scorecardresearch

বড় খবর

‘বাংলার ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডর শাহরুখ, আর ‘পাঠান-‘এর জন্য বাংলা ছবিই ব্রাত্য..’, বিস্ফোরক কৌশিক

‘পাঠান’-এর জন্য সঙ্কটে এক্সিবিউটাররা।

‘বাংলার ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডর শাহরুখ, আর ‘পাঠান-‘এর জন্য বাংলা ছবিই ব্রাত্য..’, বিস্ফোরক কৌশিক
'পাঠান' নিয়ে বিস্ফোরক কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায়

বাংলা সিনেমার সুদিন আর দুর্দিন… এই নিয়ে আলোচনার অন্ত নেই। সোশ্যাল মিডিয়ায় মাঝেমধ্যেই লম্বা হ্যাজ নামিয়ে প্রতিবাদী রব ওঠে! বাংলা সিনেমার পাশে দাঁড়ান- এমন কাতর আর্জিও শোনা যায় বারংবার। কিন্তু মুশকিলটা হল, বাংলার প্রেক্ষাগৃহে বাংলা সিনেমা-ই যদি ব্রাত্য থাকে কিংবা উদ্ভট স্লট পায়, তাহলে দর্শকদের পাশে দাঁড়ানোর সুযোগটা কোথায়? উপরন্তু অতিমারী উত্তর পর্বে ইন্ডাস্ট্রির লক্ষ্মীভাণ্ডারে ভাঁটা! খান কয়েক সিনেমার হাত ধরে সুদিন ফিরলেও এই স্লট না পাওয়ার বিষয়টি মাঝেমধ্যেই চাগাড় দিয়ে ওঠে। এবার এপ্রসঙ্গেই মুখ খুললেন কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায়।

সাম্প্রতিক অতীতে এমন একাধিক বাংলা সিনেমার উদাহরণ রয়েছে যেখানে স্লট না পাওয়ার অভিযোগ উঠেছে। কৌশিকের কথায়, লোকে ভুল বুঝে বলেন, আমার ছবি চালানো হচ্ছে না। এক্ষেত্রে এক্সিবিউটার কিংবা রিজিওনাল ডিস্ট্রিবিউটারদের কোনও দোষ নেই। এই যে পাঠান আসছে, সেই প্রযোজনা সংস্থার থেকেই কড়াভাবে বলে পাঠানো হয়েছে যে- যেসব সিঙ্গল স্ক্রিনে আমাদের সিনেমা চালানো হবে, তাদের সব শোয়েই এই সিনেমা চলবে। অন্য ছবি চালাতে পারবে না। সাবটাইটেলে বলা, আঞ্চলিক ভাষার কোনও সিনেমা চালানো যাবে না। তাই বাংলাতে বাংলা ছবি চালানো যাচ্ছে না।

[আরও পড়ুন: বাংলা সিনেমা ‘কোণঠাসা’! হল থেকে ‘প্রজাপতি’ উঠিয়ে পরপর ‘পাঠান’-এর শো, মারাত্মক খেপলেন প্রযোজক]

উল্লেখ্য, শাহরুখ বাংলার ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডর। আর বছর পাঁচেক বাদে পর্দায় যখন তাঁর প্রত্যাবর্তন নিয়ে মেতে রয়েছেন অনুরাগীরা। সেখানে চাহিদার কথা মাথায় রেখে ‘পাঠান’-এর শোয়ের সংখ্যা বাড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। ফলস্বরূপ বাংলার সিনেবাজারে জায়গা পাচ্ছে না বাংলা ছবিই।

এপ্রসঙ্গে, সিনেমার ডিস্ট্রিবিউটারদের পাশে থেকেই কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায় বললেন, “এই গোটা অতিমারী পর্বে এক্সিবিউটার, ডিস্ট্রিবিউটাররা বসিয়ে বসিয়ে কর্মচারীদের রেখেছে। কাজেই স্বাভাবিকভাবেই এই ক্ষতির পরিমাণ বহন করা মানে তাঁদের লোকসান। তারা নিরুপায়। অতঃপর ওদের হিন্দি ছবি চালাতেই হচ্ছে। ওদের সাহস হয় কী করে একথা বলার যে, আমাদের ছবিই চালাতে হবে, অন্য কোনও সিনেমা চালানো যাবে না! নইলে কোনও শো দেব না। যার জেরে একপ্রকার অসহায় হয়ে গিয়েছে ডিস্ট্রিবিউটার, এক্সিবিউটাররা।”

[আরও পড়ুন: ‘রাজনৈতিক সিনেমা বানানোর জন্য ভারতবর্ষ এখনও প্রস্তুত নয়’: কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায়]

দেব-মিঠুনের ‘প্রজাপতি’র মতো ছবি যা কিনা রমরমিয়ে ব্যবসা করছে, সেটাকেও নেমে যেতে হচ্ছে শাহরুখের ‘পাঠান’ আসছে বলে। এপ্রসঙ্গে কৌশিকের মন্তব্য, “কী অদ্ভূত আয়রনি! শাহরুখ খান বাংলার ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডর, সেখানে তাঁর সিনেমার জন্যই বাংলা ছবি হল পাচ্ছে না। উনি জানলে বোধহয় বলতেন, ভাই বাংলাটাকে ছেড়ে দাও.. ওদের একটা-দুটো নিজেদের ছবি চালাতে দাও।”

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Entertainment news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Kaushik ganguly reacts to bengali cinema not getting hall because of pathaan