scorecardresearch

বড় খবর

Explained: ইমরানের গুলিবিদ্ধ হওয়া পাকিস্তানে বড় অশান্তির ইঙ্গিত, সম্ভাব্য পরিস্থিতি কী বলছে?

পাকিস্তানের বর্তমান সেনাপ্রধানের ২৯ নভেম্বর অবসর নেওয়ার কথা।

Explained: ইমরানের গুলিবিদ্ধ হওয়া পাকিস্তানে বড় অশান্তির ইঙ্গিত, সম্ভাব্য পরিস্থিতি কী বলছে?
বাঁ দিক থেকে- ইমরান খান, পাকিস্তানের সেনাপ্রধান জেনারেল কামার জাভেদ বাজওয়া ও পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী শেহবাজ শরিফ

পাকিস্তানে অশান্তি বাড়ছে। তার মধ্যেই এমাসের শেষের দিকে পাকিস্তানের সেনাপ্রধান জেনারেল কামার জাভেদ বাজওয়া পদত্যাগ করবেন। তিনি তা করবেন কিনা, তাঁর উত্তরসূরি কে, তাঁকে কীভাবে নিয়োগ করা হবে এবং তাঁর এবং প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের মধ্যে কী সম্পর্ক- এই প্রশ্নগুলো পাকিস্তানের ভবিষ্যত রাজনৈতিক গতিপথ ঠিক করবে।

ইমরানের ‘লং মার্চ’
প্রধানমন্ত্রী পদ থেকে অপসারণের পর ইমরান অবিলম্বে নির্বাচনের লক্ষ্যে ‘লং মার্চ’ শুরু করেছেন। লাহোরে ২৮ অক্টোবর শুরু হওয়া এই ‘লং মার্চ’ ইসলামাবাদে থামবে। মধ্যে তাঁর ওপর হামলা হয়েছে। গুলিবিদ্ধ হয়েছেন ইমরান। কিন্তু, তার পরও এই ‘লং মার্চ’ চলবে বলেই তিনি সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

ক্ষমতা ধরে রেখেছেন শেহবাজ
যদিও শেহবাজ শরিফ এখনও তাঁর সরকারকে শক্তহাতে ধরে রেখেছেন। কিন্তু, তাঁর অভিযোগ যে পাকিস্তানের বর্তমান রাজনৈতিক বিশৃঙ্খলার পিছনে রয়েছেন ইমরান খান। আর, ইমরানের প্রাক্তন পৃষ্ঠপোষক বাজওয়া যদি অবসর নেন, তাহলে পাকিস্তানে কিছুটা হলেও রাজনৈতিক শান্তি ফিরতে পারে। এখন আদৌ সেটা ঘটবে কি না, তা নিয়েও নানা ধন্দ রয়েছে। এই পরিস্থিতিতে আগামী দিনের জন্য চারটি সম্ভাব্য পরিস্থিতির মুখে পড়তে পারে পাকিস্তান।

অবসরের সম্ভাবনা
বাজওয়া ২৯ নভেম্বর অবসর নেবেন। তিনি গত কয়েক মাসে বহুবার বলেছেন যে ওই তারিখের পরে সেনাপ্রধান পদে থাকার কোনও ইচ্ছেই তাঁর নেই। ১০ নভেম্বর, ইন্টার সার্ভিস পাবলিক রিলেশনস, পাকিস্তান সামরিক বাহিনীর মিডিয়া এবং প্রচার শাখা একটি বিবৃতিতে জানিয়েছে যে বাজওয়া ‘তাঁর বিদায়ী সফরে’ শিয়ালকোট এবং মংলা গ্যারিসন পরিদর্শন করেছেন। ৯ নভেম্বর, তিনি পেশোয়ার কর্পস পরিদর্শন করেছিলেন। সেটা আবার রাওয়ালপিন্ডিতে কর্পস কমান্ডারদের একটি বৈঠকের একদিন পরে। সেখানে সেনাবাহিনীর শীর্ষস্থানীয় কর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করেন।

আরও পড়ুন- রাষ্ট্রপতি অবমাননা: অস্বস্তি বাড়তেই অনুতাপ প্রকাশ মমতার মন্ত্রীর, বিধায়ক পদ খারিজের আর্জি সৌমিত্রর

পাক সেনাপ্রধানের সফর
এসবেরও আগে ১ নভেম্বর, পাকিস্তান সেনার এয়ার ডিফেন্স কমান্ড সফর করেছিলেন বাজওয়া। পরের দিন গিয়েছিলেন সশস্ত্র বাহিনীর স্ট্র্যাটেজিক ফোর্সেস কমান্ডে। বাজওয়া যেদিন অবসর নেবেন, সেদিনই তাঁর উত্তরসূরির হাতে ক্ষমতা হস্তান্তর হবে। তবে, এখনও তাঁর উত্তরসূরির নাম ঘোষণা করা হয়নি। আর, সেটা সম্ভবত বর্তমান রাজনৈতিক পরিস্থিতির কারণেই। তবে হাতে এখনও সময় আছে। তার মধ্যেই ঘোষিত হতে পারে বাজওয়ার উত্তরসূরির নাম। আর তারপর কী? সেটাই এখন বড় প্রশ্ন পাকিস্তানবাসীর।

Read full story in English

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Explained news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Here are four possible scenarios in pakistan now