বড় খবর

কাদম্বিনী’র অফার পেয়ে চোখে জল চলে এসেছিল: ঊষসী

তাঁর অভিনীত প্রথম দুই ধারাবাহিকে এক্কেবারে ভিন্নভাবে ধরা দিয়েছিলেন তিনি। এদিন নতুন ধারাবাহিক নিয়ে কথা বললেন পর্দার ‘কাদম্বিনী’ ঊষসী রায়।

zee bangla serial kadombini
কাদম্বিনীর চরিত্রে ঊষসী রায়। ফোটো- ঊষসীর ফেসবুক পেজ

প্রায় ২১-২২ দিন শুটিংয়ের পর যেন অবশেষে পরীক্ষার রেজাল্ট বেরোনোর মতো। ৬ জুলাই থেকে শুরু হচ্ছে ধারাবাহিক ‘কাদম্বিনী’। নাম ভূমিকায় অভিনয় করছেন ঊষসী রায়। তাঁর অভিনীত প্রথম দুই ধারাবাহিকে এক্কেবারে ভিন্নভাবে ধরা দিয়েছিলেন তিনি। এবারে তাঁকে পর্দায় দেখা যাবে বাংলার প্রথম মহিলা চিকিৎসকের ভূমিকায়। এদিন ধারাবাহিক নিয়ে কথা বললেন পর্দার ‘কাদম্বিনী’।

দুটি জনপ্রিয় চ্যানেলে একই বিষয় নিয়ে ধারবাহিক শুরু হচ্ছে, প্রতিযোগিতা বা তুলনামূলক আলোচনা তো আসবেই।

এই প্রশ্নের উত্তর দিচ্ছি না (হাসি)। তবে বলতে পারেন, আমার নিজের সঙ্গে একটা প্রতিযোগিতা চলে। যাতে আমার কোনও ধারাবাহিক দেখার সময় দর্শক চ্যানেল পরিবর্তন না করেন, সেই চেষ্টাটা করি। (বার বার ঊষষী মনে করিয়ে দিলেন, এটা কিন্তু আমার প্রশ্নের উত্তর নয়, তিনি নিজের কথা বললেন)

কাদম্বিনী কেন বাছলেন? বলার অপেক্ষা রাখে না চরিত্র নিশ্চয়ই…

একদমই। এর পেছনে একটা গল্পও আছে। আমার দিদা মা-কে বলে গিয়েছিলেন, নাতনি যেন ডাক্তার হয়। অফ-স্ক্রিন তো হতে পারলাম না, তাই অন-স্ক্রিন। আর যে সে নয়, বাংলার প্রথম মহিলা প্র্যাকটিসিং ডাক্তার। যখন অফারটা আসে, আমার চোখে জল এসে গিয়েছিল। প্রথম ফোনটা মাকে করে বলেছিলাম, দেখ আমাকে কাদম্বিনী গাঙ্গুলির চরিত্র করতে বলা হচ্ছে।

কাদম্বিনী গঙ্গোপাধ্যায়ের চরিত্রে ঊষসী রায় ও দ্বারকানাথ গঙ্গোপাধ্যায়ের ভূমিকায় মনোজ ওঝা।

আরও পড়ুন, প্রথমে ‘কৃষ্ণকলি’, দ্বিতীয় ‘রাসমণি’, এ সপ্তাহেও নেই রদবদল

কাদম্বিনী’র চরিত্রের জন্য নিজেকে কীভাবে তৈরি করলেন?

আমার কাছে শুটিংয়ের পরিবেশটা খুব জরুরি। বেলগাছিয়া রাজবাড়িতে শুটিং, মানানসই পোশাক, মেকআপ, সবটা আমাকে চরিত্রের মধ্যে ঢুকতে সাহায্য করে। এটা আমার সবথেকে বড় প্রস্তুতি। তাছাড়া আমার শিক্ষক দামিনী বসু, উনি ভীষণ সাহায্য করেছেন। ওঁর সাহায্য ছাড়া কিছুই করতে পারতাম না। বলা চলে, প্রায় ধাক্কা মেরে মেরে এটা কর ওটা কর বলে শিখিয়েছেন।

‘কাদম্বিনী গাঙ্গুলি’র সাজে কেমন লাগছে?

প্রচন্ড মজা লাগছে। এতদিন যে ধারাবাহিকগুলো করেছি, সবটাই এখনকার সময়ের। আর আমার বাড়িতে এমন একটা দিন যায় না যেদিন ‘রাণী রাসমনি’ বা ‘নেতাজি’ দেখা হয় না। আমার খালি মনে হতো, ইশশ! আমি কবে পিরিয়ড ড্রামা করার সুযোগ পাব?

শুটিংয়ে এখন নিয়ম মেনে চলতে হয়, কাজ বেড়ে গেল কি?

(পরিচিত হাসি) প্রথম প্রথম মনে করে হাত ধোয়া, স্যানিটাইজ করা ইত্যদি করতে হচ্ছিল। এখন ২১-২২ দিন শুটিং করার পর এটাই রুটিন হয়ে গিয়েছে। অভ্যেস হয়ে গিয়েছে।

কাদম্বিনী শুরু হচ্ছে। দর্শকদের কাছ থেকে কোনো প্রতিক্রিয়া পেয়েছেন?

লকডাউনের আগে দু-তিনদিন শুটিং করেছি। শুটিং বন্ধ হওয়ার কয়েকদিনের মধ্যেই প্রোমো চলে এসেছে। বুঝতেই পারছেন। এই তিনমাস লকডাউনে আমি কেমন আছি, কী করছি জানার চেয়ে বেশি মানুষ প্রশ্ন করেছেন, কাদম্বিনী কবে শুরু হবে।

আজ, ৬ জুলাই থেকে রাত সাড়ে আটটায় জি বাংলায় সম্প্রচারিত হবে ‘কাদম্বিনী’

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Get the latest Bengali news and Entertainment news here. You can also read all the Entertainment news by following us on Twitter, Facebook and Telegram.

Web Title: Ushasi ray talks about her new serial kadombini

Next Story
মা হারানোর যন্ত্রণা চেপে পরদিনই ‘হাসিমুখে’ ফ্লোরে কাঞ্চন
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com