scorecardresearch

বড় খবর

বাজেট ২০১৯: চলচ্চিত্র নির্মাণে ‘এক জানালা’ নীতি

শুক্রবার লোকসভায় অন্তর্বর্তী অর্থমন্ত্রী পীযূষ গোয়েল সিনেমাটোগ্রাফি পাইরেসি আটকানোর জন্য অ্যান্টি ক্যামকর্ডিং সংস্থানের কথা বলেছেন।

বাজেট ২০১৯: চলচ্চিত্র নির্মাণে ‘এক জানালা’ নীতি
বাজেটে বিশেষ অধিকার মিলল সিনেমাক্ষেত্রে। অলংকরণ- অরুণিমা কর্মকার।

অন্তর্বর্তী বাজেটে ভারতীয় সিনেমা নির্মাতাদের জন্য ‘এক জানালা’ নীতি ঘোষণা করল মোদী সরকার। এতদিন পর্যন্ত এই সুবিধা পেতেন কেবলমাত্র বিদেশি চলচ্চিত্র নির্মাতারা। এর ফলে, চলচ্চিত্র নির্মাণের ক্ষেত্রে পদ্ধতিগত জটিলতা অনেকটা কমবে বলে আশা করা হচ্ছে। এদিন সিনেমাটোগ্রাফি পাইরেসি আটকাতে ‘অ্যান্টি ক্যামকর্ডিং’ সংস্থানের কথাও বলেছেন অর্থমন্ত্রী।

অন্তর্বর্তীকালীন অর্থমন্ত্রী পীযূষ গোয়েল বাজেটে সিনেমার টিকিটে জিএসটি কমানো নিয়ে সরকারের অতীতের ঘোষণার কথা ফের উল্লেখ করেছেন। তিনি জানান, টিকিটের মূল্য ১০০ টাকা পর্যন্ত হলে পণ্য পরিষেবা কর হবে ১২ থেকে ১৮ শতাংশের মধ্যে। আর সিনেমার টিকিটের দাম ১০০ টাকার বেশি হলে সেক্ষেত্রে ২৮ এর পরিবর্তে ১৮ শতাংশ কর লাগু হবে।

আরও পড়ুন, Budget 2019 Highlights: এক নজরে মোদী সরকারের শেষ বাজেট

অন্তর্বর্তীকালীন অর্থমন্ত্রী বলেন, ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে কর্মসংস্থানের হার সবথেকে বেশি। অভিনেতা ভিকি কৌশলের ‘উরি’ ছবির কথাও উল্লেখ করেন পীযূষ গোয়েল। তিনি বলেন, “উরি ছবিটা দেখলাম। ছবিটা নিয়ে সিনেমা হলে প্রচন্ড উত্তেজনা ছিল।” আদিত্য ধর পরিচালিত এই ছবিতে পাকিস্তানের সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে ভারতীয় সেনাবাহিনীর সার্জিকাল স্ট্রাইকের বর্ণনা রয়েছে।

যদিও সরকারের এই নীতিকে ভাল পদক্ষেপ বলে ব্যাখ্যা করেছেন প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়। প্রযোজক অতনু রায় চৌধুরী বলেন, ”প্রথমেই বলি বিষয়টি এখনও বিস্তারিতভাবে জানা নেই। পুরো বিষয়টা সরকার কীভাবে প্রণয়ন করতে চাইছেন জানি না। তবে এটা হলে ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির সুবিধা তো হবেই”। যদিও প্রযোজক সুপর্ণ কান্তি করাতির মত অনুযায়ী, ”বাংলা ছবির ক্ষেত্রে কতটা সুবিধে হবে এখনই বলা যাচ্ছে না, তবে চলচ্চিত্র জগতের জন্য সুখবর তো বটেই। এখন ইম্পা বিষয়টা কীভাবে দেখছে তার ওপরে বাকিটা নির্ভর করছে”।

উল্লেখ্য, বিনোদনের জন্য বাজেটের বরাদ্দ বেশি করে আসার ইঙ্গিত মেলে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে চলচ্চিত্র নির্মাতা, কলাকুশলী এবং প্রতিনিধিদের দুটি বৈঠক থেকে। প্রথম বৈঠকে বলিউড থেকে অক্ষয় কুমার, করণ জোহর, অজয় দেবগণ, রাকেশ রোশন, সিদ্ধার্থ রায় কাপুর, রনি স্ক্রুওয়ালা, প্রসূন যোশীরা উপস্থিত ছিলেন।

আরও পড়ুন, Railway Budget 2019: বাজেটে বরাদ্দ কমল ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রো প্রকল্পের

তারপরেই আরও একটি বৈঠক হয় প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে। যেখানে রণবীর সিং, বরুণ ধাওয়ান, ভিকি কৌশল, রাজকুমার রাও, রণবীর কাপুর, আয়ুষ্মান খুরানা, একতা কাপুর, অশ্বিনী আইয়ার তিওয়ারি সহ পুরো ইয়ং ব্রিগেড হাজির ছিল। সম্প্রতি মুম্বইয়ে ভারতীয় সিনেমার জাতীয় সংগ্রহশালারও উদ্বোধন করেছেন মোদী। সেখানে উপস্থিত হয়েছিলেন আমির খান, এ.আর রহমান, ইমতিয়াজ আলি, জিতেন্দ্র, কপিল শর্মা, কার্তিক আরিয়ন, পরিণীতি চোপড়া, সুভাষ ঘাই এবং আরও অনেকে।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Entertainment news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Piyush goyal announces single window clearance for indian filmmakers70635