scorecardresearch

বড় খবর

১৫ বছরে চারটে জাতীয় পুরস্কার, সবাইকে টেক্কা দিয়ে ‘বলিউড সম্রাজ্ঞী’ কঙ্গনা রানাউত

আপাদমস্তক সোনার গয়নায় সেজে বললেন, “মা-বাবাকে এত্ত জ্বালিয়েছি…”

Kangana Ranaut, Kangana Ranaut's 4th national award, Dadasaheb Falke Award, Indian Film Industry, bollywood, কঙ্গনা রানাউত, চতুর্থ জাতীয় পুরস্কার কঙ্গনার, দাদাসাহেব ফালকে পুরস্কার, মণিকর্ণিকা, পাঙ্গা, bengali news today
১৫ বছরে চারটে জাতীয় পুরস্কার পেলেন কঙ্গনা রানাউত

National Film awards 2021: ১৫ বছরের ফিল্মি কেরিয়ারে চার-চারটে জাতীয় পুরস্কার। কম কথা নয়। বলিউডের কোনও নায়কও এত কম সময়ে একাধিক জাতীয় পুরস্কারের অধিকারী হননি সম্ভবত। অতঃপর কঙ্গনা রানাউত (Kangana Ranaut) আপাতত সপ্তম স্বর্গে। উপরন্তু জোড়া ছবির জন্য ‘সেরা অভিনেত্রী’ নির্বাচিত হয়েছেন তিনি। তাই ডবল সেলিব্রেশন তো বটেই! ২০১৯ সালের ‘মণিকর্ণিকা: দ্য ক্যুইন অফ ঝাঁসি’, অন্যদিকে ২০২০ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত ‘পাঙ্গা’- এই দুই সিনেমাই কঙ্গনার ফিল্মি কেরিয়ারের মার্কশিটে নয়া মাইলফলক যোগ করল। এই প্রেক্ষিতে দীপিকা পাড়ুকোন, করিনা কাপুর, আলিয়া ভাট থেকে শুরু করে কাজল, রানি মুখোপাধ্যায় প্রথম সারির সব অভিনেত্রীকে টেক্কা দিয়ে প্রকৃতপক্ষেই ‘বলিউড সম্রাজ্ঞী’ খেতাবের অধিকারী কঙ্গনা রানাউত। কিন্তু কঙ্গনা যেখানে বিতর্কের স্ফুলিঙ্গও সেখানে। অতঃপর এত কম সময়ে অভিনেত্রীর চারটে জাতীয় পুরস্কার জেতা নিয়েও সমালোচনার অন্ত নেই।

গেরুয়া ঘনিষ্ঠতাই কি এর নেপথ্যে একমাত্র কারণ? প্রশ্ন তুলেছেন নিন্দুকরা। তবে অভিনেত্রী অবশ্য আজকের দিনে কোনওরকম বিতর্কের জবাব দিতে রাজি নন। নিন্দুকদের কটাক্ষবাণ উপেক্ষা করেই আপাদমস্তক ভারী সোনার গয়নায় সেজেছেন। দিল্লির বিজ্ঞান ভবনে যখন দাদাসাহেব ফালকে পুরস্কার হাতে তুলে নিলেন, তখন দর্শকাসনে মেয়ের সাফল্যের উদযাপন চাক্ষুষ করার জন্য উপস্থিত ছিলেন কঙ্গনার মা ও বাবা। মা-বাবার সঙ্গে ক্যামেরার সামনে পোজও দিয়েছেন বলিউডের ক্যুইন।

[আরও পড়ুন: Bigg Boss 13: মল্লিকার কাণ্ডে লজ্জায় লাল সলমন! বিগ বসের মঞ্চে হলটা কী?]

পরনে লাল পাড়ের সোনালি রঙের শাড়ি। মাথায় ফুলের গজরা। কপালে লাল টিপ। আদ্যোপান্ত ট্র্যাডিশনাল পোশাকে দেখা গেল কঙ্গনাকে। উচ্ছ্বসিত অভিনেত্রীর মন্তব্য, “আজ আমি জোড়া জাতীয় পুরস্কার জিতেছি ‘মণিকর্ণিকা’ (Kangana Ranaut) ও ‘পাঙ্গা’র (Panga) জন্য। দুই টিমের সকলকে অসংখ্য ধন্যবাদ। আপনারাই এই সিনেমাকে সফল বানিয়েছেন। তাই এই পুরস্কার আমি আপনাদের সঙ্গে ভাগ করে নিতে চাই।”

এখানেই অবশ্য থামেননি কঙ্গনা। তিনি বলেন, “এযাবৎকাল মা-বাবাকে অনেক জ্বালিয়েছি। এই দিনটা হয়তো ওদের আমার সব কাণ্ড-কারখানা ভুলিয়ে দেবে।” ২০০৬ সালে ফিল্মি কেরিয়ার শুরু করেছিলেন গ্যাংস্টার দিয়ে। যে ছবির প্রস্তাব টলিউড নায়িকা কোয়েল মল্লিক নাকচ করার পরই গিয়েছিল কঙ্গনার ঝুলিতে। তারপর আর ফিরে তাকাতে হয়নি। ২০০৮ সালে ‘ফ্যাশন’, ২০১৪ সালে ‘ক্যুইন’ এবং ২০১৫ সালে ‘তনু ওয়েডস মনু রিটার্নস’ সিনেমায় তাঁর অভিনয় দক্ষতা জাতীয় পুরস্কার এনে দিয়েছে ঝুলিতে।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Entertainment news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Kangana ranauts 4th national award actress on cloud nine