমার কাছে প্রাণে বাঁচতে চেয়ে সাহায্যের জন্য আর্তি জানাচ্ছেন, আমি অপারগ। তাই অসহায় লাগছে।”

[আরও পড়ুন: স্বামী রাজ কুন্দ্রার পর্নকাণ্ড বিতর্ক অতীত! ‘সুপার ডান্সার’ শোয়ে স্বমহিমায় শিল্পা শেট্টি]

‘কাবুল এক্সপ্রেস’ সিনেমার দৃশ্য

আফগানিস্তানের উপর তালিবানিরা দখল নেওয়ায় দেশে অরাজকতার সৃষ্টি হয়েছে। সেই প্রেক্ষিতেই পরিচালক কবীর খান নিজের তোলা আফগানিস্তানের বেশ কয়েকটি ছবি শেয়ার করে ভগ্নহৃদয়ের ইমোজি দিয়েছেন। কবীর খানের আশঙ্কা, “তালিবানরা সম্ভবত এবার আর আফগানিস্তানের শিল্পীদের বাঁচতে দেবেন না।” সেই একই কথা আফগান সিনেপরিচালক সাহারা করিমির মুখেও শোনা গিয়েছিল। গোটা বিশ্বের বিনোদুনিয়ার কাছে করিমি আর্জি জানিয়েছিলেন তাঁদের পাশে দাঁড়ানোর। সেই ডাকে সাড়া দিয়েছেন টলিউড, বলিউডের অনেকেই।

https://platform.twitter.com/widgets.js

উল্লেখ্য, বলিউড থেকে প্রথম আফগানিস্তানে শুট করতে গিয়েছিলেন হেমা মালিনী ( Hema Malini on Afghanistan)। ফিরোজ খানের বিপরীতে ‘ধর্মাত্মা’ ছবির শুটিংয়ের সিংহভাগটাই হয়েছিল সেখানে। বর্তমানে আফগানিস্তানের এমন হৃদয়বিদারক পরিস্থিতি দেখে বলিউডের প্রবীণ অভিনেত্রী হেমা মালিনীও টুইট করেছেন।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Entertainment news download Indian Express Bengali App.

Web Title: I am helpless as same people are asking me for help says kabir khan