scorecardresearch

বড় খবর

রাজেশ খান্নার সঙ্গে কোন তিক্ততায় সিনেমা করা বন্ধ করেছিলেন শর্মিলা?

গোপন সেই কথা আজও জানেন না অনেকেই।

রাজেশ খান্নার সঙ্গে কোন তিক্ততায় সিনেমা করা বন্ধ করেছিলেন শর্মিলা?
রাজেশ খান্না, শর্মিলা ঠাকুর

দেশের প্রথম সুপারস্টার রাজেশ খান্না (Rajesh Khanna)। ভারতীয় চলচ্চিত্রের ইতিহাসে কাকার অবদান ভোলার নয়! ১৯৬৯ থেকে ‘৭১ সালের মধ্যে মোট ১৫টি সুপারহিট সিনেমা উপহার দিয়েছিলেন। সাত-আটের দশকে রাজেশ খান্না ছিলেন দেশের সবথেকে বেশি পারিশ্রমিক পাওয়া তারকা। একটা সময় ছিল যখন, মুম্বইয়ের রাস্তায় রাজেশের বিলাসবহুল সাদা গাড়ি যেখানেই দাঁড়াক না কেন, মেয়েদের লাল লিপস্টিকের ছোপে তা ভরে যেত। আর সেই সুপারস্টারের সঙ্গেই কিনা সিনেমা করা বন্ধ করে দিয়েছিলেন শর্মিলা ঠাকুর।

‘আরাধনা’, ‘সফর’, ‘অমর প্রেম’-এর মতো শর্মিলা জুটি একটা সময়ে ১০-দশটি সুপারহিট সিনেমা উপহার দিয়েছেন দর্শকদের। সেই সময়ে পরিচালক-প্রযোজকদের কাছেও এই জুটির চাহিদা ছিল ভীষণ। কিন্তু শর্মিলা (Sharmila Tagore remembers Rajesh Khanna) পরবর্তীতে রাজেশের সঙ্গে সিনেমা করা বন্ধ করে দেন এক বিশেষ কারণে। তবে রাজেশ খান্নার স্টারডমে মোহিতও হয়েছিলেন অভিনেত্রী।

[আরও পড়ুন: ‘রানি জবাব দিয়ে দাও তো!’, ললিত-প্রেমে ভয়ঙ্কর ট্রোলড সুস্মিতার পাশে প্রিয়াঙ্কা]

শর্মিলা জানান, “একটা সময় ছিল, যখন নাইন টু নাইনটি স্টুডিওর বাইরে রাজেশ খান্নার জন্য লম্বা লাইন লেগে যেত, একমুহূর্তের জন্য দেখবে তাঁকে বলে। ওই জনপ্রিয়তা তখনকার সময় ভাবা যায় না! ওই ভূবন ভোলানো হাসি, তারুণ্য, ড্রামাটিক সেন্স আর দরাজ গলাতেই মুগ্ধ ছিল আসমুদ্র হিমাচল।” তবে ‘কাকা’র একটি স্বভাব বেজায় অপছন্দের ছিল শর্মিলা ঠাকুরের।

কী সেটা? নিজেই ফাঁস করেছেন রাজেশ খান্নার হিট নায়িকা। শর্মিলা বলেন, “কাকার একটা অভ্যেসেই আমি খুব বিরক্ত হতাম, সেটা হচ্ছে ওঁর সেটে পৌঁছনোর সময়জ্ঞানের অভাব। সকাল ৯টায় কল টাইম থাকলেও কাকা আসতেন দুপুর ১২টায়। আর এইজন্যই আমাদের সুপারহিট জুটি ভেঙে আমি ওঁর সঙ্গে সিনেমা করা বন্ধ করে, অন্য অভিনেতাদের সঙ্গে কাজ করা শুরু করি।”

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Entertainment news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Sharmila tagore on why she stopped working with rajesh khanna