scorecardresearch

বড় খবর

‘খলনায়ক সুলভ চেহারা তাই ছোট করত বলিউড’, বিস্ফোরক দাবি করেছিলেন ইরফান

বলিউডে ব্রাত্য হয়েও তাবড় হলিউড ব্যক্তিত্বদের থেকে প্রশংসা কুড়িয়েছিলেন। ইরফান খানের দ্বিতীয় মৃত্যুবার্ষিকীতে ফিরে দেখা।

‘খলনায়ক সুলভ চেহারা তাই ছোট করত বলিউড’, বিস্ফোরক দাবি করেছিলেন ইরফান
ইরফান খান

ইরফান-হীন বলিউডের দ্বিতীয়বর্ষ। প্রথম জীবনে বলিউডে নিজেকে অভিনেতা হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে যেমন বেগ পেতে হয়েছিল ইরফান খানকে, তেমন ব্যক্তিগত জীবনেও মারণ কর্কট রোগের সঙ্গে তে দাঁত চেপে লড়াই চালিয়ে গিয়েছিলেন। এক গাল হাসি নিয়ে জীবনের দিকে হাত বাড়িয়ে দিয়েছিলেন। বাঁচার আশায়। কেরিয়ারের একেবারে গোড়ার দিকে চেহারা নিয়ে কটাক্ষ শুনতে হয়েছিল। কোটরে ঢোকা চোখ, ছাপোষা লুক, কথা বলায় কোনওরকম আভিজাত্য নেই, হিরো হিসেবে কে নেবে এঁকে? প্রশ্ন তুলে অনেকেই মুখের ওপর দরজা বন্ধ করে দিয়েছিলেন। তবে সেই মানুষটিই একদিন দক্ষ অভিনয়ের মাধ্যমে বলিউড তো বটেই এমনকী সূদূর পাশ্চাত্যের বিনোদুনিয়াতেও নজর কেড়েছেন। প্রকাশ্যেই ইরফান খানের প্রশংসা করতে কুণ্ঠাবোধ করেননি তাবড় হলিউডি ব্যক্তিত্বরা।

একবার ইরফান নিজমুখেই দাবি করেছিলেন যে, খলনায়ক সুলভ চেহারার জন্য বলিউড তাঁকে ছোট করে আনন্দ পেত। ২৯ এপ্রিল ইরফান খানের দ্বিতীয় মৃত্যুবার্ষিকীতে সেই প্রসঙ্গ আরও একবার উল্লেখ্য। ২০০৯ সাল। এক সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে ইরফান বলেছিলেন, তিনিও যে গল্পের মূল অভিনেতা হতে পারেন, বলিউড সেটা আবিষ্কার করেছিল তাঁর একাধিক আন্তর্জাতিক পুরস্কার পাওয়ার পর। দ্য ওয়ারিয়র- এর সুবাদেই পশ্চিমী বিনোদুনিয়ায় অভিনয়ের শিঁকে ছেড়ে ইরফানের।

এরপরই সেই সাক্ষাৎকারে বিস্ফোরক দাবি করেন ‘মকবুল’, ‘দ্য নেমসেক’, ‘পান সিং তোমার’, ‘লাঞ্চবক্স’ অভিনেতা। বলেন, “বলিউড হয়তো ভাবত আমার খলনায়কসুলভ চেহারা। কিন্তু আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন পরিচালকরা আবিষ্কার করে যে, আমিও একজন সংবেদনশীল মানুষের ভূমিকায় অভিনয় করতে পারি। আর তাই, ওঁরাও আমাকে গল্পের সুবোধ মানুষ হিসেবে কাস্ট করা শুরু করলেন। এরপরই ইরফান বলেন, আমি আমার উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ দেখতে পাচ্ছি। বলিউডে কাজ করব না বেশি করে হলিউড ছবিতে অভিনয় করব, সেটা নির্বাচন করার জন্য আমার পায়ের তলার মাটি এখন শক্ত।”

[আরও পড়ুন: পুলে সাঁতার কাটছিলেন প্রিয়াঙ্কা, ভিডিও দেখে অনুরাগীদের প্রশ্ন, ‘এঁর বয়স বাড়ে না?’]

চেহারার জন্য বলিউডে গোড়ার দিকে ব্রাত্য থাকলেও হলিউড পরিচালকরা তাঁর প্রশংসা করেছেন সদর্পে। ‘দ্য অ্যামেজিং স্পাইডার-ম্যান’ পরিচালক মার্ক ওয়েব তাঁর অভিনয়ে মুগ্ধ হয়ে রবিনা টন্ডনের শো ইটস মাই লাইফ-এ এক ভয়েস রেকর্ড পাঠিয়েছিলেন। যেখানে তিনি সাফ বলেছিলেন,”হলিউডে ইরফান খান এখন যেভাবে গুরুত্ব পাচ্ছেন, সেটা কিন্তু বেশ মজার বিষয়। বহু পরিচালক ওঁর অভিনয়ে মুগ্ধ। এমনকী, অনেকে তো ওঁকে কাস্ট-ও করতে চাইছেন। যেমন, ইরফান এখানে ইন দ্য ট্রিটমেন্ট নামে একটা শো করেছিল সেখানে ওঁর পারফরম্যান্স দারুণ। ড্যানি বয়েল হোক কিংবা অ্যাং লি’র মতো বহু জনপ্রিয় পরিচালকেরই নজর রয়েছে ওঁর ওপর। সুদূর ভারতের মতো দেশ থেকে এলেও ইরফান খানের মতো অভিনেতাদের দেখলে বোঝা যায়, ওঁরা কত কাছের আমাদের।”

হলিউড আইকন টম হ্যাঙ্কসের সঙ্গেও ‘ইনফার্নো’তে কাজ করেছেন ইরফান। এতটাই মুগ্ধ হয়েছিলেন যে ভারতীয় অভিনেতাকে নিজে হাতে লিখে একটা চিঠি পাঠান তিনি। শুধু তাই নয়, সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে একবার টম হ্যাঙ্কস ইরফান প্রসঙ্গে এও বলেন যে, “ইরফান তোমার একটা জিনিসে আমার খুব হিংসে হয়। বলতে পারো, আমার খারাপ লাগে। এতদিন আমি ভাবতাম আমি একাই বোধহয় ‘কুল গাই’ ইমেজ ধরে রাখি। আমি যখনও কোথাও যাই সবার নজর আমার ওপর থাকে। তবে ইরফানকে যখন ঘরে ঢুকল তখন দেখলাম সবার নজর ঘুরে গেল। আমি বলব ও হচ্ছে Coolest guy। আমি তৎক্ষণাৎ ওঁর সামনে গিয়ে রসিকতা করে বলি, আমার পক্ষে যতটা সম্ভব, আমি সবটা তোমার কাছ থেকে ছিনিয়ে নেব ইরফান।”

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Entertainment news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Irrfan khan once said that bollywood enjoys demonising him because of his devilish looks