ফিচার খবর

টেরিটি বাজার: কলকাতার প্রথম চিনে পাড়া কেমন আছে?

টেরিটি বাজার: কলকাতার প্রথম চিনে পাড়া কেমন আছে?

দীর্ঘদিন ধরেই টেরিটি বাজার শহরের একমাত্র চায়নাটাউন ছিল। কিন্তু ১৯৫০-এ পরিস্থিতি বদলাতে শুরু করে।

ট্যাংরা- নামই যথেষ্ট

ট্যাংরা- নামই যথেষ্ট

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর কাঁচা চামড়ার চাহিদা তুঙ্গে ওঠে, যার ফলে ভাগ্য পাল্টে যায় ট্যাংরার চিনা বাসিন্দাদের। ব্যবসায় বিপুল লাভের আশায় ক্রমশ বাড়তে থাকে চিনা বাসিন্দা এবং চামড়ার কারখানার সংখ্যা।

কলকাতার মেসবাড়ি, অতীত বর্তমানের আলো-আঁধারি

কলকাতার মেসবাড়ি, অতীত বর্তমানের আলো-আঁধারি

ঠনঠনিয়া কালিবাড়ির রাস্তায় এসে, যে কোনও কাউকে শিবরাম চক্রবর্তীর মেসবাড়ি জিজ্ঞেস করলেই সোৎসাহে দোতলার একটি ঘর দেখিয়ে দেন।

কোথায় গেল সেই মাছ, যার নামে ‘তোপসিয়া’?

কোথায় গেল সেই মাছ, যার নামে ‘তোপসিয়া’?

কলকাতার সঙ্গে তোপসিয়ার যোগ আজকের নয়। ফিরে যেতে হবে সেই ১৭১৭ সালে, যখন মুঘল সম্রাট ফারুখসিয়ারের কাছ থেকে কলকাতার আশেপাশে ৩৮টি গ্রামের ইজারা নেয় ব্রিটিশ ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানি।

সকাল থেকে রাত পর্যন্ত সঙ্গী ঢোল, নিজের দুনিয়ায় মগ্ন ছ’বছরের রাঘব

সকাল থেকে রাত পর্যন্ত সঙ্গী ঢোল, নিজের দুনিয়ায় মগ্ন ছ’বছরের রাঘব

দাদু ব্যান্ড পার্টিতে ঢোল বাজান। রাঘবকে দু'বছর বয়স থেকে একটু ভালোমন্দ খাওয়ানোর জন্যে সঙ্গে করে নিয়ে যেতেন বিভিন্ন অনুষ্ঠানে। বাড়ি ফিরে দুটো কাঠি নিয়ে ভাঙ্গা টিনের বাক্সে ঢোল বাজানোর চেষ্টা করতো ছোট্ট রাঘব।

মাত্র পাঁচ দিনে হয়ে উঠুন ‘তেজস্বিনী’, সৌজন্যে কলকাতা পুলিশ

মাত্র পাঁচ দিনে হয়ে উঠুন ‘তেজস্বিনী’, সৌজন্যে কলকাতা পুলিশ

শহরের পথেঘাটে মহিলারা যাতে শারীরিক হেনস্থার বিরুদ্ধে প্রাথমিকভাবে রুখে দাঁড়াতে পারেন, সেই লক্ষ্যে কলকাতা পুলিশের বিশেষ উদ্যোগ 'তেজস্বিনী'।

বেনারস হিন্দু বিশ্ববিদ্যালয় যা নিয়ে উত্তপ্ত, বেলুড় মঠে তাই ‘স্বাভাবিক’

বেনারস হিন্দু বিশ্ববিদ্যালয় যা নিয়ে উত্তপ্ত, বেলুড় মঠে তাই ‘স্বাভাবিক’

সংস্কৃতে ডক্টরেট ফিরোজ খানকে নিয়ে যখন উত্তাল বিএইচইউ, ঠিক সেই সময়ই বেলুড় মঠের প্রতিষ্ঠানে সংস্কৃত পড়ানোর নিয়োগপত্র পৌঁছে যায় রমজান আলির হাতে।

কলকাতার অধিকাংশ দোকানে এই গ্রাম থেকেই আসে রাবড়ি

কলকাতার অধিকাংশ দোকানে এই গ্রাম থেকেই আসে রাবড়ি

আঁইয়া গ্রাম। লোকের মুখে মুখে আঁইয়া এখন রাবড়িগ্রাম। বাইরে থেকে দেখতে শান্ত, ছিমছাম। কে বলবে, পরের সকালে কলকাতার ওলি-গলির সব মিষ্টির দোকানে রাবড়ি পৌঁছে দেবে এই গ্রাম?

ঝাঁসির রানির জন্মদিন, সিপাই বিদ্রোহ এবং কলকাতার হুতোমরা

ঝাঁসির রানির জন্মদিন, সিপাই বিদ্রোহ এবং কলকাতার হুতোমরা

হুতোম লিখছেন, এই সময়ে কলকাতায় গুজব রটে, বিদ্যাসাগরের উদ্যোগে বিধবা বিবাহ আইন পাস হয়েছে বলেই ‘সেপাইরা খেপেছে’।

গোরস্থান কা রাস্তা থেকে পার্ক স্ট্রিট থেকে মাদার টেরেজা সরণি, নাম বদলের ইতিবৃত্ত

গোরস্থান কা রাস্তা থেকে পার্ক স্ট্রিট থেকে মাদার টেরেজা সরণি, নাম বদলের ইতিবৃত্ত

পার্ক স্ট্রিট যে পার্ক স্ট্রিটই রয়ে গেছে, তা তো আমরা সকলেই জানি। ব্রিটিশ আমলের ইতিহাসের মতোই জাঁকিয়ে বসে গেছে শহরের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ এই রাজপথটির নামও।

কলকাতার কাছেই, অথচ এক পৃথিবী দূরে ‘ডানলপ চর’

কলকাতার কাছেই, অথচ এক পৃথিবী দূরে ‘ডানলপ চর’

কলকাতা শহরের এত কাছে চরের বসতি খুব একটা দেখা যায় না। তবে ডানলপ চরের বাসিন্দাদের জীবনযাপন একটু অন্যরকম।

সকলের নজরে রাম মন্দিরের স্থপতি, বলছেন তৈরি হতে লাগবে তিন বছর

সকলের নজরে রাম মন্দিরের স্থপতি, বলছেন তৈরি হতে লাগবে তিন বছর

সুপ্রিম রায় নিয়ে একটিই বাক্য ব্যয় করলেন সোমপুরা, "এই রায়ের সবচেয়ে ভালো দিক হলো, উভয়পক্ষের প্রতিই সুবিচার করা হয়েছে।"

জনবসতির মাঝেই নতুন প্রজাতির ব্যাঙ, চাঞ্চল্যকর আবিষ্কার বাংলায়

জনবসতির মাঝেই নতুন প্রজাতির ব্যাঙ, চাঞ্চল্যকর আবিষ্কার বাংলায়

পড়শি রাজ্য আসামের বাসিন্দা জয়াদিত্য পেশায় সরীসৃপ এবং উভচর প্রাণী বিশেষজ্ঞ। তাঁর এবং তাঁর সতীর্থদের আবিষ্কারের পটভূমি হলো বাংলার দুটি জায়গা, উত্তর ২৪ পরগণার বাদু এবং দক্ষিণ ২৪ পরগণার খড়দানাহালা।

বাংলার জেলায় জেলায় ছড়িয়ে পড়ছে এই মন্ত্র, ‘রাগবি খেলো’

বাংলার জেলায় জেলায় ছড়িয়ে পড়ছে এই মন্ত্র, ‘রাগবি খেলো’

মোটামুটি মে থেকে সেপ্টেম্বর মাসের মধ্যে যদি সিসিএফসি মাঠ, অথবা আমেরিকান সেন্টারের উল্টোদিকে জাঙ্গল ক্রোজের মাঠে যান, দেখবেন কী পরম উৎসাহে রাগবি প্র্যাকটিস করছে একঝাঁক ছেলেমেয়ে।

মৃত্যু যখন জীবনে ফেরায়

মৃত্যু যখন জীবনে ফেরায়

এই শহরের বুক থেকে কিছু সুর ফুরিয়ে আসছে এক এক করে। কিছু গল্প শেষ হয়ে আসছে। প্রবহমান সময়ের কিছু কিছু অংশ প্রতি মুহূর্তে অতীত হয়ে যাচ্ছে।

ক্যানাডার মতো দেশে কেন প্রাণ দিতে হলো ছোট্ট অর্ককে?

ক্যানাডার মতো দেশে কেন প্রাণ দিতে হলো ছোট্ট অর্ককে?

কেন অর্কর মাকে বারবার মাথা চাপড়াতে হচ্ছে, "আমি বুলিইং সম্বন্ধে একটু রিসার্চ করলাম না! তাহলে ছেলেকে এ দেশে আনতামই না।"

বার্লিন দেওয়াল ধ্বসের ৩০ বছর…’শালা’

বার্লিন দেওয়াল ধ্বসের ৩০ বছর…’শালা’

জানিয়ে রাখা ভালো, যেহেতু দেখেছি, বার্লিন দেওয়াল ধ্বংস করেনি পূর্বের একজনও, করেছে পশ্চিম বার্লিনের মানুষ। যেমন, বার্লিন দেওয়াল চিত্র (গ্রাফিটি), এঁকেছে পশ্চিম বার্লিনের শৌখিন শিল্পীরা।

Advertisement

ট্রেন্ডিং
Weather Update
X