scorecardresearch

বড় খবর

Explained: রুশ হামলায় ধ্বংস Antonov AN-225, বিশ্বের বৃহত্তম বিমান সম্পর্কে জানলে অবাক হবেন

ইউক্রেনীয়রা এক বলে ম্রিয়া, যার অর্থ স্বপ্ন, আর সেই স্বপ্নকেই চুরমার করে দিল রাশিয়া।

Explained: রুশ হামলায় ধ্বংস Antonov AN-225, বিশ্বের বৃহত্তম বিমান সম্পর্কে জানলে অবাক হবেন
ইউক্রেনে হামলার পর রাশিয়া বিশ্বের বৃহত্তম কার্গো বা পণ্যবাহী বিমান অ্যান্টোনভ এএন-২২৫ বা ম্রিয়া ধ্বংস করে দিয়েছে।

ইউক্রেনে হামলার পর রাশিয়া বিশ্বের বৃহত্তম কার্গো বা পণ্যবাহী বিমান অ্যান্টোনভ এএন-২২৫ বা ম্রিয়া ধ্বংস করে দিয়েছে। কিয়েভের কাছে একটি বিমানবন্দরে হামলা চালিয়ে বিমানটি ধ্বংস করে দেয় রুশ সেনা। সোমবার এই খবর নিশ্চিত করেছে ইউক্রেন।

ইউক্রেনের আধিকারিকদের মতে, হস্টোমেল এয়ারবেসে রুশ ফৌজ ঢুকে বিমানটিকে তছনছ করে দেয়। কিন্তু হতাশ হবে না ইউক্রেন, তারা জানিয়েছে, বিমানটি পুনর্নিমাণ করা হবে। ইউক্রেনের বিদেশ মন্ত্রী দিমিত্রো কুলেবা জানিয়েছেন, “এটা বিশ্বের বৃহত্তম বিমান। ম্রিয়া মানে হল ইউক্রেনের ভাষায় স্বপ্ন। রাশিয়া হয়তো আমাদের ম্রিয়াকে চুরমার করে দিয়েছে। কিন্তু ওরা কখনও আমাদের স্বপ্নকে নষ্ট করতে পারবে না। একটা স্বাধীন, গণতান্ত্রিক এবং শক্তিশালী ইউরোপিয়ান দেশের স্বপ্নকে। আমরা আবার ঘুরে দাঁড়াব।”

অ্যান্টোনভ এএন-২২৫ বা ম্রিয়া সম্পর্কে কী জানা গেছে?

২৯০ ফুট এর ডানার দৈর্ঘ। অ্যান্টোনভ এএন-২২৫ সবদিক থেকেই অতুলনীয়। আটের দশকে সোভিয়েত জমানায় মহাকাশে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং সোভিয়েত ইউনিয়নের ঠান্ডা লড়াইয়ের সময় এটি সাবেক ইউক্রেনে তৈরি হয়। ডাকনাম ম্রিয়া বা স্বপ্ন। বিমান পরিবহণে জনপ্রিয় এই অ্যান্টোনভ এএন-২২৫। বিশ্বের বিভিন্ন দেশে এয়ার শোয়ে এই বিমান দেখতে ভিড় জমান উৎসাহীরা।

মার্কিন ভাষায় যেটা স্পেস শাটল, সেই বুরান পরিবহণের জন্য সোভিয়েত এরোনটিক্যাল প্রোগ্রামের অন্তর্গত মিশনে কাজ করতে এই বিমান। ১৯৯১ সালে সোভিয়েত ইউনিয়নের পতনের পর বুরান প্রোগ্রাম বাতিল হয়ে যায়। তখন পণ্য বহনের জন্য বিমান ব্যবহৃত হত। কিয়েভ স্থিত অ্যান্টোনভ সংস্থা একটাই এএন-২২৫ তৈরি করেছিল। এটি একটি সামরিক সরঞ্জাম তৈরির সংস্থা। রুশ বায়ুসেনার ব্যবহৃত চার ইঞ্জিনের এন-১২৪ কন্ডোরের আদলেই তৈরি হয়েছিল এটি।

১৯৮৮ সালে অ্যান্টোনভ এএন-২২৫ প্রথম উড়ান ভরে। তার পর থেকে বহুবার ব্যবহৃত হয়েছে এটি। সাম্প্রতিক কালে বিপর্যয়ের সময় পড়শি দেশগুলিতে ত্রাণ সামগ্রী সরবরাহের কাজে ব্যবহার করা হত এই বিমান। কোভিড অতিমারির শুরুর দিকে আক্রান্ত দেশগুলিতে মেডিক্যাল সামগ্রী সরবরাহ করা হত এই বিমানের মাধ্যমে।

আরও পড়ুন ‘মিস ইউক্রেন’-এর হাতে কালাশনিকভ! মাতৃভূমি বাঁচাতে রাশিয়ার বিরুদ্ধে যুদ্ধে নামলেন আনাস্তাসিয়া

বিমানটির কী হয়েছে?

চারদিন আগে রাশিয়া ইউক্রেনে হামলা করে। রাশিয়া ইউক্রেনের বায়ুসেনা এবং সামরিক ঘাঁটিতে গুলিকে টার্গেট করে। শুক্রবার রাশিয়া দাবি করে, হস্টোমেল এয়ারবেস তারা দখল করেছে। সেখানেই বিমানটি মেরামতির জন্য রাখা ছিল।

ইউক্রেনের সরকারি সামরিক নির্মাণ সংস্থা ইউক্রোবোরনপ্রম যারা অ্যান্টোনভ সংস্থার দায়িত্বে, তারা জানায়, ইউক্রেনের বিমানসম্ভারকে দখল করতেই ম্রিয়াকে ধ্বংস করেছে রাশিয়া। সিএনএন রিপোর্ট অনুয়ায়ী, যেসব হ্যাঙ্গারে এই বিমানবন্দরে বিমাননগুলি ছিল সেখানে উপগ্রহ চিত্রে দেখা গিয়েছে ধ্বংসের ছবি।

আরও পড়ুন Explained: ঘুরপথে বেশি সময় অন্য দেশে রুশ বিমান, কেন এই নাজেহাল অবস্থা?

এর পর কী হবে অ্যান্টোনভ এএন-২২৫ এর?

ইউক্রোবোরনপ্রম ঘোষণা করেছে, রাশিয়ার খরচে এই বিমান মেরামত করা হবে। যার জন্য লাগবে প্রায় ৩০০ কোটি মার্কিন ডলার। পাঁচ বছর লাগবে এটা ঠিক করতে। এই বিপুল খরচ রাশিয়ার কাছ থেকে নেবে বলে সাফ জানিয়েছে সংস্থা।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Explained news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Explained worlds largest plane destroyed in russia ukraine war heres what happened