scorecardresearch

বড় খবর

‘ফিরে আয় ঐন্দ্রিলা…’, কাতর আর্জি ঊষসীর

একরাশ মনখারাপ নিয়ে লিখলেন ঊষসী চক্রবর্তী।

‘ফিরে আয় ঐন্দ্রিলা…’, কাতর আর্জি ঊষসীর
ঐন্দ্রিলা শর্মার আরোগ্য কামনায় ঊষসী চক্রবর্তী

সব্যসাচী-ঐন্দ্রিলার লড়াইকে কুর্নিশ জানিয়ে কলম ধরেছিলেন পরমব্রত চট্টোপাধ্যায়। এবার একরাশ মন খারাপ, আশার আলো নিয়ে কথা বললেন ঊষসী চক্রবর্তী।

মঙ্গলবার থেকেই ঐন্দ্রিলা শর্মার (Aindrila Sharma) শারীরিক পরিস্থিতি আরও সঙ্কটজনক। মস্তিকে নতুন করে রক্ত জমাট হয়েছে। বুধবার সকালে হাসপাতাল থেকে খবর পাওয়া গেল একাধিকবার হৃদরোগে আক্রান্ত হয়েছেন অভিনেত্রী। সিপিআর দেওয়া হয়েছে। হাসপাতালের বিছানায় শুয়ে সমস্ত প্রতিকূলতার বিরুদ্ধে অমানুষিক লড়াই চালিয়ে যাচ্ছেন ঐন্দ্রিলা শর্মা। তাঁর চিন্তায় বিনিদ্র রজনী কাটাচ্ছেন পরিবার, প্রেমিক সব্যসাচী চৌধুরি থেকে সমস্ত বন্ধুবান্ধব, অনুরাগীরা। ঐন্দ্রিলার আরোগ্য কামনায় রত সকলেই। এর মাঝেই অভিনেত্রী ঊষসী চক্রবর্তীর আর্জি, ‘ফিরে আয় ঐন্দ্রিলা..।’

[আরও পড়ুন: ‘সব্যসাচী-ঐন্দ্রিলার লড়াইকে কুর্নিশ’, লিখলেন পরমব্রত]

সব্যসাচীর সঙ্গে ঊষসী চক্রবর্তীর বহুদিনের বন্ধুত্ব, সেই কথা উল্লেখ করেই ঐন্দ্রিলাকে নিয়ে কলম ধরলেন তিনি। অভিনেত্রীর কথায়, “ঐন্দ্রিলার সঙ্গে আমার সোমবারই প্রথম দেখা হয়েছিল। ও একটা অ্যাওয়ার্ড পেয়েছিল। প্রত্যাবর্তন অ্যাওয়ার্ড। পরে আরেকবার দেখা আর একটা অ্যাওয়ার্ড ফাংশনে। কিন্তু সব্যসাচীর সঙ্গে আমার বন্ধুত্ব অনেক দিনের। আমার দাসানিতে ‘শ্রীময়ী’র শুট চলার সময় ওঁরও সিরিয়াল চলত ওই একই স্টুডিওতে। সেই সুবাদে মাঝে মাঝে দেখা হত কথা হত।”

এরপরই ঊযসী যোগ করলেন, “বেশীরভাগ কথাই হত ঐন্দ্রিলাকে নিয়ে। বেশীরভাগটা ভুল বললাম। প্রায় সব কথাই হত ওকে নিয়েই। ওঁর স্বাস্থ্য, ওঁর সেরে ওঠা। ওঁর চিকিৎসা সব নিয়েই। এবার ভর্তি হওয়ার পর থেকে নিয়মিত খবর নিয়েছি সব্যসাচীর থেকে। কিন্তু শেষ পোস্টটার পরে আর যোগাযোগ হয়নি। ‘পাশে আছি’ কথাটা খুব বোকা বোকা। পাশে থেকে কি-ই বা করতে পারি? ফিরে আয় ঐন্দ্রিলা আরও অনেক অনেক অ্যাওয়ার্ড তোর জন্য অপেক্ষায়।”

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Entertainment news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Ushasie chakraborty on aindrila sharma sabyasachi chowdhury